বাড়ি > বায়োস্কোপ > প্রথমবার পর্দায় জুটি বাঁধবার কথা পাকা ছিল সুশান্ত-রিয়ার:পরিচালক রুমি জাফরি
একসঙ্গে ছবি করবার কথা ছিল সুশান্ত-রিয়ার!
একসঙ্গে ছবি করবার কথা ছিল সুশান্ত-রিয়ার!

প্রথমবার পর্দায় জুটি বাঁধবার কথা পাকা ছিল সুশান্ত-রিয়ার:পরিচালক রুমি জাফরি

  • রুমি জাফরির পরবর্তী ছবিতে একসঙ্গে কাজ করার কথা ছিল সুশান্ত-রিয়ার। মে মাসেই শ্যুটিং শুরুর কথা ছিল,তবে লকডাউনে পিছিয়ে যায় কাজ। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের সঙ্গে নাকি প্রেম সম্পর্কে আবদ্ধ ছিলেন অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী। সেকথা দুজনের কেউই প্রকাশ্যে স্বীকার করেনি,কিন্তু রুপোলি পর্দায় শীঘ্রই তাঁদের জুটি হিসাবে দেখতে পেত দর্শকরা। সব কথা পাকা হয়ে গিয়েছিল,পরিচালক রুমি জাভফির পরের ছবিতে একসঙ্গে কাজ করবার কথা ছিল সুশান্ত-রিয়ার। তবে শুরুর আগেই সব শেষ…রবিবার কোনও এক অজানার উদ্দেশ্যে পারি দিলেন সুশান্ত।

পরিচালক রুমি জাফরি মুম্বই মিররকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে জানিয়েছেন,তাঁর পরের ছবিটি একটি রম-কম (রোম্যান্টিক-কমেডি) যেখানে প্রথমবার একসঙ্গে জুটি বাঁধবার কথা ছিল সুশান্ত-রিয়ার। মে মাসেই কাজ শুরু হওয়ার কথা ছিল কিন্তু লকডাউনে কাজ পিছিয়ে যায়।

তিনি বলেন, আমি সুশান্তের ডান্সিং স্কিলটা তুলে ধরতে চেয়েছিলাম। ও এত ভালো একজান ডান্সার,এই ছবিটা একদম অন্যভাবে ওকে তুলে ধরত। সুশান্তের প্রিয় অভিনেতা শাহরুখ,অন্যদিকে গোবিন্দার নাচ পছন্দ করত-সেই কারণেই আমি পরিকল্পনা করেছিলাম ছবির মহরতে একটা ডান্স নাম্বার যেখানে গোবিন্দা স্টাইলে ওকে নাচতে দেখা যেত'।

তিনি জানান এই ছবির প্রথম শেডিউল নির্দিষ্ট ছিল মুম্বইয়ে এবং ছবির বাকি কাজ হওয়ার কথা ছিল লন্ডন এবং পঞ্জাবে।'আগামী ছয়মাসের মধ্যেই শ্যুটিংয়ের কাজ সেরে ফেলার প্ল্যান ছিল, এই বছর নভেম্বরের মধ্যে কাজ সেরে ফেলব ভেবেই রেখেছিলাম',বললেন রুমি।

লকডাউন পরবর্তী সময়ে কাজে ফিরতে ভীষণ উত্সাহী ছিলেন সুশান্ত,জানান পরিচালক। তিনি বলেন, ইন্ডাস্ট্রিতে ওর খুব বেশি বন্ধু ছিল না কিন্তু কাজ নিয়ে ও ভীষণ উত্সাহী। সবসময় স্ক্রিপ্ট পড়ত,এমনকি লকডাউনের সময়ও…সবাই একসঙ্গে বসে ছবিটা নিয়ে আলোচনা করায় ও খুব আগ্রহী ছিল। ছবির কাজটা শুরু হওয়ার জন্য ও ভীষণ অপেক্ষা করে ছিল..লকডাউন যতবার বেড়েছে ও খুব আপসেট হয়েছে কারণ ছেলেটা কাজে ফিরতে চাইছিল..অনুশীলন করতে চাইছিল'।

সুশান্তের সঙ্গে নিজের শেষ কবে যোগযোগ হয় তাঁর? পরিচালক জানালেন, আমি চার-পাঁচ দিন আগেই ওকে মেসেজ করেছিলাম  যখন শুনলাম ওর প্রাক্তন ম্যানেজার দিশার মৃত্যু হয়েছে। আমি বলেছিলাম তুই নিজের খেয়াল রাখ..জবাবে ও আমাকে চারটে হার্টের ইমোজি পাঠিয়ে লিখেছিল লাভ ইউ স্যার..শীঘ্রই দেখা হবে'। 

সোমবার মুম্বইয়ের ভিলে পার্লে শ্মশানে সুশান্তের শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়। এদিন অভিনেতার অন্তিম দর্শনের জন্য কুপার হাসপাতালে পৌঁছেছিলেন রিয়া চক্রবর্তী। সূত্রের খবর হাসপাতালের মর্গে বন্ধুকে দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন রিয়া। যদিও সুশান্তের মৃত্যুর পর সোশ্যাল মিডিয়ার রোষের মুখে পড়তে হয়েছে তাঁর বান্ধবীকে। 

প্রসঙ্গত বক্স অফিসে সুশান্তের শেষ ছবি ছিল ছিঁছোড়ে, যদিও তাঁর শেষ রিলিজ ড্রাইভ যা মুক্তি পায় ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্সে। শেষবার সুশান্তকে দেখা যাবে দিল বেচারা ছবিতে। মে মাসে মুক্তির কথা ছিল এই ছবির,তবে আপাতত করোনা সংকটে ছবির মুক্তি অনির্দিষ্টকালের জন্য পিছিয়ে গিয়েছে।যদিও শোনা যাচ্ছে ডিজিট্যাল প্ল্যাটফর্ম ডিজনি প্লাস হটস্টারে মুক্তি পাবে এই ছবি,কিন্তু এখনও কোনও আনুষ্ঠানিক ঘোষণা সারেনি প্রযোজক সংস্থা।

বন্ধ করুন