বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2022 > কী কাণ্ড! বল দিয়ে আম্পায়ারের পেটে মারলেন পোলার্ড, আর হেসে খুন MI অধিনায়ক- ভিডিয়ো
পোলার্ডের বলে আহত হন আম্পায়ার।
পোলার্ডের বলে আহত হন আম্পায়ার।

কী কাণ্ড! বল দিয়ে আম্পায়ারের পেটে মারলেন পোলার্ড, আর হেসে খুন MI অধিনায়ক- ভিডিয়ো

  • ২ ওভার বল করে ২৬ রান দিয়ে কায়রন পোলার্ড কোনও উইকেটই পাননি। বুমরাহ ৫ উইকেট নিয়েছিলেন। কুমার কার্তিকেয় ২ উইকেট নেন। ১টি করে উইকেট নিয়েছিলেন ড্যানিয়েল স্যামস এবং মুরুগান অশ্বিন। কলকাতা ৯ উইকেটে ১৬৫ রান করে। রান তাড়া করতে নেমে, কলকাতা নাইট রাইডার্সের কাছে মুম্বইকে ৫২ রানে হারতে হয়।

সোমবার কলকাতা নাইট রাইডার্স এবং মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের ম্যাচে কায়রন পোলার্ডের বলে কিনা আহত হলেন আম্পায়ার! আর এতে হেসে কুটিপাটি রোহিত। এ আবার কেমন কাণ্ড!

আসলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের ইনিংস চলাকালীন মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের অলরাউন্ডার কায়রন পোলার্ড তখন বোলিং করছিলেন। মুম্বই দলের অধিনায়ক রোহিত শর্মা নাইট রাইডার্সের ইনিংসের দশম ওভার কায়রন পোলার্ডকে বল দিয়েছিলেন। পোলার্ডের একটি বল হাত ফস্কে গিয়ে লাগে আম্পায়ারের পেটে। তখন স্ট্রাইকে ছিলেন নীতিশ রানা।

আরও পড়ুন: যুজির পর বুমরাহও নিলেন ৫ উইকেট, ভারতীয় বোলাররাই KKR ব্যাটারদের যম

পোলার্ডের করা পঞ্চম বলটি নীতিশ রানার দিকে না গিয়ে, পিছনে নন স্ট্রাইকার এন্ডে থাকা আম্পায়ারের দিকে হাত ফস্কে গিয়ে তাঁর পেটে সজোরে লাগে। এর পর এই ঘটনা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। বেচারা আম্পায়েরর পেটে বল লাগলেও, তা নিয়ে চলছে হাসিমজা। এমন কী মুম্বইয়ের অধিনায়ক রোহিত শর্মাও কাণ্ডটি দেখে হেসে গড়িয়ে যান। পরে আম্পায়ার পুরো বিষয়টি সামলে নিয়ে নিজেও হেসে ফেলেন। মাঠে উপস্থিত সকলেই এই কাণ্ডে মজাই পান। তবে এই ঘটনার জন্য পরে পোলার্ডকে আম্পায়ারের কাছেও ক্ষমা চাইতে দেখা যায়।

প্রসঙ্গত, ২ ওভার বল করে ২৬ রান দিয়ে কায়রন পোলার্ড কোনও উইকেটই পাননি। বুমরাহ ৫ উইকেট নিয়েছিলেন। কুমার কার্তিকেয় ২ উইকেট নেন। ১টি করে উইকেট নিয়েছিলেন ড্যানিয়েল স্যামস এবং মুরুগান অশ্বিন। কলকাতা ৯ উইকেটে ১৬৫ রান করে।

গত দু' ম্যাচে পরপর জেতার পর মুম্বই ইন্ডিয়ান্স সোমবার মুখ থুবড়ে পড়ে। কলকাতা নাইট রাইডার্সের কাছে তাদের ৫২ রানে হারতে হয়। এই ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে মুম্বইয়ের সামনে নাইট রাইডার্স ১৬৬ রানের লক্ষ্য রেখেছিল। যা করতে ব্যর্থ হয় মুম্বই। তারা ১৭.৩ ওভারে মাত্র ১১৩ রানে অলআউট হয়ে যায়। এই নিয়ে মুম্বই ১১ ম্যাচের মধ্যে ৯টিতে হেরে পুরো ভেন্টিলেশনে চলে গেল। এতটা খারাপ পারফরম্যান্স এর আগে কোনও আইপিএলে করেনি মুম্বই ইন্ডিয়ান্স।

বন্ধ করুন