CVC-CIC নিয়োগ পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন কংগ্রেসের
CVC-CIC নিয়োগ পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন কংগ্রেসের

CVC-CIC নিয়োগ পদ্ধতি নিয়ে মোদী সরকারকে তোপ কংগ্রেসের

নয়া সেন্ট্রাল ভিজিল্যান্স কমিশনার ও সেন্ট্রাল ইনফরমেশন কমিশনারের নিয়োগ প্রক্রিয়া প্রশ্ন তুলল কংগ্রেস।

নয়া সেন্ট্রাল ভিজিল্যান্স কমিশনার (সিভিসি) ও সেন্ট্রাল ইনফরমেশন কমিশনারের (সিআইসি) নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব হল কংগ্রেস। তাদের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জমানায় স্বচ্ছতা, বিশ্বাসযোগ্যতা ও সাংবিধানিক প্রক্রিয়ার কোনও স্থান নেই। যা গণতন্ত্রের পক্ষে বিপজ্জনক।

আরও পড়ুন : ইস্তফা দিতে চেয়েও দেননি, অর্ডিন্যান্স কাণ্ডে মনমোহনের ক্ষমা চাওয়ার দাবি বিজেপি

প্রধানমন্ত্রী নেতৃত্বাধীন একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি নতুন সিভিসি ও সিআইসির নাম চূড়ান্ত করে। কেন্দ্রের কর্মীবর্গ দফতরের প্রাক্তন সচিব ও বর্তমানে রাষ্ট্রপতির সচিব সঞ্জয় কোঠারিকে নয়া সিভিসি হিসেবে নির্বাচিত করা হয়। অন্যদিকে, সিআইসি হিসেবে বর্তমানে ইনফরমেশন কমিশনার তথা প্রাক্তন তথ্য প্রযুক্তি সচিব বিমল জুলকার নামে সিলমোহর দেয় কমিটি।

আরও পড়ুন : কংগ্রেস ঋণ মকুবের প্রতিশ্রুতি পূরণ না করলে রাস্তায় নামব, হুঁশিয়ারি সিন্ধিয়ার

বৈঠকে নয়া দুই কমিশনারকে নিয়ে আপত্তি না জানালেও নিয়োগ প্রক্রিয়া প্রশ্ন তোলে লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা অধীর চৌধুরী। তিনি জানান, সিআইসি নির্বাচনের আগে কোনও অনুসন্ধান কমিটি গঠন করা হয়নি। এমনকী বৈঠকের আগে তাঁকে কোনও নথি দেওয়া হয়নি। যা তিনি ভালো করে পড়তে পারতেন। সিভিসির ক্ষেত্রে প্যানেলে অর্থসচিব রাজীব কুমারের অন্তর্ভুক্তি নিয়ে আপত্তি জানান বহরমপুরের সাংসদ। তাঁর বক্তব্য, রাজীব তো অনুসন্ধান কমিটিতে ছিলেন। পাশাপাশি তিনি নিজেও একজন আবেদনকারী।

এদিন কংগ্রেসের আক্রমণের মাত্রা ছিল আরও বেশি। কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সুরজেওয়ালা বলেন, 'চিচিং ফাঁকের মতো সিভিসি ও সিআইসিদের নিয়োগ করা হয়েছে। পকেট থেকে নাম বের করে নিয়োগ করা হচ্ছে। ব্যস। মোদীজির নতুন ভারতে স্বচ্ছতা, বিশ্বাসযোগ্যতা, সাংবিধানিক প্রক্রিয়া ও আইন মেনে চলার কোনও স্থান নেই। উচ্চপর্যায়ের বিচারবিভাগীয় প্রতিষ্ঠানে স্বেচ্ছাচারিতা গণতন্ত্রের জন্য মারাত্মক।'


বন্ধ করুন