বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > ফের বাড়ল করোনা রোগীদের খাবারের বরাদ্দ, মাছ - মাংস - ডিমে হল এলাহি আয়োজন
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

ফের বাড়ল করোনা রোগীদের খাবারের বরাদ্দ, মাছ - মাংস - ডিমে হল এলাহি আয়োজন

  • করোনা থেকে সেরে উঠতে একমাত্র পথ্য শরীরের প্রতিরোধশক্তি। তাকে মজবুত করতে দরকার পুষ্টিকর খাওয়াদাওয়া। সেব্যাপারে যে কোনও আপোস তারা করতে চায় না তা আরও একবার খাবারে বরাদ্দ বাড়িয়ে বুঝিয়ে দিল নবান্ন।

করোনা রোগীদের খাবারের বরাদ্দ ফের একবার বাড়াল পশ্চিমবঙ্গ সরকার। রোগীপিছু দৈনিক বরাদ্দ ১৫০ টাকা থেকে বেড়ে হল ১৭৫ টাকা। গত জুনে করোনা রোগীর খাবারের বরাদ্দ ১৫০ টাকা ঘোষণা করে খাবারের তালিকাও দিয়ে দিয়েছিল স্বাস্থ্য দফতপ। সোমবার নবান্ন থেকে নতুন বিজ্ঞপ্তি জারির পর নতুন খাদ্যতালিকাও প্রকাশ করা হয়েছে।

করোনা পরিস্থিতির শুরু থেকেই হাসপাতালের খাবারের মান নিয়ে প্রশ্ন উঠছিল। কোথাও খাবারের পরিমাণ কম তো কোথাও খাবারের মান নিয়ে ক্ষোভ জানাচ্ছিলেন রোগীরা। এর পরই রোগীপিছু দৈনিক খাবারের বরাদ্দ ঘোষণা করে খাবারের তালিকা ও মান নির্দিষ্ট করে দেয় রাজ্য সরকার। তবে তার পরও রোগীরা পর্যাপ্ত পুষ্টিকর খাবার পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ করছেন অনেকে। 

স্বাস্থ্য দফতরের প্রকাশিত নতুন খাদ্যতালিকা
স্বাস্থ্য দফতরের প্রকাশিত নতুন খাদ্যতালিকা

করোনা থেকে সেরে উঠতে একমাত্র পথ্য শরীরের প্রতিরোধশক্তি। তাকে মজবুত করতে দরকার পুষ্টিকর খাওয়াদাওয়া। সেব্যাপারে যে কোনও আপোস তারা করতে চায় না তা আরও একবার খাবারে বরাদ্দ বাড়িয়ে বুঝিয়ে দিল নবান্ন।

নতুন তালিকা অনুসারে করোনা রোগীকে প্রতিদিন সকালে চা ও ২টি বিস্কুট দিতে হবে। প্রাতরাশে মিলবে ৪টি পাঁউরুটি, ডিম সিদ্ধ, কলা ও ২৫০ মিলিলিচার দুধ। দুপুরে মিলবে ১৫০ গ্রাম ভাত, ৫০ গ্রাম ডাল, ৯০ গ্রাম ওজনের মাছ বা মাংস, ১০০ গ্রাম দই, ১০০ গ্রাম তরকারি। বিকেলে চা ও সঙ্গে ২টি বিস্কুট। রাতে ১০০ গ্রাম ভাত বা রুটি, ৫০ গ্রাম ডাল, ৭৫ গ্রাম তরকারি ১০০ গ্রাম মাছ বা মাংস। নিরামিশাষিদের জন্য দেওয়া হবে সয়াবিন, পনির বা মাসরুম।

 

বন্ধ করুন