বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > 'রামকৃষ্ণ মিশনের ছাত্র, খুব অসুস্থ, স্যার জামিন দিন’ কেঁদেকেটে কাতর আবেদন পার্থর
প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

'রামকৃষ্ণ মিশনের ছাত্র, খুব অসুস্থ, স্যার জামিন দিন’ কেঁদেকেটে কাতর আবেদন পার্থর

  • এসএসসি দুর্নীতিতে তাঁর যে কোথাও হাত ছিল না একথা বার বার জানানোর চেষ্টা করেন প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, আমি খুব অসুস্থ। ২৮টি ওষুধ খাই।

কিছুদিন আগেও এজলাসে কান্নাকাটি করেছিলেন প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। আর শুক্রবারও আদালতে কেঁদেকেটে নিজের করুণ পরিস্থিতির কথা তিনি বিচারকের সামনে তুলে ধরার মরিয়া চেষ্টা করেন। কার্যত ধরা গলায় তিনি পরিবারের কে কোথায় প্রতিষ্ঠিত, কতটা উচ্চশিক্ষিত সেকথাও তুলে ধরেন। 

সূত্রের খবর, দুপক্ষের সওয়াল জবাবের পরে হাতে একটি খাতা নিয়ে প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় উঠে দাঁড়ান। জেল থেকেই সেই খাতা এনেছেন তিনি। তিনি বলেন, আমার ভূমিকা কী? প্রাথমিক বোর্ড কিংবা এসএসসি স্বয়ংশাসিত দফতর। তারাই প্রার্থীদের বেছে নিত। এরপরই তিনি নিজের ও পরিবারের অন্য়ান্যদের কথা তুলে ধরেন।

পার্থ বলেন, আমি অর্থনীতির স্নাতক। আমি রামকৃষ্ণ মিশনের ছাত্র। এরপর ধরা গলায় তিনি বলেন, স্যার আমি খুব অসুস্থ। ২৮টি ওষুধ খাই। ঘুমের জন্য ওষুধ খাই। কে আমাকে সাহায্য করবে? বিচারের প্রতি আমার আস্থা রয়েছে। আপনি আপনার মতো বিচার করবেন। আপনার কাছে বিচারের আশায় আছি। তাঁর কথায় আমি মন্ত্রী ছিলাম। কিন্তু ওই সংস্থা আমার নিয়ন্ত্রণে ছিল না।

এর সঙ্গেই পার্থ বলেন, ইডি দুমাস ধরে জেলে রেখেছে। এবার সিবিআই হেফাজতে চাইছে। আমি খুব অসুস্থ। কার্যত জামিনের পাওয়ার জন্য এভাবেই মরিয়া হয়ে ওঠেন পার্থ। এদিকে পার্থর আইনজীবীর দাবি, আমার মক্কেল তো হেফাজতেই রয়েছেন। আবার তাঁকে গ্রেফতার কেন?

এদিকে পার্থ এদিন তাঁর আইনজীবীর সঙ্গেও কিছু কথা বলেন। পরে তাঁর আইনজীবী বলেন, জামিন দেওয়া হলেও সিবিআইয়ের যাবতীয় তদন্তে সহযোগিতা করবেন তিনি। তবে সূত্রের খবর, সিবিআই কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্য়ায়ের সঙ্গে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করতে চায়।

 

বন্ধ করুন