প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

লকডাউনের সময় জন্ম, যমজ বাচ্চার নাম হল করোনা ও কোভিড

সারা বিশ্ব করোনায় ত্রস্ত হলেও, সদ্যোজাতদের সেই নাম দিলেন রায়পুরের দম্পতি

সারা বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত দশ লক্ষ। মারা গিয়েছেন ৫০ হাজার। তবুও নিজেদের ছেলে-মেয়ের নাম করোনা ও কোভিড রাখলেন ছত্তিসগড়ের এক দম্পতি।

তাদের যমজ সন্তান হয়েছে লকডাউনের সময়। সেই কারণেই এরকম আজব নামকরন। রায়পুর দম্পতির কথায় যাবতীয় সংগ্রামের শেষে জয়ের প্রতীক এটি। লকডাউনের মধ্যে তাদের যে সমস্যা হয়েছিল এবং তারা কীভাবে সেটিকে অতিক্রম করেছিলেন, এই দুই নাম সেটিকেই মনে করাবে বলে জানিয়েছেন রায়পুরের এই দম্পতি। তাদের আগেই দুই বছরের একটি মেয়ে আছে।

২৬ তারিখ গভীর রাতে জন্ম নেয় এই যমজ রায়পুরের এক সরকারি হাসপাতালে। বাচ্চাদের মা প্রীতি ভার্মা সংবাদসংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছেন যে ছেলের নাম কোভিড ও মেয়ের নাম করোনা রাখা হয়েছে। করোনা মারণ ভাইরাস হলেও এটি মানুষকে নতুন করে হাইজিন, স্বাস্থ্যের পাঠ শেখাচ্ছে বলে জানান প্রীতি।

তিনি বলেন যে হাসপাতালের লোকেরাও করোনা ও কোভিড নামে যমজদের ডাকতে শুরু করায়, সেটিই আপাতত নাম দেওয়া হয়েছে। তবে পরে নাম বদলের সম্ভাবনা একেবারে খারিজ করে দেন নি তিনি।

সন্তান জন্ম হওয়ার আগে লকডাউনের জন্য কীরকম বিপাকে পড়েছিলেন তাঁরা, সেটাও জানিয়েছেন প্রীতি। ২৬ তারিখ রাতে তাঁর লেবার যন্ত্রনা শুরু হয়। কোনওভাবে প্রীতির স্বামী একটি অ্যাম্বুলেন্স যোগাড় করেন।

লকডাউন চলায় পুলিশ বারবার তাঁদের গাড়ি আটকায়। মধ্যরাতে হাসপাতালে পৌঁছান তাঁরা। কিন্তু চিকিত্সক ও নার্সদের সহযোগিতায় অভিভূত প্রীতি। তবে জন্মের সময় তাঁদের পরিবারের লোকেরা আসতে পারেননি ট্রেন ও বাস পরিষেবা বন্ধ থাকায়।

আম্বেদকর মেমোরিয়াল হাসপাতালের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে মা ও বাচ্চারা ভালো আছে ও তাদের হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। প্রীতির সি-সেকশন সার্জারি করা হয়েছিল বলে জানান হাসপাতালের মুখপাত্র। করোনা ও কোভিড নাম হওয়ায় সবাই বাচ্চাদের দেখতে আসছিল বলে জানান মুখপাত্র।


বন্ধ করুন