বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ক্ষমা চেয়েও মিলল না নিস্তার,মহিলার মাথায় থুতু ফেলায় জাভেদ হাবিবের বিরুদ্ধে মামলা
মহিলার মাথায় থুতু ফেলায় জাভেদ হাবিবের বিরুদ্ধে মামলা (ছবি সৌজন্যে টুইটার)
মহিলার মাথায় থুতু ফেলায় জাভেদ হাবিবের বিরুদ্ধে মামলা (ছবি সৌজন্যে টুইটার)

ক্ষমা চেয়েও মিলল না নিস্তার,মহিলার মাথায় থুতু ফেলায় জাভেদ হাবিবের বিরুদ্ধে মামলা

  • থুতু ফেলার ভিডিয়ো ভাইরাল হতেই অবশ্য এর জন্য ক্ষমা চান জাভেদ হাবিব।

চুলের স্টাইল করতে মহিলার মাথায় থুতু ফেলছেন জাভেদ হাবিব। সম্প্রতি এই ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হতেই জাভেদ হাবিবের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলেছিল জাতীয় মহিলা কমিশন। আর এবার জাভেদের বিরুদ্ধে একাধিক ধারায় মামলা রুজু করল পুলিশ। মুজফফরনগর পুলিশের তরফে জানানো হয়, ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৫ ধারা (হামলা), ৫০৪ (অপমান) এবং মহামারী আইনের প্রাসঙ্গিক ধারায় হেয়ারস্টাইলিস্ট জাভেদ হাবিবের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এদিকে থুতু ফেলার ভিডিয়ো ভাইরাল হতেই অবশ্য এর জন্য ক্ষমা চান জাভেদ হাবিব। এক ভিডিয়ো বার্তায় জাভেদ বলেন, ‘আমার সেমিনারে আমার বলা কিছু কথা কয়েকজনকে কষ্ট দিয়েছে। আমি শুধু একটা কথা বলতে চাই এগুলো হল প্রফেশনাল ওয়ার্কশপ। এখানে আমাদের পেশার মানুষরা অংশগ্রহণ করে। যখন এই সেমিনারগুলি খুব দীর্ঘ হয়, তখন আমাদের সেগুলিকে হাস্যকর করতে হয়। আমি কী বলতে পারি? আপনারা যদি সত্যিই আঘাত পেয়ে থাকেন, আমি আমার হৃদয় থেকে ক্ষমাপ্রার্থী। আমাকে ক্ষমা করুন, আমি দুঃখিত।’

এর আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল ভিডিয়োয় দেখা যায়, এক মহিলার মাথায় থুতু ফেলছেন জাভেদ হাবিব। জাভেদকে বলতে শোনা যায়, 'জল না থাকলে...এই থুতুতে জীবন আছে।' সেই ভিডিয়োটি ভাইরাল হওয়ার পর নেটিজেনরা ক্ষোভে ফেটে পড়েন। তারইমধ্যে একজন মহিলার একটি ভিডিয়ো ভাইরাল হয়ে যায়। সে মহিলা নিজেকে পূজা গুপ্তা হিসেবে চিহ্নিত করেছেন। তাঁর একটি বিউটি পার্লার আছে বলে দাবি করেন। মহিলা দাবি করেন, একটি সেমিনারের সময় চুল কাটার জন্য তাঁকে মঞ্চে ডাকেন জাভেদ। মহিলার অভিযোগ, তাঁর সঙ্গে বাজে ব্যবহার করেছেন জাভেদ। সেই মহিলা বলেন, ‘আমি পাড়ার নাপিতকে দিয়ে চুল কাটিয়ে নেব। জাভেদ হাবিবের থেকে কাটব না।’ এরপরই বিষয়টি নিয়ে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের ডিজিকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে জাতীয় মহিলা কমিশন।

বন্ধ করুন