বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Sperm Donor Fathered 550 Children: সন্তানের সংখ্যা ৫৫০! অজান্তে ভাই-বোনের হয়ে যেতে পারে বিয়ে, তাই শাস্তির মুখে বাবা

Sperm Donor Fathered 550 Children: সন্তানের সংখ্যা ৫৫০! অজান্তে ভাই-বোনের হয়ে যেতে পারে বিয়ে, তাই শাস্তির মুখে বাবা

৫৫০ সন্তানের পিতা জোনাথন জেকব মেইজার

Sperm Donor Fathered 550 Children: নিজের নাম বদলে বদলে সারা বিশ্বে শুক্রাণু দিয়েছেন এই ব্যক্তি। তাতেই বিরাট জটিলতা দেখা দিয়েছে। 

সারা পৃথিবী জুড়ে দেদার বিলিয়েছেন শুক্রাণু। তাতেই একের পর এক সন্তানের জন্ম। পুরোটাই নাম গোপন করে বা নকল নাম নিয়ে। সব মিলিয়ে সন্তানের সংখ্যা অন্তত ৫৫০। আর তাতেই শাস্তির মধ্যে ৪১ বছরের এক ব্যক্তি। ঘটনাটি কী ঘটেছে?

৪১ বছরের জোনাথন জেকব মেইয়ার পেশায় সঙ্গীতশিল্পী। কিন্তু নেশা বাবা হওয়ার। নেশার কারণে সব মিলিয়ে ৫৫০ বা তার বেশি সন্তানের বাবা হয়েছেন তিনি। নেদারল্যান্ডসের দ্য হেগ শহরের বাসিন্দা জোনাথনের বিরুদ্ধে তাই দায়ের হয়েছে মামলা। হতে পারে কারাবাস। কিন্তু ঠিক কী অপরাধ করেছেন তিনি। 

আইনি জটিলতা:

প্রথমত, নেদারল্যান্ডসের আইন বলছে, কোনও ব্যক্তি ১২ জনের বেশি মহিলাকে শুক্রাণু দান করতে পারবেন না। আর কোনও ভাবেই তাঁর যেন ২৫টির বেশি সন্তান না হয়। জোনাথন অবশ্য তার ধারপাশ দিয়ে যাননি। তিনি নিজের নাম বদলে বদলে পৌঁছে গিয়েছেন পৃথিবীর নানা প্রান্তের শুক্রাণু ব্যাঙ্কে। সেখানে শুক্রাণু জান করেছেন। এবং একের পর এক সন্তান হয়ে চলেছে তাঁর। 

বর্তমানে জোনাথন কেনিয়ায় বাস করেন। সেই দেশে এই সংক্রান্ত বিষয়ে নিয়ে কোনও আইনি জটিলতায় তিনি জড়িয়েছেন কি না, তা এখনও জানা যায়নি। তবে দেশে ফিরলে যে তাঁকে বড়সড় আইনি ঝামেলায় পড়তে হবে, তা পরিষ্কার। 

আছে পরিবেশগত জটিলতাও:

এত সন্তানের বাবা হয়েছেন জোনাথন, যে পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট হতে পারে বলেও মনে করছেন অনেকে। যেহেতু তাঁর সন্তানের সংখ্যা ৫৫০, তাই বয়স বাড়লে এই শিশুদের মধ্যে একে অপরের সঙ্গে প্রেমের বা শারীরিক সম্পর্ক হওয়ার আশঙ্কাও রয়েছে। এমনকী তাঁদের মধ্যে কারও বিয়েও হতে পারে। সেক্ষেত্রে ভাই-বোনের সম্পর্ক থেকে জন্ম হওয়া সন্তানের জিনগত সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই বিষয়টি নিয়ে উদ্বিগ্ন বিজ্ঞানীরা। 

শিশুর মানসিক ক্ষতি:

বিশেষজ্ঞরা এর পশাপাশি বলছেন, কোনও শিশু যদি জানতে পারে, তার এই সংখ্যায় ভাই-বোন রয়েছে, তাহলে তার মানসিক স্বাস্থ্যের ক্ষতি হতে বাধ্য। সেই হিসাবে বহু শিশুর ক্ষতিও করেছেন জোনাথন। আর তাই তাঁকে আগামী দিনে বড়সড় জটিলতায় পড়তে হবে বলেই মনে করছেন অনেকে। জোনাথন এ সবের উত্তরে কী বলেন, তাশোনার অপেক্ষায় সকলে। 

(এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup)

বন্ধ করুন