বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'সংবিধান মেনেই কাজ, তালিবানি সরকার অবৈধ', চ্যালেঞ্জ আফগান 'বিদেশ মন্ত্রকে'র
আফগান দূতাবাসগুলিতে উড়বে জাতীয় পতাকা (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (PTI)
আফগান দূতাবাসগুলিতে উড়বে জাতীয় পতাকা (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (PTI)

'সংবিধান মেনেই কাজ, তালিবানি সরকার অবৈধ', চ্যালেঞ্জ আফগান 'বিদেশ মন্ত্রকে'র

  • বিদেশ মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়, প্রজাতান্ত্রিক আফগানিস্তানের সংবিধান মেনেই কাজ হবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে থাকা আফগান দূতাবাসে।

'অবৈধ', তালিবানি সরকারকে চ্যালেঞ্জ আশরাফ ঘানি প্রশাসনের 'বিদেশ মন্ত্রকে'র। পাশাপাশি বিদেশ মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়, প্রজাতান্ত্রিক আফগানিস্তানের সংবিধান মেনেই কাজ হবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে থাকা আফগান দূতাবাসে। প্রকাশিত বিবৃতিতে বিদেশ মন্ত্রকের তরফে বলা হয়, 'তথাকথিত এই তালিবানি সরকার আফগানিস্তানের রাজনৈতিক, জাতিগত এবং সামাজিক বৈচিত্র্যকে দুর্বল করবে। এর জেরে দেশে সংঘাত বাড়বে এবং দীর্ঘস্থায়ী শান্তি ক্ষুণ্ণ হবে।'

আফগান বিদেশ মন্ত্রকের দাবি, তালিবানের এই সরকার আফগানিস্তানের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের অমতে গঠিত। এই সরকার আন্তর্জাতিক চুক্তি, রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের এবং রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার কমিশনের রেজোলিউশন লঙ্ঘন করেছে। তালিবান আফগান মহিলাদের গুরুত্ব লঘু করেছে। বিশ্ব জুড়ে অবস্থিত আফগান দূতাবাসে এখনও আফগানিস্তানের পতাকাই উড়ছে। এই দূতাবাসগুলি জাতীয়স্বার্থ রক্ষা করে কাজ চালিয়ে যাবে।

উল্লেখ্য, দীর্ঘ টালবাহানার পর আফগানিস্তানে শেষ পর্যন্ত নয়া সরকার গঠন করেছে তালিবান। ঘোষিত মন্ত্রিসভার সদস্যদের নামের তালিকায় বহু আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী রয়েছে। তালিবানের পক্ষ থেকে যে তালিকা প্রকাশ্যে আনা হয়েছে, সেই অনুযায়ী সরকারের শীর্ষে থাকছেন মোল্লা মহম্মদ হাসান আখুন্দ। নয়া জমানায় তাঁকেই আফগানিস্তানের 'আমিরে'র পদে বসাচ্ছে তালিবান। তাঁর দুই ডেপুটি হচ্ছেন মোল্লা আবদুল ঘানি বরাদর এবং মৌলবী আবদুল সালাম হানাফি। ৩৩ জনের যে মন্ত্রিতালিকা প্রকাশ্যে এসেছে, সেখানে কোনও মহিলার নাম নেই।

নয়া মন্ত্রিসভায় গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে মৌলবী মহম্মদ ইয়াকুবকে। তিনি তালিব সরকারের নয়া প্রতিরক্ষা মন্ত্রী। শিক্ষামন্ত্রী হয়েছেন শেখ মৌলবী নূরউল্লা মুনির। এছাড়া, তালিবানের মন্ত্রিতালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন জঙ্গিতালিকায় থাকা একাধিক ব্যক্তি। সরকারের প্রধান মোল্লা মহম্মদ হাসান আখুন্দেরই নাম রয়েছে রাষ্ট্রসংঘের জঙ্গিতালিকায়। এছাড়া, দেশের অভ্যন্তরীণ মন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে আলহজ মোল্লা সিরাজউদ্দিন হাক্কানিকে। তিনি হাক্কানি নেটওয়ার্কের মাথা। অভিযোগ, তাঁর সঙ্গে নাকি আল-কায়দারও ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রয়েছে। এমনকী, মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই-এর 'মোস্ট ওয়ান্টেড' তালিকাতেও নাম রয়েছে আলহজ মোল্লা সিরাজউদ্দিন হাক্কানির।

বন্ধ করুন