বাংলা নিউজ > ময়দান > টোকিও অলিম্পিক্স > Tokyo 2020: লভলিনার ব্রোঞ্জ থেকে অদিতির পারফরম্যান্স, কোন ভারতীয়রা চমক দিলেন টোকিওতে

Tokyo 2020: লভলিনার ব্রোঞ্জ থেকে অদিতির পারফরম্যান্স, কোন ভারতীয়রা চমক দিলেন টোকিওতে

  • প্রতিবারের মতো এবারও প্রচুর আশা নিয়ে অলিম্পিক্সের জন্য টোকিওয় উড়ে গিয়েছিলেন ভারতীয় অ্যাথলিটরা। অ্যাথলিটদের অনেকেই নিজেদের যোগ্যতা অনুযায়ী পারফর্ম না করে হতাশ করেছেন দেশবাসীকে। তবে পাশপাশি অদিতি অশোক, ভবানী দেবীদের পারফরম্যান্স বিস্মিত করেছে জনগণকে। এক নজরে দেখে নিন টোকিওয় ভারতীয়দের চমকপ্রদ ফলাফল।
ইকুয়েস্ট্রিয়ানের ইভেন্টিং জাম্পিংয়ের ব্যক্তিগত বিভাগের ফাইনালে উঠে পদকের দৌড়ে বজায় ছিলেন ফওয়াদ মির্জা অবশেষে ২৩ নম্বরেই দৌড়ে থামে অশ্বারোহীর। ইকুয়েস্ট্রিয়ানের ফাইনাল অবধি পদক জয়ের আশা বজায় রাখাটাই ফওয়াদের এক বিশাল কৃতিত্ব। ফাইনালে নেমে গোটা দেশবাসীকে স্বল্পের জন্য হলেও চমকপ্রদভাবে পদকের আশা দেখাতে সক্ষম হন তিনি। প্যারিসে হয়তো পরের অলিম্পিক্সে তাঁর ওপর আশা করবেন ভারতীয় জনগণ। এই অলিম্পিক্সে তেমন কেমন আশা না থাকলেও নিজের পারফরম্যান্সের মাধ্যমে সেটি অর্জন করেছেন ফওয়াদ।
1/6ইকুয়েস্ট্রিয়ানের ইভেন্টিং জাম্পিংয়ের ব্যক্তিগত বিভাগের ফাইনালে উঠে পদকের দৌড়ে বজায় ছিলেন ফওয়াদ মির্জা অবশেষে ২৩ নম্বরেই দৌড়ে থামে অশ্বারোহীর। ইকুয়েস্ট্রিয়ানের ফাইনাল অবধি পদক জয়ের আশা বজায় রাখাটাই ফওয়াদের এক বিশাল কৃতিত্ব। ফাইনালে নেমে গোটা দেশবাসীকে স্বল্পের জন্য হলেও চমকপ্রদভাবে পদকের আশা দেখাতে সক্ষম হন তিনি। প্যারিসে হয়তো পরের অলিম্পিক্সে তাঁর ওপর আশা করবেন ভারতীয় জনগণ। এই অলিম্পিক্সে তেমন কেমন আশা না থাকলেও নিজের পারফরম্যান্সের মাধ্যমে সেটি অর্জন করেছেন ফওয়াদ।
নিজের প্রথম অলিম্পক্সে ওয়েল্টারওয়েট (৬৪-৬৯ কেজি) বিভাগে নেমেছিলেন লভলিনা বড়গোহাঁই। এর আগেও বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ এবং এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ব্রোঞ্জ পদক পেলেও, অলিম্পিক্সে প্রথমবার নেমেই পদক পাওয়াটা খুবই শক্ত। তবে ঠিক সেই কৃতিত্বটা করেই সকলকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন লভলিনা। সেমিফাইনালে বিশ্বচ্যাম্পিয়নের কাছে পরাজিত হলেও তাঁর অর্জিত ব্রোঞ্জ মেডেল অত্যন্ত গর্বের। 
2/6নিজের প্রথম অলিম্পক্সে ওয়েল্টারওয়েট (৬৪-৬৯ কেজি) বিভাগে নেমেছিলেন লভলিনা বড়গোহাঁই। এর আগেও বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ এবং এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ব্রোঞ্জ পদক পেলেও, অলিম্পিক্সে প্রথমবার নেমেই পদক পাওয়াটা খুবই শক্ত। তবে ঠিক সেই কৃতিত্বটা করেই সকলকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন লভলিনা। সেমিফাইনালে বিশ্বচ্যাম্পিয়নের কাছে পরাজিত হলেও তাঁর অর্জিত ব্রোঞ্জ মেডেল অত্যন্ত গর্বের। 
এক সময় অলিম্পিক্সের মঞ্চে রাজত্ব করত ভারতীয় হকি দল। সেই সময় বহু আগেই চলে গিয়েছিল। টোকিও সাক্ষী থাকল ভারতীয় হকির পুনরুত্থানের। তবে ভারতীয় দলের সাফল্যোর গোটাটাই ছিল পুরুষ দলের। এবার তাদের পাশপাশি ইতিহাস সৃষ্টি করেছে মহিলা দল। প্রথম তিন ম্যাচে হার দিয়ে অলিম্পিক্স সফর শুরু করেছিল ভারতীয় মহিলা হকি দল। তবে পরের তিন ম্যাচ জিতে ইতিহাসের পাতায় নিজেদের নাম তুলতে সক্ষম হয়েছেন রানি রামপাল, সবিতা পুনিয়ারা। প্রথমবার সেমিফাইনালে পৌঁছে পদক হাতছাড়া হলেও রানিদের জন্য গর্বিত গোটা দেশ। 
3/6এক সময় অলিম্পিক্সের মঞ্চে রাজত্ব করত ভারতীয় হকি দল। সেই সময় বহু আগেই চলে গিয়েছিল। টোকিও সাক্ষী থাকল ভারতীয় হকির পুনরুত্থানের। তবে ভারতীয় দলের সাফল্যোর গোটাটাই ছিল পুরুষ দলের। এবার তাদের পাশপাশি ইতিহাস সৃষ্টি করেছে মহিলা দল। প্রথম তিন ম্যাচে হার দিয়ে অলিম্পিক্স সফর শুরু করেছিল ভারতীয় মহিলা হকি দল। তবে পরের তিন ম্যাচ জিতে ইতিহাসের পাতায় নিজেদের নাম তুলতে সক্ষম হয়েছেন রানি রামপাল, সবিতা পুনিয়ারা। প্রথমবার সেমিফাইনালে পৌঁছে পদক হাতছাড়া হলেও রানিদের জন্য গর্বিত গোটা দেশ। 
অতীতে জীভ মিলখা সিং, বর্তমানে অনির্বাণ লাহিড়ীদের সুবাদে ভারতীয় গল্ফের সঙ্গে পরিচিত হলেও পদকের আশা ছিল না। তবে চমকপ্রদভাবে হঠাৎ করেই অদিতি অশোকের পারফরম্যান্স গল্ফের নিয়ম ঘাটা থেকে খেলার বিষয়ে জানার আগ্রহ বেড়ে যায় ভারতীয়দের মধ্যে। শেষ দিনের টুর্নামেন্টে দ্বিতীয় স্থানে শুরু করলেও অল্পের জন্য পদক হাতছাড়া হয় অদিতির। চতুর্থ স্থানে শেষ করেন তিনি। বিশ্বের ২০০ নম্বর অদিতির এহেন পারফরম্যান্সে বিস্মিত গোটা গল্ফিং বিশ্ব।
4/6অতীতে জীভ মিলখা সিং, বর্তমানে অনির্বাণ লাহিড়ীদের সুবাদে ভারতীয় গল্ফের সঙ্গে পরিচিত হলেও পদকের আশা ছিল না। তবে চমকপ্রদভাবে হঠাৎ করেই অদিতি অশোকের পারফরম্যান্স গল্ফের নিয়ম ঘাটা থেকে খেলার বিষয়ে জানার আগ্রহ বেড়ে যায় ভারতীয়দের মধ্যে। শেষ দিনের টুর্নামেন্টে দ্বিতীয় স্থানে শুরু করলেও অল্পের জন্য পদক হাতছাড়া হয় অদিতির। চতুর্থ স্থানে শেষ করেন তিনি। বিশ্বের ২০০ নম্বর অদিতির এহেন পারফরম্যান্সে বিস্মিত গোটা গল্ফিং বিশ্ব।
প্রথম ভারতীয় ফেন্সার হিসাবে অলিম্পিক্সের যোগ্যতা অর্জন করে আগেই ইতিহাস গড়েছিলেন ভবানী দেবী। ফেন্সিংয়ে ভারত থেকে ম্যাচ জেতা তো দূর, কেউ অলিম্পিক্সে কোয়ালিফাই করবে এমন আশা বোধহয় খুব বড় সমর্থকেরও ছিল না। তবে ভবানী দেবী ঠিক তাই করে দেখিয়েছেন। নিজের দ্বিতীয় ম্যাচে বিশ্বের তৃতীয় নম্বর মানন ব্রানেটের কাছে পরাজিত হওয়ার আগে নিজের প্রথম ম্যাচ জিতে গড়েছেন ইতিহাস। আগামী দিনে তাঁর এই সাফল্য় ভারতের মাটিতে ফেন্সিংয়ের উন্নতি ঘটানোর পাশপাশি দেশে এই খেলার জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি করবে বলে আশা করাই যায়।
5/6প্রথম ভারতীয় ফেন্সার হিসাবে অলিম্পিক্সের যোগ্যতা অর্জন করে আগেই ইতিহাস গড়েছিলেন ভবানী দেবী। ফেন্সিংয়ে ভারত থেকে ম্যাচ জেতা তো দূর, কেউ অলিম্পিক্সে কোয়ালিফাই করবে এমন আশা বোধহয় খুব বড় সমর্থকেরও ছিল না। তবে ভবানী দেবী ঠিক তাই করে দেখিয়েছেন। নিজের দ্বিতীয় ম্যাচে বিশ্বের তৃতীয় নম্বর মানন ব্রানেটের কাছে পরাজিত হওয়ার আগে নিজের প্রথম ম্যাচ জিতে গড়েছেন ইতিহাস। আগামী দিনে তাঁর এই সাফল্য় ভারতের মাটিতে ফেন্সিংয়ের উন্নতি ঘটানোর পাশপাশি দেশে এই খেলার জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি করবে বলে আশা করাই যায়।
তবে শুধুমাত্র চমকপ্রদভাবে ভাল ফলই নয়, আশায় জল ঢেলে দিয়ে হতাশও করেছেন অনেকে। মেনস টিম ইভেন্টে কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছতে সক্ষম হলেও পদক আসেনি আর্চারিতে। অতনু দাস, বিশ্বের এক নম্বর আর্চার দীপিকা কুমারি, প্রবীণ যাদবরা অনেক আশা নিয়ে টোকিও পা রেখেছিলেন। তবে গোটা টুর্নামেন্ট জুড়েই একের পর এক নিরাশাজনক ফলাফল করেছেন ভারতীয় আর্চাররা। তাঁদের এহেন ব্য়র্থতা দেশের জনগণকে ভীষণ হতাশ করেছে।
6/6তবে শুধুমাত্র চমকপ্রদভাবে ভাল ফলই নয়, আশায় জল ঢেলে দিয়ে হতাশও করেছেন অনেকে। মেনস টিম ইভেন্টে কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছতে সক্ষম হলেও পদক আসেনি আর্চারিতে। অতনু দাস, বিশ্বের এক নম্বর আর্চার দীপিকা কুমারি, প্রবীণ যাদবরা অনেক আশা নিয়ে টোকিও পা রেখেছিলেন। তবে গোটা টুর্নামেন্ট জুড়েই একের পর এক নিরাশাজনক ফলাফল করেছেন ভারতীয় আর্চাররা। তাঁদের এহেন ব্য়র্থতা দেশের জনগণকে ভীষণ হতাশ করেছে।
অন্য গ্যালারিগুলি