বাংলা নিউজ > ময়দান > ISL FINAL: এটিকে মোহনবাগানের সঙ্গে সত্যিই কি সেই আবেগ জড়িয়ে রয়েছে? প্রশ্ন সনির
সনি নর্দে।
সনি নর্দে।

ISL FINAL: এটিকে মোহনবাগানের সঙ্গে সত্যিই কি সেই আবেগ জড়িয়ে রয়েছে? প্রশ্ন সনির

  • মোহনবাগানের সঙ্গে এটিকে-কে জোড়া চলবে না। এই দাবিতে বারবার আন্দোলনের পথে হেঁটেছেন সবজু-মেরুন সমর্থকরা। এর প্রতিবাদে পথেও নেমেছেন তাঁরা। বিক্ষোভও দেখিয়েছেন। এ বার তাঁদের সেই দাবিকেই যেন মান্যতা দিলেন মোহনবাগানের প্রাক্তন হার্টথ্রব সনি নর্দে। তিনিও পরিষ্কার বলে দিলেন, মোহনবাগান আর এটিকে মোহনবাগান একেবারে আলাদা। এক নয়।

তাঁর পায়ের জাদুতেই একটা সময় মজেছিল কলকাতা ময়দান। হোসে রামিরেজ ব্যারেটো পরবর্তী অধ্যায়ে মোহনবাগানের প্রাণভ্রোমরা হয়ে উঠেছিলেন সনি নর্দে। ক্লাব ছাড়ার সময়ে সমর্থকদের সঙ্গে চোখের জলে ভাসতে দেখা গিয়েছিল হাইতির এই ফুটবলারকেও। তাঁর কাছে মোহনবাগান হল আবেগের নাম। আর সেই জায়গা থেকেই সম্ভবত সনি প্রশ্ন তুলেছেন, ‘মোহনবাগান আর এটিকে মোহনবাগান কি সত্যিই এক?’

এই মুহূর্তে মালয়েশিয়ায় ক্লাব মেলাকা ইউনাইটেডে খেলছেন সনি। রাতে যখন সনিকে ফোনে ধরা হল, তখন তাঁর গলায় একরাশ উচ্ছ্বাস। খুটিয়ে খুটিয়ে খবর নিলেন কলকাতার। জানতে চাইলেন, করোনা পরিস্থিতি নিয়েও। এ সবের মাঝেই মোহনবাগান নিয়ে তিনি অনর্গল।  বলছিলেন, ‘আমি জানি, এটিকে মোহনবাগানের পাশে কিন্তু বেশির ভাগ সমর্থকই নেই। সমর্থকরা আসলে এটিকে মোহনবাগানকে নয়। শুধু মোহনবাগানকে চায়। আর আমার কাছেও এটিকে মোহনবাগান আর মোহনবাগান সম্পূর্ণ আলাদা। এটিকে মোহনবাগানের সঙ্গে পুরনো সেই আবেগটা কি সত্যিই জড়িয়ে রয়েছে?’

শনিবার মুম্বই সিটি এফসি-র সঙ্গে যখন ম্যাচ খেলবে মোহনবাগান, সেই সময় মালয়েশিয়া সুপার লিগের ম্যাচ খেলতে ব্যস্ত থাকবেন সনি। তবে এটিকে-র সঙ্গে যেহেতু মোহনবাগান নাম জড়িয়ে রয়েছে, তাই তিনি চান, আন্তোনিও লোপেজ হাবাসের টিমই যেন আইএসএল চ্যাম্পিয়ন হয়। এমন কী ফাইনালে তিনি মোহনবাগানকেই এগিয়ে রাখছেন। বলছিলেনও, ‘এটিকে টিমটা কিন্তু অনেক দিন ধরে একসঙ্গে রয়েছে। তাদের মধ্যে বোঝাপড়া বেশ ভাল। দলগত ভাবে আমি এগিয়ে রাখব এটিকে মোহনবাগানকেই।’ এর সঙ্গেই তিনি অবশ্য যোগ করেন, ‘মুম্বই সিটি এফসি-র ফুটবলাররা আবার ব্যক্তিগত ভাল পারফরম্যান্স করে ম্যাচের রং বদলে দেয়। যেমন- বার্থোলোমিউ ওগবেচে, মোর্তাদা ফলের মতো প্লেয়াররা বারবার আইএসএলের ম্যাচে পার্থক্য গড়ে দিয়েছেন। তাই এটিকে মোহনবাগানকে এই বিষয়টা মাথায় রাখতে হবে।’

সনি যে কলকাতার ফুটবল উন্মাদনাকে মিস করেন, সেটা নিয়ে কোনও লুকোছাপা নেই তাঁর। তিনি সোজাসাপ্টা ভাষায় বলেও দিলেন, ‘আমি তো কলকাতাকে মিস করিই, এমন কী আমার পরিবারও কলকাতাকে খুব মিস করে। তবে ফুটবলারদের জীবন এক জায়গায় আটকে থাকে না। ভবিষ্যতে যে আমি আবার ভারতে ফিরব না, এমন কোনও কারণ নেই। হয়তো খুব শীঘ্রই ফিরতে পারি।’ সনি কি এই কথার মধ্যে দিয়েই কোনও কিছুর আভাস দিতে চেয়েছেন? সময়ই এর উত্তর দেবে।

বন্ধ করুন