বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > গালওয়ানে শহিদ আলিপুরদুয়ারের বিপুল রায়, বাবাকে হারাল পাঁচ বছরের তমান্না
বিপুল রায় (ছবি সৌজন্য সংগৃহীত)
বিপুল রায় (ছবি সৌজন্য সংগৃহীত)

গালওয়ানে শহিদ আলিপুরদুয়ারের বিপুল রায়, বাবাকে হারাল পাঁচ বছরের তমান্না

গত বছর ডিসেম্বরে শেষবার আলিপুরদুয়ারের বাড়িতে এসেছিলেন।

গত বছর ডিসেম্বরে শেষবার আলিপুরদুয়ারের বাড়িতে এসেছিলেন। প্রায় সাত মাস পর যখন নিজের রাজ্যে, নিজের বাড়িতে ফিরবেন, তখন তাঁর দেহ কফিনে বন্দি।

তিনি হাবিলদার বিপুল রায় (৩৬)। সোমবার রাতে গালওয়ানে উপত্যকায় ভারত ও চিন সেনার সংঘর্ষে শহিদ হয়েছেন। আদতে পশ্চিমবঙ্গের ছেলে বিপুল রায় মীরাটে পোস্টিং পেয়েছিলেন। সেখানের কনকেরখেরা এলাকার কুবদান কুঞ্জ এলাকায় একটি ভাড়াবাড়িতে স্ত্রী রূপা রায় এবং মেয়ে তমন্নার সঙ্গে থাকতেন। এরইমধ্যে বছর খানেক আগে লেহ'তে তাঁকে পোস্টিং দেওয়া হয়েছিল। সেইমতো তিনি লেহ'তে গেলেও স্ত্রী এবং মেয়ে মীরাটেই থাকতেন। 

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, কনকেরখেরার বাসিন্দা এক জওয়ান শহিদ হয়েছিলেন বলে তাঁরা খবর পাচ্ছিলেন। তবে সেনার তরফে কিছু জানানো হয়নি। পরে মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে সেনার তরফে জানানো হয়, শহিদ হয়েছেন বিপুল রায়। সেই খবর পৌঁছায় আলিপুরদুয়ারের বাড়িতেও। 

আলিপুরদুয়ারের বাড়িতে রয়েছেন বিপুল রায়ের বাবা-মা ও ভাই। ছেলের মৃত্যুতে ভেঙে পড়লেও দেশের জন্য জীবন উৎসর্গ করায় গর্বিত বাবা। তাঁর এক ভাই রাজীব বলেন, ‘দাদা, ২০১৯ সালের ডিসেম্বর এখানে এসেছিল। তখনই ওর সঙ্গে শেষবার দেখা করেছিলাম। আমি ওর জন্য গর্বিত।’ 

সেনার তরফে জানানো হয়েছে, বিপুল রায়ের মরদেহ আলিপুরদুয়ারে নিয়ে যাওয়া হবে। সেই বিমানে করে যাবেন তাঁর স্ত্রী এবং পাঁচ বছরের মেয়ে।

বন্ধ করুন