বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > পুলিশের চক্রান্তে জামিন পেয়েছে BJP কর্মী খুনে অভিযুক্ত, বিস্ফোরক মন্তব্য আদালতের

পুলিশের চক্রান্তে জামিন পেয়েছে BJP কর্মী খুনে অভিযুক্ত, বিস্ফোরক মন্তব্য আদালতের

কলকাতা হাইকোর্ট। ফাইল ছবি

মূল অভিযুক্তের গ্রেফতারির ৯১ দিনের মাথায় চার্জশিট পেশ করে পুলিশ। আইন অনুসারে ঠিক তার আগের দিন জামিন পেয়ে যায় সে। কী করে ঘটল এই ঘটনা। আদালতে ব্যাখ্যা দিতে হবে পুলিশকে। 

পূর্ব মেদিনীপুরের ময়নায় বিজেপি নেতা বিজয়কৃষ্ণ ভুঁইয়া খুনে মূল অভিযুক্তকে জামিন মুক্ত করতে চক্রান্ত করেছে পুলিশ। সোমবার মামলার শুনানিতে এমনই চাঞ্চল্যকর মন্তব্য করলেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি জয় সেনগুপ্ত। কেন চার্জশিট জমা দিতে পুলিশের ১ দিন বেশি সময় লাগল তা পরের শুনানিতে ব্যাখ্যা করতে হবে বলে নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি।

গত মে মাসে পূর্ব মেদিনীপুরের ময়নায় বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে খুন করা হয় বিজেপি নেতা বিজয়কৃষ্ণ ভুঁইয়াকে। ওই ঘটনায় একাধিক তৃণমূলকর্মীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। কিন্তু গ্রেফতারির ৯০ দিন পরেও চার্জশিট জমা না পড়ায় গত ৪ অগাস্ট জামিন পেয়ে যায় মূল অভিযুক্ত। ঠিক তার পরদিন আদালতে চার্জশিট জমা দেয় ময়না থানার পুলিশ।

বিজয়কৃষ্ণ ভুঁইয়ার খুনে CBI তদন্তের দাবিতে দায়ের মামলাটি সোমবার কলকাতা হাইকোর্টে উঠলে বিচারপতি জয় সেনগুপ্ত বলেন। আমরা কোনও মামলার তদন্তভার CBI বা CIDকে দিতে চাই না। কিন্তু কেন আমাদের এই কাজ করতে হয় তার স্পষ্ট উদাহরণ এই মামলা। পুলিশের পেশ করা রিপোর্টই বলছে গত ৪ অগাস্টই চার্জশিট তৈরি হয়ে গিয়েছিল। তার পরও সেদিন চার্জশিট আদালতে পেশ করা হয়নি। মূল অভিযুক্ত জামিন পাওয়ার পর ৫ অগাস্ট চার্জশিট আদালতে পেশ করা হয়। এতে স্পষ্ট, মূল অভিযুক্তকে জামিন পাইয়ে দিতে চক্রান্তে যুক্ত পুলিশও।

সঙ্গে বিচারপতি সেনগুপ্তের প্রশ্ন, ‘মামলায় SC – ST আইনের ধারা যুক্ত করা হলেও কী ভাবে অভিযুক্তরা জামিন পেল? বিজয়কৃষ্ণবাবুকে বোমা মারতে মারতে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ করা হলেও কেন বিস্ফোরক আইনের ধারা মামলায় যুক্ত করা হল না?’ বিচারপতি জানিয়েছে আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর মামলার পরবর্তী শুনানি। সেদিন এই সমস্ত প্রশ্নের জবাব দিতে হবে পুলিশকে।

 

বন্ধ করুন