বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ঘণ্টাচারেক ‘উধাও’, কোটি-কোটি টাকা প্রতারণার মামলায় কি গ্রেফতার তৃণমূল বিধায়ক?
তাপস সাহা। (ফাইল ছবি, সৌজন্যে ফেসবুক)

ঘণ্টাচারেক ‘উধাও’, কোটি-কোটি টাকা প্রতারণার মামলায় কি গ্রেফতার তৃণমূল বিধায়ক?

  • সরকারি চাকরি এবং লাইসেন্স পাইয়ে দেওয়ার নাম করে অনেকের থেকে কোটি-কোটি টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠেছে তেহট্টের বিধায়ক তাপস সাহার বিরুদ্ধে। তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠিও দিয়েছেন অনেকে। তারপরই তাপসের আপ্তসহায়ক প্রবীর কয়াল এবং প্রবীরের দুই সঙ্গী শ্যামল কয়াল ও সুনীল মণ্ডলকে গ্রেফতার করেছে রাজ্য পুলিশের দুর্নীতিদমন শাখা।

সকাল থেকেই 'উধাও' হয়ে গিয়েছিলেন। তারপর থেকেই জল্পনা ছড়িয়েছিল, তাহলে কি চাকরি পাইয়ে দেওয়ার নামে আর্থিক প্রতারণার মামলায় তেহট্টের তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক তাপস সাহাকে গ্রেফতার করা হয়েছে? অবশেষে প্রায় ঘণ্টাচারেক পরে তাপস জানালেন, ব্যক্তিগত কাজে কলকাতায় গিয়েছেন। তাঁকে গ্রেফতার করা হয়নি।

আরও পড়ুন: ‘ভাগ্নে থেকে দলের ছেলে, চাকরি দেওয়ার নাম করে সবার কাছ থেকে টাকা নিয়েছেন তাপস সাহা’

পলাশিপাড়ার কড়ুইগাছি গ্রামের বাসিন্দারা দাবি করেন, রবিবার সকাল ন'টা নাগাদ তাপসের বাড়ির সামনে কয়েকটি গাড়ি আসে। হনহনিয়ে কয়েকজন বিধায়কের বাড়িতে ঢুকে যান। কিছুক্ষণ কথা বলেন তাপসের সঙ্গে। তাপসকে গাড়িতে বসতে দেখা যায়। তারপর থেকেই তাপসের বাড়ি তালাবন্ধ ছিল বলে দাবি করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁকে ফোনেও পাওয়া যাচ্ছিল না। তার জেরে এলাকায় কানাঘুষো শুরু হয়, তাহলে কি সাদা পোশাকে এসে তাপসকে গ্রেফতার করে নিয়ে গিয়েছে পুলিশ?

যদিও ঘণ্টাচারকে পরে তাপস জানান, তাঁকে গ্রেফতার করা হয়নি। অবাস্তব খবর রটানো হচ্ছে। ব্যক্তিগত কাজেই কলকাতায় যাচ্ছেন। কৃষ্ণনগর সাংগঠনিক জেলা তৃণমূলের সভাপতি কল্লোল খাঁয়ের সঙ্গে দেখা করেছেন বলেও দাবি করেন তেহট্টের তৃণমূল বিধায়ক। পুলিশের তরফেও জানানো হয়, তাপসের গ্রেফতারির বিষয়ে কোনও তথ্য নেই।

আরও পড়ুন: চাকরিপ্রার্থীদের থেকে ১৬ কোটি নেওয়ার অভিযোগ, ধৃত তৃণমূল বিধায়কের আপ্তসহায়ক-সহ ৩

উল্লেখ্য, সরকারি চাকরি এবং লাইসেন্স পাইয়ে দেওয়ার নাম করে অনেকের থেকে কোটি-কোটি টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠেছে তেহট্টের বিধায়কের বিরুদ্ধে। তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠিও দিয়েছেন অনেকে। তারপরই তাপসের আপ্তসহায়ক প্রবীর কয়াল এবং প্রবীরের দুই সঙ্গী শ্যামল কয়াল ও সুনীল মণ্ডলকে গ্রেফতার করেছে রাজ্য পুলিশের দুর্নীতিদমন শাখা। যদিও তৃণমূল বিধায়কের দাবি, দলেরই একাংশ তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে।

 

 

 

বন্ধ করুন