বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > রাতে রুটি আর ভাত মিশিয়ে খেতেই অভ্যস্ত কি? এর 'সাইড এফেক্ট' কি জানেন! সতর্ক হোন
ভাত রুটি মিশিয়ে খাওয়ার অভ্যাস থাকলে কী হতে পারে?

রাতে রুটি আর ভাত মিশিয়ে খেতেই অভ্যস্ত কি? এর 'সাইড এফেক্ট' কি জানেন! সতর্ক হোন

  • বিশেষজ্ঞদের দাবি, রাতের ঘুম যাতে ভাল হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। ফলে এই সময়টায় যদি কারোর ভাত খেয়ে ঘুম ভাল আসে, তাহলে সেটাই খাওয়া উচিত। আর যদি কারোর রুটি খেয়ে ঘুম ভাল আসে বা তাতেই অভ্যস্ত তাহলে সেটা খেতে পারেন।

রাতে অল্প ভাত আর রুটি একসঙ্গে নিয়ে খেতে অভ্যস্ত অনেকেই। শুধু তাই নয়, ট্রেন সফর থেকে শুরু করে বহু রেস্তোরাঁর খাবারেও এমন ভাত ও রুটি মিলিয়ে মিশিয়ে খাবার পরিবেশন করা হয়। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পাতে একই সঙ্গে ভাত আর রুটি মিলিয়ে মিশিয়ে খেলে তার বিভিন্ন কুপ্রভাব পড়তে পারে শরীরে।

কেন একসঙ্গে রুটি আর ভাত খাওয়া উচিত নয়?

রুটি আর ভাত একসঙ্গে খেলে ক্যালোরি ইনটেক বেড়ে যেতে থাকে। একটি রুটিতে ৭০ থেকে ৮০ ক্যালোরি থাকে, আর এক থালা ভাতে থাকে ১৩৬ ক্যালোরি। ফলে বুঝেই যাচ্ছেন যে একসঙ্গে এই দুই ধরনের খাবার খেলে কতটা ক্যালোরি আপনার শরীরে যেতে পারে! আর যদি আপনি ওজন কমাতে চান, তাহলে অবশ্যই রুটি আর ভাত একসঙ্গে খাওয়ার দিকে ঝুঁকবেন না! বিশেষজ্ঞরা বলছেন এতে ভাল ঘুম হয় না। উরি মা গো! এ কেমন মাখো-মাখো প্রেম? গাড়ির সঙ্গে যৌনমিলনের এ কী কথা বললেন ব্যক্তি

রুটি নাকি ভাত?

বিশেষজ্ঞদের দাবি, রাতের ঘুম যাতে ভাল হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। ফলে এই সময়টায় যদি কারোর ভাত খেয়ে ঘুম ভাল আসে, তাহলে সেটাই খাওয়া উচিত। আর যদি কারোর রুটি খেয়ে ঘুম ভাল আসে বা তাতেই অভ্যস্ত তাহলে সেটা খেতে পারেন। তবে ঘুম যাতে নির্বিঘ্নে হয়, খাবারের থেকে বুক জ্বালা বা গ্যাস না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

ভাত ও রুটির খারাপ দিক

বলা হচ্ছে অ্যাস্থমা রোগীদের রাতে রুটি খাওয়াই ভাল। এতে ঠাণ্ডা লাগার ভয় থাকে না। ফলে শ্বাস প্রশ্বাস নিতে সুবিধা হয়। অন্যদিকে যদি রুটি খেয়ে গ্যাস অম্বলের সমস্যা কারোর থেকে থাকে, তাহলে তা স্বাস্থ্যের পক্ষে খুবই খারাপ প্রভাব দেয়। সেই বুঝে নিয়ে রাতে রুটিকে বেছে নেওয়া উচিত।

বন্ধ করুন