বাংলা নিউজ > ময়দান > বাইরে থেকে বসে অনেক কথাই বলা যায়! গম্ভীর-আখতারকে এক হাত নিলেন সাকলিন মুস্তাক
গম্ভীর-আখতারকে এক হাত নিলেন সাকলিন মুস্তাক (ছবি:টুইটার)

বাইরে থেকে বসে অনেক কথাই বলা যায়! গম্ভীর-আখতারকে এক হাত নিলেন সাকলিন মুস্তাক

  • সাকলিন মুস্তাক বলেন, ‘এটা তাদের চিন্তা। যারা বাইরে বসে আছে, তারা বাইরে থেকে জিনিস দেখে তার উপর কথা বলে। এটা তাদের দোষ নয়। তিনি ফলাফল এবং স্কোরকার্ড দেখেছেন এবং তাঁর মন্তব্য করেছেন। ড্রেসিংরুমের ভিতরে কী হচ্ছে তা তারা জানেন না।’

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ফাইনালে মহম্মদ রিজওয়ানের ইনিংস নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে। এবার ডানহাতি উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানকে বাঁচাতে সমালোচনার মাঠে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন পাকিস্তানের কোচ সাকলিন মুস্তাক। প্রথমে ব্যাট করে ১৭০ রান করে শ্রীলঙ্কা। ১৭১ রানের লক্ষ্যে জবাব দিতে নেমে ৪৯ বলে ৫৫ রান করেন রিজওয়ান। তাঁর ধীরগতির ব্যাটিং প্রয়োজনীয় রান রেট বাড়িয়েছে এবং শ্রীলঙ্কার বোলারদের পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে সাহায্য করেছে।

পাকিস্তান ১৪৭ রানে গুটিয়ে যায় এবং শ্রীলঙ্কা ষষ্ঠবারের মতো এশিয়া কাপ ট্রফি জিতে নেয়। রিজওয়ানের এদিনের ইনিংস প্রসঙ্গে পাকিস্তানের প্রাক্তন ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার এবং ভারতের প্রাক্তন ওপেনার গৌতম গম্ভীর সহ ক্রিকেট পন্ডিতদের দ্বারা সমালোচিত হয়েছে। শোআখতার বলেন,‘এই সমন্বয় কাজ করছে না। পাকিস্তানকে অনেক কিছু দেখতে হবে। ফখর, ইফতিখার, খুশদিল সব বিবেচনা করা প্রয়োজন। রিজওয়ানের ৫০ বলে ৫০ রান আর কাজ করবে না। পাকিস্তান লাভবান হবে না। হ্যাটস অফ টু শ্রীলঙ্কা। কি দারুণ একটি দল।’

আরও পড়ুন… বাবর আজমের খারাপ ফর্মের পিছনের রহস্য কী? উত্তর দিলেন পাক কোচ সাকলিন মুস্তাক

নিজের মন্তব্য করার সময় রিজওয়ানের ব্যাটিং পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন তোলেন গৌতম গম্ভীর। তিনি বলেন যে ব্যাটসম্যানকে তার ধীর ইনিংসের জন্য সমালোচনা করা উচিত। তৃতীয় উইকেটে প্রায় ১০ ওভারে ৭১ রানের জুটি গড়েন রিজওয়ান ও ইফতেখার আহমেদ (৩২)। এ সময় শ্রীলঙ্কার বোলাররা আঁটসাট বোলিং করেন। ১৭তম ওভারে রিজওয়ান আউট হন এবং ততক্ষণে ম্যাচটি পাকিস্তানের হাত থেকে চলে যায়। শেষ চার ওভারে দলের প্রয়োজন ৬১ রান এবং হাতে ছিল ছয় উইকেট।

তবে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে এশিয়া কাপের ফাইনালে মহম্মদ রিজওয়ানের পাশে দাঁড়িয়েছেন পাকিস্তানের প্রধান কোচ সাকলিন মুস্তাক। সংবাদ সম্মেলনে রিজওয়ানের ব্যাটিং-এর প্রশংসা করেছেন তিনি। সাকলিন মুস্তাক বলেন, ‘এটা তাদের চিন্তা। যারা বাইরে বসে আছে, তারা বাইরে থেকে জিনিস দেখে তার উপর কথা বলে। এটা তাদের দোষ নয়। তিনি ফলাফল এবং স্কোরকার্ড দেখেছেন এবং তাঁর মন্তব্য করেছেন। ড্রেসিংরুমের ভিতরে কী হচ্ছে তা তারা জানেন না। খেলোয়াড়রা তাদের আত্মবিশ্বাস এবং আহত হওয়ার বিষয়ে কী অনুভব করছে সেটা তারা জানেন না।’

আরও পড়ুন… Asia Cup 2022: আফগান ম্যাচের পরেই সব বদলে গেল! জয়ের রহস্য ফাঁস করলেন হাসারাঙ্গা

সাকলিন আরও বলেন, ‘আমি বিশেষজ্ঞ হিসেবে তিন বছর কাজ করেছি। সুতরাং, আমি জানি কিভাবে জিনিস কাজ করে। একবার তারা ক্রিকেটারদের সঙ্গে কাজ করলেই দলের বন্ধন ও পরিবেশ সম্পর্কে জানতে পারবেন।’ আসিফ আলি এবং শাদাব খানের প্রশংসাও করেছিলেন সাকলিন। তারা ম্যাচের সময় চোট পেয়েছিলেন কিন্তু তারপরও ব্যাট করতে নেমেছিলেন।

সাকলিন বলেন, ‘আসিফের হাতে চারটি সেলাই পড়েছে। শাদাবের কান দিয়ে রক্ত ​​বেরোচ্ছিল,তার একটা খিঁচুনি ছিল। তারপরও ব্যাট করতে গিয়েছিলেন।’ ভানুকা রাজাপক্ষের ৪৫ বলে অপরাজিত ৭১ রানের সাহায্যে দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে শ্রীলঙ্কা ৬ উইকেটে ১৭০ রান করে। এক পর্যায়ে দলটি ৫ উইকেট হারিয়ে ৫৮ রানে লড়াই করছিল। রাজাপক্ষের ইনিংসের সাহায্যে দল বড় স্কোর করে। শ্রীলঙ্কার প্রশংসা করে মুস্তাক বলেন, ‘আমি শ্রীলঙ্কার খেলোয়াড়দের কৃতিত্ব দেব। আমরা প্রথম নয় ওভারে তার পিঠ ভেঙে দিয়েছিলাম। কিন্তু রাজাপক্ষে যেভাবে খেলেছেন এবং বাকি খেলোয়াড়রা তাঁকে যে ভাবে সমর্থন করেছে তার প্রশংসা করা উচিত। আমি মনে করি এটা অবশ্যই তাঁর জীবনের সেরা ইনিংস হবে।’

বন্ধ করুন