বাড়ি > বায়োস্কোপ > সুশান্তের মৃত্যু: করণ জোহরের ম্যানেজারকে সমন পুলিশের, জেরার মুখে পরিচালকও!
অবশেষে জেরা মুখে পড়তে চলেছে করণ জোহর? 
অবশেষে জেরা মুখে পড়তে চলেছে করণ জোহর? 

সুশান্তের মৃত্যু: করণ জোহরের ম্যানেজারকে সমন পুলিশের, জেরার মুখে পরিচালকও!

  • সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তে পুলিশি জেরার মুখে পড়তে চলেছেন করণ জোহরের ম্যানেজার। প্রয়োজনে ডাকা হবে করণ জোহরকেও, জানালেন মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তে অবশেষে মুম্বই পুলিশের জেরার মুখে পড়তে চলেছেন ধর্মা প্রোডাকশনের কর্ণধার তথা পরিচালক করণ জোহর। রবিবার মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ জানিয়েছেন সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত মামলায় ইতিমধ্যেই করণ জোহরের ম্যানেজারকে সমন পাঠিয়েছে মুম্বই পুলিশ। পরবর্তীতে জেরা করা হতে পারে করণ জোহরকেও। এই মামলায় পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়তে চলেছেন পরিচালক মহেশ ভাটও। সংবাদ সংস্থা এএনআই জানিয়েছে আগামী দু-তিন দিনের মধ্যেই এই মামলায় পুলিশি জেরার মুখে পড়তে পারেন মহেশ ভাট, জানিয়েছেন অনিল দেশমুখ। সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তে প্রায় চল্লিশ জনকে ইতিমধ্যেই জিজ্ঞাসাবাদ করেছে মুম্বই পুলিশ।

সমন পাঠানো হয়েছে কঙ্গনা রানাওয়াতকেও। শীঘ্রই এই মামলায় বয়ান রেকর্ড করবেন কঙ্গনা। শুক্রবার এই মামলায় পুলিশি জেরার মুখে পড়েন পরিচালক রোমি জাফরি। সুশান্ত সিং রাজপুত ও রিয়া চক্রবর্তীকে নিয়ে একটি রম-কম ছবির পরিকল্পনা ছিল তাঁর। সবকিছু ঠিকঠাকও হয়ে গিয়েছিল। তবে করোনার জেরে কাজ আটকে যায়। 

সুশান্তের মৃত্যুর পরেই মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর তরফে জানানো হয়েছিল, সুশান্তের আত্মহত্যার কারণ হিসাবে পেশাদার জগতের রেষারেষির বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে খতিয়ে দেখছে মুম্বই পুলিশ। বলিউডের একাধিক নামী ব্যক্তিত্বকে ইতিমধ্যেই এই মামলায় জিজ্ঞাসাবাদ করেছে মুম্বই পুলিশ। যশ রাজ ফিল্মসের কর্ণধার আদিত্য চোপড়াকে প্রায় ৪ ঘন্টা ধরে জেরা করে পুলিশ। কেন সুশান্তের সঙ্গে চুক্তি বাতিল হয়েছিল যশ রাজের? কেন তৈরি হল না পানি? জানতে চাওয়া হয়। এছাড়াও সঞ্জয় লীলা বনশালিকেও প্রশ্ন করে মুম্বই পুলিশ। সূত্রের খবর, বনশালি ও আদিত্য চোপড়া পুলিশকে পরস্পর বিরোধী বয়ান দিয়েছেন। বনশালির দাবি যশ রাজের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ থাকার জেরেই সুশান্ত তাঁর অফার গ্রহণ করতে পারেননি। অন্যদিকে সেই দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন আদিত্য চোপড়া। 

উল্লেখ্য জীবদ্দশায় সুশান্তের শেষ ছবি ড্রাইভের প্রযোজক ছিলেন করণ জোহর। ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্সে সরাসরি এই ছবি মুক্তি দেওয়ার করণের সিদ্ধান্তে সায় ছিল না সুশান্তের। সেই নিয়ে দুজনের মনোমালিন্যের খবরও গত বছর সামনে এসেছিল। অন্যদিকে কঙ্গনা রানাওয়াত বারংবার দাবি করেছেন, 'মুভি মাফিয়া'রা চক্রান্ত করে সুশান্তকে ফ্লপস্টার-এর তকমা দিয়ে তাঁর কেরিয়ার বরবাদ করবার চেষ্টা করেছে। কেন ড্রাইভ মুক্তি পায়নি হলে? সেই নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন কঙ্গনা। 

অন্যদিকে সুশান্তের মৃত্যুর পর ভাট ক্যাম্পের তরফে বেশ কিছু চাঞ্চল্যকর মন্তব্য মিডিয়ায় উঠে এসেছে। মহেশ ভাটের এক সহকর্মী দাবি করেছেন প্রয়াত অভিনেতার বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী, মহেশ ভাটের কাছ থেকে সুশান্তের বিষয়ে পরামর্শ নিতো। এছাড়াও মহেশ ভাট ও রিয়া চক্রবর্তীর সম্পর্ক নিয়েও সোশ্যাল মিডিয়ায় বিস্তর কাটাছেঁড়া চলেছে। তাই শুরু থেকেই সুশান্ত ভক্তদের রোষের মুখে মহেশ ভাট ও করণ জোহর। কেন তাঁদের শমন পাঠানো হচ্ছে না সেই নিয়েও রিপাবলিক টিভিকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে প্রশ্ন তোলেন কঙ্গনা রানাওয়াত। আদিত্য চোপড়া, রাজীব মসান্দের পর এবার খুব সম্ভবত পুলিশের জেরার মুখে করণ জোহর, মহেশ ভাটও।

বন্ধ করুন