বাড়ি > বায়োস্কোপ > জুনে দেশের করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেই সিনেমা হল খোলবার সিদ্ধান্ত:জাভড়েকর
থাইল্যান্ডের এক সিনেমা হলে সানিটাইজ করবার প্রক্রিয়া চলছে  (REUTERS)
থাইল্যান্ডের এক সিনেমা হলে সানিটাইজ করবার প্রক্রিয়া চলছে  (REUTERS)

জুনে দেশের করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেই সিনেমা হল খোলবার সিদ্ধান্ত:জাভড়েকর

  • এখনই খুলছে না সিনেমা হল। এ মাসেও তালাবন্ধই থাকবে মুভি থিয়েটার। প্র

জুন মাসে দেশের করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেই সিনেমা হল খোলবার ব্যাপারে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবে সরকার। মঙ্গলবার এমনটাই জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় তথ্য-সম্প্রচার মন্ত্রী প্রকাশ জাভেরকর।তাই অন্তত পক্ষে আগামী ২৭দিন তালাবন্ধই থাকছে দেশের সমস্ত মাল্টিপ্লেক্স ও সিঙ্গল স্ক্রিন থিয়েটার। মার্চ মাসে দেশে লকডাউন শুরুর আগেই থিয়েটার বন্ধ রাখার নির্দেশ জারি করেছিলেন সরকার। 

২-রা জুন তথ্য-সম্প্রচার মন্ত্রকের তরফে জারি করা বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, মঙ্গলবার ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রোডিউসার্স গিল্ড, সিনেমা এক্সিবিটার এবং চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রির প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রকাশ জাভেরকর। কোভিড-১৯-এর জেরে বিনোদন ইন্ডাস্ট্রির নানান সমস্যা নিয়ে এদিন সুদীর্ঘ আলোচনা হয়।  প্রোডাকশন বিষয়ক কাজ শুরুর ব্যাপারে ইতিমধ্যেই একটি সার্বিক নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে সরকারের তরফে।

শুনসান মাল্টিপ্লেক্সের প্রতিচ্ছবি 
শুনসান মাল্টিপ্লেক্সের প্রতিচ্ছবি 

এই বৈঠকে দেশের আর্থিক উন্নয়নে বিনোদন জগতের যোগদানের প্রশংসা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। জাভেরকর জানান, দেশে প্রায় ৯,৫০০ সিনেমাহল রয়েছে যা প্রতিদিন শুধুমাত্র সিনেমার টিকিট বিক্রি করে ৩০ কোটি টাকার আয় করে। তবে করোনা সংকটের জেরে পুরোপুরি থমকে গিয়েছে এই ইন্ডাস্ট্রি।

বিনোদন ইন্ডাস্ট্রিকে ঘুরে দাঁড়াতে বেশ কিছু ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়ার আবেদন জানানো হয়েছিল সংশ্লিষ্ট নানান সংগঠনের তরফে,সেগুলো নিয়েও আলোচনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন জাভেদরকর। সংগঠনের তরফে বেতনে ভর্তুকি, আগামী তিন বছর সুদ মুক্ত লোন, নানান করে অব্যাহতি, ইন্ডাস্ট্রিয়াল রেটে বিদ্যুত্ সরবরাহের ব্যবস্থা করার মতো আবেদন রাখা হয়েছে কেন্দ্রীয় তথ্য-সম্প্রচার মন্ত্রীর কাছে। 

বন্ধ করুন