বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > পঞ্চায়েতে বিরোধীরা যেন প্রার্থী দিতে না পারে, প্রকাশ্য হুঁশিয়ারি তৃণমূল বিধায়কের
কল্যাণ ঘোষ। ফাইল ছবি
কল্যাণ ঘোষ। ফাইল ছবি

পঞ্চায়েতে বিরোধীরা যেন প্রার্থী দিতে না পারে, প্রকাশ্য হুঁশিয়ারি তৃণমূল বিধায়কের

  • শনিবার সন্ধ্যায় হাওড়ার জগদীশপুরে এক কর্মিসভায় বক্তব্য রাখছিলেন ডোমজুড়ের বিধায়ক কল্যাণ ঘোষ। সেখানে তাঁকে বলতে শোনা যায়, ‘পঞ্চায়েতে যেন কোথাও বিরোধীরা প্রার্থী দিতে না পারে। প্রার্থী দিলেও যেন একটি ভোটও না পায় সেই ব্যবস্থা করতে হবে আপনাদের।’

এবার প্রকাশ্য মঞ্চ থেকে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূল বিধায়ক কল্যাণ ঘোষের বিরুদ্ধে। শনিবার হাওড়ার জগদীশপুরে এক কর্মিসভায় তিনি বিরোধীদের হুমকি দেন বলে অভিযোগ। কল্যাণবাবুকে বলতে শোনা যায়, এলাকায় বিরোধীরা যাতে প্রার্থী দিতে না পারে। যদিও কল্যাণের মন্তব্যে সাফাই গেয়েছে তৃণমূল।

শনিবার সন্ধ্যায় হাওড়ার জগদীশপুরে এক কর্মিসভায় বক্তব্য রাখছিলেন ডোমজুড়ের বিধায়ক কল্যাণ ঘোষ। সেখানে তাঁকে বলতে শোনা যায়, ‘পঞ্চায়েতে যেন কোথাও বিরোধীরা প্রার্থী দিতে না পারে। প্রার্থী দিলেও যেন একটি ভোটও না পায় সেই ব্যবস্থা করতে হবে আপনাদের।’

তবে এবারই প্রথম নয়, এর আগেও একাধিক তৃণমূল নেতাদের পঞ্চায়েত নির্বাচন বিরোধীশূন্য করার হুঁশিয়ারি দিতে শোনা গিয়েছে। যদিও তাদের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করেনি তৃণমূল নেতৃত্ব।

এদিন কল্যাণবাবুর মন্তব্য নিয়ে তৃণমূলের এক মুখপাত্র বলেন, ‘উনি ভুল কিছু বলেননি। সমস্ত রাজনৈতিক দলই চায় তাদের জনপ্রিয়তা এতটাই বেশি হোক যেন বিরোধীরা প্রার্থী খুঁজে না পায়। পরিষেবা দিয়ে মানুষের মন জয় করার কথা বলেছেন তিনি। তাঁর কথার ভুল ব্যাখ্যা হয়েছে।’

পালটা বিজেপির দাবি, গতবারের মতো এবারও বিরোধীশূন্য পঞ্চায়েতভোট করাতে চাইছে শাসকদল। কারণ অবাধ নির্বাচন হলে যে তাদের হার অনিবার্য তা তারা জানে। তাই একের পর এক নির্বাচনকে প্রহসনে পরিণত করে ক্ষমতায় টিকে রয়েছে তৃণমূল। মানুষ সব দেখছে। সুযোগ পেলেই জবাব দেবে।

বন্ধ করুন