বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > ফিফার নির্বাসন ঘিরে ভারতীয় ফুটবলে ডামাডোলের মাঝেই শহরে আসছেন ইস্টবেঙ্গলের লিমা

ফিফার নির্বাসন ঘিরে ভারতীয় ফুটবলে ডামাডোলের মাঝেই শহরে আসছেন ইস্টবেঙ্গলের লিমা

অ্যালেক্স লিমা।

৩২ বছরের সাইপ্রাসের ডিফেন্ডার কারালাম্বোস কিরিয়াকু গত শনিবারই কলকাতায় চলে এসেছেন। কলকাতায় পা রেখেছেন আর এক ডিফেন্ডার ইভান গঞ্জালেসও। অর্থাৎ ভারতীয় ফুটবলের এই ডামাডোলের মধ্যেই লাল হলুদের তিন বিদেশি শহরে চলে আসছে। বাকি থাকবে দুই বিদেশি ক্লেইটন সিলভা এবং এলিয়ান্দ্রো।

ফেডারেশনের নির্বাসন ঘিরে ভারতীয় ফুটবলে তীব্র জটিলতা তৈরি হয়েছে। অন্ধকারে ডুবে সুনীল ছেত্রীদের ভবিষ্যত। এর মাঝেই শুক্রবার সকালেই শহরে আসছেন অ্যালেক্স লিমা। ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার আগের বছর জামশেদপুরে ছিলেন। এ বার নতুন চ্যালেঞ্জ নিয়ে ইস্টবেঙ্গলে সই করেছেন লিমা।

৩২ বছরের সাইপ্রাসের ডিফেন্ডার কারালাম্বোস কিরিয়াকু গত শনিবারই কলকাতায় চলে এসেছেন। জাতীয় দলের হয়ে খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে তাঁর। সাইপ্রাসের ঘরোয়া লিগে প্রচুর ট্রফি জিতেছেন। অর্থাৎ ভারতীয় ফুটবলের এই ডামাডোলের মধ্যেই লাল হলুদের তিন বিদেশি শহরে চলে আসছে। বাকি থাকবে তিন বিদেশি ইভান গঞ্জালেস, ক্লেইটন সিলভা এবং এলিয়ান্দ্রো। 

আরও পড়ুন: ফিফার নির্বাসন নিয়ে ভাবিত নয় ইস্টবেঙ্গল, ষষ্ঠ বিদেশির যোগ দেওয়া সময়ের অপেক্ষা

সপ্তাহ শেষের মধ্যেই কলকাতায় চলে আসার কথা ইস্টবেঙ্গলের বাকি বিদেশিরও। ষষ্ঠ তথা এশিয়ান কোটায় নেওয়া বিদেশির নামও দ্রুত ঘোষণা হওয়ার কথা। বর্তমানে ঘরের মাঠে প্রস্তুতি সারছেন স্টিফেন কনস্ট্যানটাইনের টিম। ২২ অগস্ট ইন্ডিয়ান নেভির বিরুদ্ধে ডুরান্ড কাপে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামবে লাল-হলুদ ব্রিগেড।

আরও পড়ুন: প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচেই হতাশা, কিবু স্যরের দলের কাছে আটকে গেল ইস্টবেঙ্গল

মনে করা হয়েছিল, ষষ্ঠ বিদেশির সই করানো নিয়ে ইস্টবেঙ্গল চাপে পড়বে। কিন্তু এই নির্বাসন নিয়ে একেবারে মাথাব্যথা নেই লাল-হলুদের। কারণ ষষ্ঠ বিদশির ছাড়পত্রের ব্যবস্থা নাকি হয়ে গিয়েছে। সূত্রের খবর, ষষ্ঠ বিদেশি ইতিমধ্যে চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছে। আগামী দু’-তিন দিনের মধ্যে তাঁর নাম ঘোষণা করা হতে পারে। ক্লাবের শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকার বলেছেন, ‘ইতিমধ্যেই আমরা দলের সব বিদেশি ফুটবলারদের সই করিয়ে ফেলেছি। আমাদের দল একেবারে প্রস্তুত। এক্ষেত্রে আমাদের আর কোনও সমস্যা হবে না। আমি বিশ্বাস করি যে, এই নির্বাসন কখনই চিরস্থায়ী হবে না। এই অন্ধকার খুব তাড়াতাড়িই কেটে যাবে। যদি আগামীকাল (বুধবার) সুপ্রিম কোর্টে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ঠিকঠাক করে জমা দেওয়া হয়, তাহলে আশা করছি সব কিছু আবারও আগের মতো হয়ে যাবে। সুপ্রিম কোর্টের উপরে আমাদের পূর্ণ আস্থা রয়েছে।’

এ দিকে মরশুমের শুরুতেই বড় ধাক্কা খেয়েছে ইস্টবেঙ্গলের ভক্তরা। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নতুন টিম ডায়মন্ড হারবার এফসি-র কাছে প্রস্তুতি ম্যাচেই আটকে গিয়েছে স্টিফেন কনস্ট্যানটাইন ব্রিগেড। মঙ্গলবার কিবু ভিকুনার দলের বিরুদ্ধে গোলশূন্য ভাবে শেষ হল মঙ্গলবারের প্রস্ততি ম্যাচ। ম্যাচটি কিন্তু লাল-হলুদ ব্রিগেড হেরেও যেতে পারত। তবে ইস্টবেঙ্গলের গোলকিপার দেবনাথ কুণ্ডুর দুরন্ত পারফরম্যান্স রক্ষা করে লাল-হলুদকে। যদিও রিজার্ভ দলের প্লেয়াররা খেলেছে, তবু ইস্টবেঙ্গলের এমন পারফরম্যান্সে হতাশ ক্লাবের সমর্থকেরা।

বন্ধ করুন