বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > SBI-পাসবই আপডেট করতে গিয়ে বিস্মিত গ্রাহকরা, অ্যাকাউন্ট থেকে উধাও টাকা
গ্রাহকসেবা কেন্দ্রের প্রতীকী ছবি।

SBI-পাসবই আপডেট করতে গিয়ে বিস্মিত গ্রাহকরা, অ্যাকাউন্ট থেকে উধাও টাকা

  • গ্রাহকদের অভিযোগ, রামতারক হাট এলাকার বল্লুক অঞ্চলের কাছে অবস্থিত স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার গ্রাহক সেবা কেন্দ্রে তারা টাকা জমা দেওয়া বা তুলে থাকেন। সেখান থেকেই তারা ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খুলেছিলেন। কিন্তু, বেশ কয়েকজনের অ্যাকাউন্ট থেকে অনেক টাকা উধাও হয়ে গিয়েছে বলে অভিযোগ।

গ্রাহকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে জমানো টাকা লোপাট করার অভিযোগ উঠল। একজন বা দুজন নয়, বহু গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট থেকে প্রচুর পরিমাণে টাকা লোপাট করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়। বিক্ষোভ করেন গ্রাহকরা। ঘটনাটি পূর্ব মেদিনীপুরের তমলুকের রামতারক এলাকার। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় তমলুক থানার পুলিশ।

গ্রাহকদের অভিযোগ, রামতারক হাট এলাকার বল্লুক অঞ্চলের কাছে অবস্থিত স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার গ্রাহক সেবা কেন্দ্রে তারা টাকা জমা দেওয়া বা তুলে থাকেন। সেখান থেকেই তারা ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খুলেছিলেন। কিন্তু, বেশ কয়েকজনের অ্যাকাউন্ট থেকে অনেক টাকা উধাও হয়ে গিয়েছে বলে অভিযোগ। এই ঘটনার প্রতিবাদে স্থানীয় গ্রাহকরা ওই গ্রাহক সেবা কেন্দ্র ঘিরে বিক্ষোভ করেন। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এসবিআই কিয়স্ক বা গ্রাহক সেবা কেন্দ্র চালু হয়েছিল ২০১৫ সালে। সেখান থেকে এলাকার বহু মানুষ ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খুলেছিলেন। কিছুদিন আগেই প্রথমে কয়েকজন গ্রাহক ব্যাঙ্কের বই আপটুডেট করতে গিয়ে দেখেন তাদের অ্যাকাউন্ট থেকে বেশ কিছু টাকা গায়েব হয়েছে। পরে একই সমস্যা দেখা যায় আরও বহু গ্রাহকের অ্যাকাউন্টে। তারা যে পরিমাণ টাকা অ্যাকাউন্টে রেখেছিলেন সেই পরিমাণ টাকা তাদের অ্যাকাউন্টে নেই। বিষয়টি দেখার পরে চিন্তায় মাথায় হাত গ্রাহকদের।

হঠাৎ করে অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা গায়েব হওয়া যাওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই দরিদ্র গ্রাহকরা চিন্তার মধ্যে পড়ে যান এরপর তারা গ্রাহক সেবা কেন্দ্রের প্রতিনিধির কাছে ভিড় করে। তারা গ্রাহক সেবা কেন্দ্র প্রতিনিধির বিরুদ্ধেই টাকা লোপাটের অভিযোগ তুলেছেন। খবর পাওয়ার পরেই ঘটনাস্থলে পৌঁছায় তমলুক থানার পুলিশ । এর পরেই গ্রাহক সেবা কেন্দ্রের প্রতিনিধি মাধব দাসকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তবে কীভাবে গ্রাহকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা উধাও হয়ে গেল তা অবশ্য জানাতে চায়নি ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ। পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

বন্ধ করুন