করোনাভাইরাস রুখতে যাবতীয় কড়া ব্যবস্থা গ্রহণ করার উদ্যোগ নিয়েছে দিল্লি সরকার। ছবি: এএফপি। (AFP)
করোনাভাইরাস রুখতে যাবতীয় কড়া ব্যবস্থা গ্রহণ করার উদ্যোগ নিয়েছে দিল্লি সরকার। ছবি: এএফপি। (AFP)

Coronavirus update: দিল্লিতে নিষিদ্ধ IPL ম্যাচ, কড়াকড়ি সমাবেশেও

সরকারি নির্দেশে দিল্লিতে নিষিদ্ধ হল আইপিএল-এর সব ম্যাচ। নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে ২০০ মানুষের বেশি সংখ্যক যে কোনও জমায়েতও।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধ করার উদ্দেশে একাধিক কড়া পদক্ষেপের সিদ্ধান্ত নিল দিল্লির আপ সরকার। দিল্লিতে নিষিদ্ধ হল আইপিএল-এর সব ম্যাচ।

শুক্রবার উপ-মুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়া জানান, ‘আইপিএল-এর মতো ক্রীড়া অনুষ্ঠানে অসংখ্য মানুষ একত্র হওয়ার কারণে আমরা সেগুলি নিষিদ্ধ ঘোষণা করছি। করোনাভাইরাস সংক্রমণ রুখতে সামাজিক ক্ষেত্রে ব্যবধান তৈরি করা জরুরি।’

সরকারি নির্দেশে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে ২০০ মানুষের বেশি সংখ্যক যে কোনও জমায়েতও।

এই প্রসঙ্গে দক্ষিণ কোরিয়ায় সম্প্রতি ৩০ জনকে কোয়্যারান্টাইন করার পরে সামাজিক সমাবেশের অনুমোদন দেওয়ার ঘটনা উল্লেখ করে সিসোদিয়া বলেন, ‘একত্রিশতম ব্যক্তিই এরপর ১০,০০০ জনের মধ্যে ভাইরাস সংক্রমণ ঘটান। দিল্লিতে আমরা যে কোনও উপায়ে তা রোধ করার চেষ্টা করছি। এই সময় সামাজিক ক্ষেত্রে ব্যবধান তৈরি করা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।’

তিনি জানিয়েছেন, এই বিষয়ে সব জেলাশাসক ও এসডিএম-কে কড়া হাতে সরকারি নীতি পালনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ৩১ মার্চ পর্যন্ত শহরের সমস্ত সিনেমা হল বন্ধ রাখার নির্দেশ জারি করে দিল্লি সরকার। জরুরি বৈঠকের পরে মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজলিওয়াল সাংবাদিক বৈঠকে ঘোষণা করেন, ‘দিল্লি সরকার করোনাভাইরাসকে মহামারী ঘোষণা করেছে। অসুখ রুখতে আমাদের প্রচুর পরিমাণে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। ৩১ মার্চ পর্যন্ত দিল্লির সমস্ত স্কুল, কলেজ ও সিনেমা হল বন্ধ থাকবে। শুধুমাত্র পূর্ব নির্ধারিত নির্ঘণ্ট মেনে পরীক্ষা নেওয়া হবে। গণসমাবেশ থেকে দূরে থাকার জন্য জনগণকে পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।’

এ ছাড়া, দিল্লির সমস্ত অফিস, শপিং মল-সহ প্রকাশ্য স্থানে নিয়মিত পরিশোধনের নির্দেশও জারি করেছে সরকার। অন্তত এক মাসের জন্য কড়াকড়ি বজায় রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দিল্লি সরকার, জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দর জৈন।

বন্ধ করুন