বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Summer Heart Care: গরমে বাড়তে পারে হৃদরোগের আশঙ্কা, হার্টের সমস্যা থাকলে কী কী করবেন এই সময়ে
গরমে হার্টের যত্ন নেবেন কীভাবে?
গরমে হার্টের যত্ন নেবেন কীভাবে?

Summer Heart Care: গরমে বাড়তে পারে হৃদরোগের আশঙ্কা, হার্টের সমস্যা থাকলে কী কী করবেন এই সময়ে

  • হৃদরোগীদের জন্য গরমকাল মোটেই খুব ভালো সময় নয়। নানা ধরনের বাড়তি সমস্যা দেখা দিতে পারে এই সময়ে। কীভাবে নিজেদের যত্ন নেবেন তাঁরা?

গরমে শরীরের জলের পরিমাণ কমে যায়। ফলে রক্ত চলাচলে সমস্যা হয়। আর এর প্রভাব গিয়ে পড়ে হৃদযন্ত্রে।

গ্রীষ্মকালে হার্টের যত্ন নেওয়া খুবই দরকারি। বিশেষ করে যাঁদের হৃদরোগের আশঙ্কা আছে, তাঁদের তো এই সময়ে আলাদা করে নিজেদের স্বাস্থ্যের দিকে নজর রাখা উচিত। তেমনই বলছেন চিকিৎসকরা।

গ্রীষ্মে কীভাবে হার্টের খেয়াল রাখবেন? সম্প্রতি হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকার হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক প্রভাকর সি কোরেগোল এই বিষয়ে কয়েকটি পরামর্শ দিয়েছন। দেখে নেওয়া যাক, সেগুলি কী কী।

কীভাবে গরমকালে হৃদযন্ত্রের যত্ন নেবেন:

  • খোলা জায়গায় বেশি পরিশ্রমের কাজ বা শরীরচর্চা করবেন না। এমনকী বারান্দাতেও নয়। তাতে শরীরে জলের আরও বেশি টান পড়তে পারে।
  • এই সময়ে কফি জাতীয় পানীয় একদম কম খান। এটি শরীরে জলের মাত্রা কমিয়ে দেয়। কফি খেলেও সারা দিন ধরে প্রচুর জল খান।
  • মদ্যপান একেবারে বন্ধ করতে হবে। গরমে মদ্যপান হৃদরোগের আশঙ্কা বহু গুণ বাড়িয়ে দেয়।
  • এই সময়ে হালকা রঙের সুতির পোশাক পরুন। এমন পোশাক পরুন যার মধ্যে দিয়ে বাতাস চলাচল করবে। তাতে হৃদরোগের আশঙ্কা কমবে।
  • গরমে পাখার আশপাশে বসুন। পাখা ছাড়া থাকবেন না। যাঁদের পক্ষে এসিতে থাকা সম্ভব, তাঁরা সেই ব্যবস্থা নিন। তবে বারবার আলাদা আলাদা তাপমাত্রায় যাওয়া আসা করবেন না। তাতে ঠান্ডা লাগতে পারে।
  • নিয়মিত রক্তচাপ পরীক্ষা করুন। এই সময়ে ব্লাড প্রেশার বেড়ে যেতে পারে। তাহলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।
  • রক্তে সোডিয়াম এবং পটাসিয়ামের মাত্রা ঠিক আছে কি না, সেটিও দেখে নেওয়া দরকার। ঘামের সঙ্গে শরীর থেকে প্রচুর নুন বেরিয়ে যায়। তাই এটি দেখে নেওয়াই ভালো।
  • কোনও কোনও ওষুধের মাত্রা এই সময়ে কমাতে হয়। সেটিও চিকিৎসকের থেকে ভালো করে জেনে নিন।
  • যাঁদের এর আগে হৃদরোগ জাতীয় সমস্যা হয়েছে, তাঁরা অবশ্যই নুন খাওয়ার পরিমাণ কমান। জল খাওয়া বাড়ান। তবে দুটোই করুন চিকিৎসকের পরামর্শে।

গরমকালে স্বাস্থ্যের যত্ন নেওয়াটা খুবই দরকারি। বিশেষ করে যাঁদের হৃদরোগের ইতিহাস রয়েছে। চিকিৎসকের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখাটাও এই সময়ে খুবই প্রয়োজনীয়।

বন্ধ করুন