বাংলা নিউজ > ময়দান > টোকিও অলিম্পিক্সের বিরোধীতায় এগিয়ে এলেন টোকিওর ডাক্তাররা
টোকিও অলিম্পিক্সের বিরোধীতা চলছে (ছবি: গুগল)
টোকিও অলিম্পিক্সের বিরোধীতা চলছে (ছবি: গুগল)

টোকিও অলিম্পিক্সের বিরোধীতায় এগিয়ে এলেন টোকিওর ডাক্তাররা

  • এতদিন সাধারণ মানুষ বিরোধীতা করছিলেন অলিম্পিক্সের। এ বার চিকিত্‍সকমহল থেকেও উঠল জোরালো আপত্তি। টোকিও মেডিক্যাল প্র্যাক্টিশনার অ্যাসোসিয়েশনের তরফে একটি চিঠি দেওয়া হয়েছে জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইওশিহিদে সুগাকে। বলা হয়েছে, শহরের কোনও হাসপাতালেরই বেড ফাঁকা নেই। এই অবস্থায় গেমস আয়োজন করা মারাত্মক ঝুঁকির।

বাতিল করা হোক টোকিও অলিম্পিক্স। বারবার প্রতিবাদের এই শব্দ জোড়ালো করে তুলেছিলেন জাপানের স্থানিয় নাগরিকরা। তারা বিশ্বের কাছে বলেছিলেন কোভিডের মারাত্মক পরিস্থিতিতে যেন তাদের দেশে অলিম্পিক্স না করা হয়। কিন্তু তাদের কথা শোনেনি অলিম্পিক্স সংস্থা। এরপর জাপানের মানুষ সই সংগ্রহ করে। তাতেও সারা দেননি অলিম্পিক্স সংস্থা। এবার টোকিও অলিম্পিক্সের বিরুদ্ধে প্রশ্ন তুললেন জাপানের চিকিত্‍সকমহল। 

এমনিতেই অলিম্পিক নিয়ে সমস্যা কম নেই। একের পর এক বাধা সামনে আসছে টোকিও অলিম্পিক্সের আয়োজকদের। তার মধ্যে এবার দেশের চিকিত্‍সকদের প্রতিবাদ আগুনে ঘি দিয়েছে। প্রতিবাদের আগুন আরও বেশি ছড়িয়েছে। টোকিওর চিকিত্‍সকরা জানিয়েছেন, যদি করোনার মাঝে দেশে অলিম্পিক্সের আসর বসে তাহলে চিকিত্‍সকরা বহু সমস্যায় পড়বেন।

এতদিন সাধারণ মানুষ বিরোধীতা করছিলেন অলিম্পিক্সের। এ বার চিকিত্‍সকমহল থেকেও উঠল জোরালো আপত্তি। টোকিও মেডিক্যাল প্র্যাক্টিশনার অ্যাসোসিয়েশনের তরফে একটি চিঠি দেওয়া হয়েছে জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইওশিহিদে সুগাকে। বলা হয়েছে, শহরের কোনও হাসপাতালেরই বেড ফাঁকা নেই। এই অবস্থায় গেমস আয়োজন করা মারাত্মক ঝুঁকির। তাই টোকিওর চিকিত্‍সকদের একটা বড় অংশ চাইছেন না এমুহূর্তে অলিম্পিক্সের আসর দেশে বসুক।

সংস্থার ওই চিঠিতে লেখা হয়েছে, ‘আমরা প্রবল ভাবে চাইছি এই পরিস্থিতিতে যেন অলিম্পিক আয়োজন না করা হয়। কোভিডের বিরুদ্ধে এই মুহূর্তে আমরা তীব্র লড়াই করছি। আর তার জন্য সমস্ত হাসপাতাল চূড়ান্ত ব্যস্ত। একটাও বেড ফাঁকা নেই। এই পরিস্থিতিতে যদি অলিম্পিক্স আয়োজন করা হয়, চিকিত্‍সকদের কাছে এটা আরও বেশি সমস্যার হয়ে দাঁড়াবে।’

অলিম্পিক হলে করোনার প্রভাব টোকিওতে বাড়বে। তা ঠেকানোর জন্য ভরসা চিকিত্‍সকরাই। তাঁরাই প্রতিবাদে সামিল হওয়ায় অলিম্পিক্স আয়োজকরাও বিপাকে পড়েছে। অবশ্য এ নিয়ে এখনও কোনও মন্তব্য করেনি আন্তর্জাতিক অলিম্পিক সংস্থা বা আয়োজকরা।

বন্ধ করুন