বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Raj Kundra: পর্নকাণ্ডে প্রায় ২ মাস পর জামিন মঞ্জুর শিল্পার স্বামী রাজ কুন্দ্রার
শিল্পা শেট্টি, রাজ কুন্দ্রা। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

Raj Kundra: পর্নকাণ্ডে প্রায় ২ মাস পর জামিন মঞ্জুর শিল্পার স্বামী রাজ কুন্দ্রার

জামিন পেলেন রাজ ও তাঁর কর্মী রেয়ান থ্রোপ। 

জুলাই মাসে নীল ছবি তৈরির অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছিল শিল্পা শেট্টির স্বামী রাজ কুন্দ্রা। তারপর থেকে বারবার জামিনের আবেদন করলেও তা না-মঞ্জুর হয়েছে। অবশেষে সোমবার জামিন পেলেন রাজ ও রাজের আইটি কর্মী রেয়ান থ্রোপ। যা নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সকলের মধ্যে। 

মুম্বইয়ের এক দায়রা আদালতে রাজ কুন্দ্রা ও রেয়ান থ্রোপের জামিন মঞ্জুর করা হয় সোমবার। জামিনের জন্য বন্ডে রাখতে হয়েছে ৫০ হাজার টাকা। স্বভাবতই কিছুটা হলেও স্বস্তিতে রাজ ও শিল্পার পরিবার। 

জুলাই মাসে পর্ন ছবি তৈরি ও তা প্রচারের অভিযোগে রাতারাতি গ্রেফতার করা হয় রাজ কুন্দ্রাকে। গত সপ্তাহেই পুলিশের অপরাধ দমন শাখা একটি ১৫০০ পাতার সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিট পেশ করে। তারপরেই রাজের আইনজীবি প্রশান্ত পাটিল ফের তাঁর মক্কেলের জামিনের আবেদন করেন। হটশট অ্যাপের ভিডিয়ো শ্যুটে রাজ প্রত্যক্ষ ভাবে জড়িত, এমন কোনও প্রমাণ নাকি ওই চার্জশিটে নেই। এফআইআরে তাঁর নাম না থাকা সত্ত্বেও তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানানো হয়। রাজের আইনজীবীর দাবি ছিল ফাঁসানো হয়েছে রাজকে। 

অগস্টে মুম্বই পুলিশের তরফে আদালতে জানানো হয়েছিল, একবার জামিন পেলেই বিদেশে পালিয়ে যাবেন রাজ। সঙ্গে তদন্তকারীদের তরফে দাবি করা হয়, এখন যদি নীল ছবি বানানোর অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া রাজ কুন্দ্রাকে জামিন দেওয়া হয় তাহলে সমাজের কাছেও ভুল বার্তা পৌঁছবে। তবে রাজ সোমবার আদালতে দাবি জানান তাঁর ল্যাপটপ থেকে শুরু করে ফোন, হার্ড ড্রাইভ, অফিসের নানা নথি সবই বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। তাই প্রমাণ নষ্ট করার কোনও সুযোগ তাঁর কাছে নই।

কুন্দ্রার বিরুদ্ধে অ্যাপেল ও গুগলের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার প্রমাণ মিলেছে হটশটস অ্যাপ সেখানে আপলোড করার পর। তদন্তকারীদের দাবি এই অ্যাপ মূলত তৈরি করা হয়েছিল পর্ন ছবি তৈরি ও তা ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য। এদিন কোর্টের সামনে পেশ করা নথিতে বলা হয়েছে রাজ ১০০টির ওপর নীল ছবি তৈরি করেছেন এবং তা দেখার জন্য সাবসক্রাইবারদের থেকে মোটা টাকা নিয়েছেন। যদিও রাজের দাবি কোনও মিটিং বা শ্যুটে তিনি ছিলেন তার প্রমাণ পুলিশের কাছে নেই। না উল্লেখ আছে চার্জশিটে। রাজের আরও দাবি এই অপরাধে ৭ বছরের কারাদণ্ড হয়। এর আগেও এক অভিযুক্তকে জামিন দেওয়া হয়েছে। সুতরাং, তাঁকেও দেওয়া উচিত আদালতের।

দুই পক্ষের সম্পূর্ণ বয়ান শুনে ৫০ হাজার টাকার বন্ডে জামিন পান রাজ কুন্দ্রা ওরেয়ান থ্রোপ।