বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > স্বাধীনতা দিবসের দিনই প্রয়াত হলেন তিন প্রধানে খেলা জাতীয় দলের প্রাক্তন ডিফেন্ডার
প্রয়াত চিন্ময় চট্টোপাধ্যায়।
প্রয়াত চিন্ময় চট্টোপাধ্যায়।

স্বাধীনতা দিবসের দিনই প্রয়াত হলেন তিন প্রধানে খেলা জাতীয় দলের প্রাক্তন ডিফেন্ডার

  • তিন প্রধানে খেললেও চিন্ময় চট্টোপাধ্যায়ে মন বোধহয় পড়ে থাকত লাল-হলুদেই। যে কারণে ইস্টবেঙ্গলে বহু বছর খেলার পরেও তাঁকে অধিনায়ক না করা নিয়ে একটা বড় অভিমান থেকেই গিয়েছিল। সেই অভিমান নিয়েই চলে গেলেন চিন্ময়।

৭৫তম স্বাধীনতা দিবসের দিনই শোকের ছাড়া নেমে এল ভারতীয় ফুটবল মহলে। এ দিন হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হলেন তিন প্রধানে খেলা প্রাক্তন ফুটবলার চিন্ময় চট্টোপাধ্যায়। ভারতীয় দলের নির্ভরযোগ্য ডিফেন্ডার ছিলেন চিন্ময়। ষাটের দশকের কলকাতা ময়দানে পা রেখেছিলেন তিনি। আর তার পরে সবটাই ইতিহাস।

প্রথমে বাটা ক্লাবে খেলা শুরু করেছিলেন। সেখানে থেকে আসেন জর্জ টেলিগ্রাফে। ৭৪ সালে সাব্বির আলির নেতৃত্বে এশিয়ার এক যুব টুর্নামেন্টে ইরানকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ভারত। সেই দলের নির্ভরযোগ্য ফুটবলার ছিলেন চিন্ময়। তাঁর খেলায় মুগ্ধ হয়ে ৭৫ সালে মোহনবাগান তাঁকে সই করায়। কিন্তু পরের বছরেই ইস্টবেঙ্গলে চলে যান চিন্ময়। সেখানে টানা চার বছর খেলার পর কর্তাদের সঙ্গে মনোমালিন্য হওয়ায় ৮০ সালে সই করেন মহমেডানে। ৮১-তে মহমেডানকে কলকাতা লিগ চ্যাম্পিয়ন করতে বড় ভূমিকা নিয়েছিলেন রাইট ব্যাকে খেলা চিন্ময়।

এর পর ফের ইস্টবেঙ্গলে আসেন তিনি। এমন কী ৮৬ সালে দলের ফুটবলার হওয়ার পাশাপাশি লাল-হলুদের সহকারী কোচের দায়িত্বও সামলেছেন তিনি। তিন প্রধানে খেললেও তাঁর মন পড়ে থাকত লাল-হলুদেই। যে কারণে ইস্টবেঙ্গলে বহু বছর খেলার পরেও তাঁকে অধিনায়ক না করা নিয়ে একটা অভিমান থেকেই গিয়েছিল। সেই অভিমান নিয়েই চলে গেলেন চিন্ময়।

বাংলাকে সন্তোষ ট্রফি চ্যাম্পিয়ন করতেও বড় ভূমিকা নিয়েছিলেন চিন্ময়। ৭৮-এ ব্যাঙ্কক এশিয়ান গেমসে ভারতীয় দলের নির্ভরযোগ্য সদস্য ছিলেন চিন্ময় চট্টোপাধ্যায়।

বন্ধ করুন