বাংলা নিউজ > ময়দান > ম্যাচে বল করতে গিয়ে উইকেটকিপারের ফোন ভেঙেছিলেন উমরান! জানেন তারপর কী হয়েছিল?

ম্যাচে বল করতে গিয়ে উইকেটকিপারের ফোন ভেঙেছিলেন উমরান! জানেন তারপর কী হয়েছিল?

ভারতীয় দলের অনুশীলনে উমরান মালিক (ছবি-পিটিআই) (PTI)

উমরাম মালিক এদিন বলেন যে তিনি জম্মুতে একটি টেনিস বল টুর্নামেন্ট চলাকালীন একজন উইকেটকিপারের ফোন ভেঙে দিয়েছিলেন। ব্যাটিংয়ের সময় ব্যাটসম্যান ফোনটি পকেটে রেখেছিলেন এবং উমরানের দ্রুত গতিতে বল সরাসরি ফোনে গিয়ে লাগে ও ফোনের স্ক্রিন ভেঙে যায়। 

২০২২ আইপিএল-এ উমরান মালিক তার ফাস্ট বোলিংয়ের কারণে প্রচুর প্রশংসা পেয়েছেন। তাকে এই আইপিএলের সবচেয়ে বড় আবিষ্কার বলে মনে করা হচ্ছে। এই আইপিএলের দ্বিতীয় দ্রুততম বলটিও করেছেন উমরান মালিক। তারপর থেকেই সবাই জম্মুর এই তরুণ বোলারকে নিয়ে কথা বলছেন। আইপিএলের ১৫তম মরশুমে উমরান তার বোলিং গতিতে অনেক ব্যাটসম্যানকে অবাক করেছেন। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আসন্ন দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজে বোলিং করতে দেখা যাবে এই তরুণ বোলারকে।

আইপিএল-এর ১৫তম মরশুমে, উমরান মালিক তার গতিতে ম্যাথু ওয়েড এবং হার্দিক পান্ডিয়ার মতো অভিজ্ঞ আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যানদেরও বিরক্ত করেছিলেন। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ম্যাথু ওয়েড পাকিস্তানের শাহিন আফ্রিদিকে দুই ছক্কা মেরে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে বিশ্বকাপ জিতিয়েছিলেন, কিন্তু উমরানের ধারালো বাউন্সারের সামনে তার কোনও জবাব ছিল না। একই সময়ে, গুজরাট টাইটানসের অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়াও উমরানের গতি এবং বাউন্স নিয়ে বিরক্ত হয়েছিলেন।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের সাথে কথোপকথনের সময়, উমরান মালিক বলেছিলেন যে তিনি ব্যাটসম্যানদের চোখে বোলারের জন্য ভয় দেখতে উপভোগ করেন। উমরান মালিক বলেন, ‘দ্রুত বোলিং করার সময় আমি উইকেট নেওয়া সবচেয়ে বেশি উপভোগ করি এবং যখন ব্যাটসম্যান ভয় পায়, তখন আমি অনুভব করি যে আমি সত্যি দ্রুত বোলিং করছি এবং আমি এটা উপভোগ করি কারণ সে (ব্যাটসম্যান) আমাকে ভয় পাচ্ছে।’

উমরান মালিক বলেন যে তার দ্রুত বল ব্যাটসম্যানের হেলমেটে আঘাত করলে তিনি খুশি হন এবং একটি ভালো ইয়র্কার বলে উইকেট পেয়ে সবচেয়ে বেশি আনন্দ পান। এই আইপিএলের ১৪ ম্যাচে ২২টি উইকেট শিকার করেছেন উমরান মালিক। এই দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের জন্য তিনি দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ভারতীয দলে জায়গা করে নিয়েছেন।

উমরাম মালিক এদিন Eবলেন যে তিনি জম্মুতে একটি টেনিস বল টুর্নামেন্ট চলাকালীন একজন উইকেটকিপারের ফোন ভেঙে দিয়েছিলেন। খেলার সময় উইকেটকিপারটি ফোনটি পকেটে রেখেছিলেন এবং উমরানের দ্রুত গতিতে বল সরাসরি ফোনে গিয়ে লাগে ও ফোনের স্ক্রিন ভেঙে যায়। এর জন্য ব্যাটসম্যানকে পরে টাকাও দিয়েছিলেন উমরান। তিনি আরও বলেন, যখন এই সব হয়েছিল, তখন তিনি খুব হেসেছিলেন।

 

বন্ধ করুন