বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ভারতে খোঁজ মেলা করোনার B.1.617 স্ট্রেন ছড়িয়েছে ৫৩টি দেশে, জানাল WHO
B.1.617 স্ট্রেন ছড়িয়েছে ৫৩টি দেশে (Sanchit Khanna/HT PHOTO)
B.1.617 স্ট্রেন ছড়িয়েছে ৫৩টি দেশে (Sanchit Khanna/HT PHOTO)

ভারতে খোঁজ মেলা করোনার B.1.617 স্ট্রেন ছড়িয়েছে ৫৩টি দেশে, জানাল WHO

  • প্রথম থেকে বিশেষজ্ঞরা দাবি করে এসেছেন যে B.1.617 স্ট্রেনটি খুবই মারাত্মক এবং সংক্রামক।

ভারতে প্রথবার খোঁজ মিলেছিল করোনার নয়া স্ট্রেন B.1.617-এর। সেই স্ট্রেন এখন ভারত ছাড়িয়ে ৫৩টি দেশে পৌঁছে গিয়েছে বলা জানাল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এদিকে রাষ্ট্রসংঘের থেকে পাওয়া প্রাথমিক তথ্য অনুযায়ী বেসরকারি ভাবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ধরে নিচ্ছে যে B.1.617 স্ট্রেনটি মোট ৬০টি দেশে পৌঁছে গিয়েছে। উল্লেখ্য, প্রথম থেকে বিশেষজ্ঞরা দাবি করে এসেছেন যে B.1.617 স্ট্রেনটি খুবই মারাত্মক এবং সংক্রামক।

বিশ্বজুড়ে ধীরে ধীরে নিম্নমুখী হয়েছে করোনা সংক্রমণের গ্রাফ। গত একসপ্তাহে বিশ্বে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৪১ লক্ষ মানুষ। তার আগের সপ্তাহের তুলনায় যা ১৪ শতাংশ কম। এদিকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত একসপ্তাহে প্রাণ হারিয়েছেন ৮৪ হাজার মানুষ। তার আগের সপ্তাহের তুলনায় যা ২ শতাংশ কম। B.1.617 ছাড়াও বর্তমানে চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে আরও তিনটি স্ট্রেন। সেগুলি হল ব্রিটেনে খোঁজ মেলা B.1.1.7, দক্ষিণ আফ্রিকায় খোঁজ মেলা B.1.351 এবং ব্রাজিলে খোঁজ মেলা P.1। এর মধ্যে B.1.1.7 ছড়িয়েছে ১৪৯টি দেশে, B.1.351 ছড়িয়েছে ১০২টি দেশে এবং P.1 ছড়িয়েছে ৫৯টি দেশে।

ইউরোপে করোনা সংক্রমণ অনেকটাই কমেছে। এছাড়া দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়াতেও সংক্রমণের হার নিম্নমুখী। তবে আমেরিকা, মধ্যপ্রাচ্য, আফ্রিকা, পশ্চিমা প্রশান্ত মহাসাগরের অঞ্চলগুলিতে করোনা সংক্রমণের হার একই রয়েছে। তবে চিন্তার বিষয়, সংক্রমণ যেই হারে কমছে, মৃত্যু সেই হারে কমছে না। এর জেরে আক্রান্তের নিরিখে মৃত্যুর অনুপাত বাড়ছে দিনকে দিন।

এদিকে গত একসপ্তাহে সব থেকে বেশি সংক্রমণের খবর এসেছে ভারত থেকে। দেশে একসপ্তাহে করোনা আক্রান্ত হয়েছে ১৮ লক্ষ, ৪৬ হাজার ৫৫ জন। তার আগের সপ্তাহের থেকে তা ২৩ শতাংশ কম। এরপরই তালিকায় রয়েছে ব্রাজিল। সেখানে গত একসপ্তাহে করোনা আক্রান্ত হয়েছে ৪ লক্ষ ৫১ হাজার ৪২৪ জন। তা তার আগের সপ্তাহের তুলনায় ৩ শতাংশ বেশি। এরপর তাকিয়া রয়েছে আর্জেনটিনা। সেখানে এক সপ্তাহের তুলনায় করোনা সংক্রমণ বেড়েছে ৪১ শতাংশ। এরপর তালিকায় যথাক্রমে রয়েছে আমেরিকা এবং কলম্বিয়া। সেখানে আগের সপ্তাহের তুলনায় সংক্রমণ কমেছে যথাক্রমে ২০ এবং ৭ শতাংশ।

বন্ধ করুন