একদা জাতীয় দলের সতীর্থকে নিয়ে ক্ষোভ উগড়ে দিলেন গেইল। ছবি- গেটি ইমেজেস।
একদা জাতীয় দলের সতীর্থকে নিয়ে ক্ষোভ উগড়ে দিলেন গেইল। ছবি- গেটি ইমেজেস।

দীর্ঘদিনের সতীর্থকে করোনা ভাইরাসের থেকেও খারাপ বলে তিরস্কার করলেন গেইল

  • প্রাক্তন ক্যারিবিয়ান তারকাকে সাপ, অসাধু, দুর্নীতি পরায়ণ, বিষ প্রভৃতি বলে কার্যত গালিগালাজ করেন দ্য ইউনিভার্স বস।

দীর্ঘ কেরিয়ারে বিতর্কে জড়িয়ে পড়েননি এমনটা নয়। বরং বেশ কয়েকবার ক্রিস গেইলের কাজকর্ম নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে ক্রিকেটমহলে এবং কম-বেশি শাস্তিও পেতে হয়েছে তাঁকে। তবে ক্রিকেটবিশ্বে দ্য ইউনিভার্স বস পরিচিত সদাহাস্য ও অত্যন্ত খোলামেলা মেজাজের মানুষ হিসেবে। এহেন গেইল হঠাৎই মেজাজ হারালেন একদা জাতীয় দলের সতীর্থ রামনরেশ সারওয়ানের উপর। গেইল এতটাই চটে রয়েছেন যে, সারওয়ানকে করোনা ভাইরাসের থেকেও খারাপ তকমা দেন। সারওয়ানকে সরাসরি সাপ, অসাধু, দুর্নীতি পরায়ন, বিষ প্রভৃতি বলে কটুক্তিও করেন ক্যারিবিয়ান দৈত্য।

গেইল মনে করছেন যে, সারওয়ানের জন্যই সিপিএলে জামাইকা ফ্র্যাঞ্চাইজি তাঁর সঙ্গে চুক্তি ছিন্ন করেছে। নাহলে ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে তার ৩ বছরের চুক্তি ছিল। গেইল চেয়েছিলেন জামাইকা থেকেই কেরিয়ারে ইতি টানতে। বাধ্য হয়েই তিনি এবার সেন্ট লুসিয়ার যোগ দিয়েছেন, যেখানে তিনি ড্যারেন স্যামির নেতৃত্বে ও অ্যান্ডি ফ্লাওয়ারের কোচিংয়ে মাঠে নামবেন।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে তিনটি পর্বে বিভক্ত দীর্ঘ ভিডিও বার্তায় গেইল বলেন, 'যখন আমি জামাইকায় ফিরে আসি তখন সারওয়ান সহকারী কোচ ছিল। আমার সঙ্গে ওর কথা হতো। ও আমাকে জানিয়েছিল যে, ও দলের হেড কোচ হতে চায়। আমি ওকে বলেছিলাম হেড কোচ হওয়ার মত যথেষ্ট অভিজ্ঞতা ওর নেই। হেড কোচ হওয়া এত সহজ কাজ নয়।'

আমি যখন জামাইকা ছেড়ছিলাম, তখন দল দারুণ জায়গায় ছিল। পরে বহু ক্রিকেটার আমাকে জানায় তারা সারওয়ানকে নিয়ে অতিষ্ঠ। সারওয়ান, আমরা জামাইকার জন্য কত ঘাম ঝরিয়েছি। তুমিও তার শরিক ছিলে। তুমি আমার জন্মদিনে কত বড় বড় কথা বলেছিলে। সবাইকে শুনিয়েছিলে কীভাবে আমরা কত কষ্ট করে এই জায়গায় পৌঁছতে পেরেছি। সারওয়ান, তুমি একটা সাপ। তুমি জানো ওয়েস্ট ইন্ডিজে সবাই তোমাকে পছন্দ করে না। তুমি অত্যন্ত প্রতিহিংসা পরায়ণ ও অপরিণত। তুমি পিছন থেকে ছুরি মারো।'

দ্য ইউনিভার্স বস আরও বলেন, 'সবার সামনে তুমি সাধু সাজো। তবে তুমি অত্যন্ত অসাধু ও দুর্নীতি পরায়ণ। তুমি আসলে বিষ।'

বন্ধ করুন