বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > চার ছেলের সঙ্গে পালালেন মহিলা, অভিনব পন্থায় ঠিক হল পাত্রের নাম!
চারটি কাগজের টুকড়োয় ছেলেদের নাম লিখে লটারি ব্যবস্থায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
চারটি কাগজের টুকড়োয় ছেলেদের নাম লিখে লটারি ব্যবস্থায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

চার ছেলের সঙ্গে পালালেন মহিলা, অভিনব পন্থায় ঠিক হল পাত্রের নাম!

চারটি ছেলের সঙ্গে পালালেন এক মহিলা!

চারটি ছেলের সঙ্গে পালালেন একটি মেয়ে। কিন্তু গোল বাঁধল, কাকে বিয়ে করবেন, সেই বিষয় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময়। তখন আজব কায়দায় বিয়ে পাকা হয় মেয়েটির। 

ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর প্রদেশের রামপুরের টান্ডা এলাকায়। কাকে ছেড়ে কাকে বিয়ে করবেন, সে বিষয় দোটানায় পড়েন মেয়েটি। কোন ছেলেকে বেশি পছন্দ করে, তা ঠিক করতেই হিমশিম খায় সে। অবশেষে পঞ্চায়েতে মামলা উঠলে অভিনব পদ্ধতিতে সমস্যার সমাধান করেন পঞ্চায়েতের সদস্যরা।

পুরো জেলাতেই এই সমাধান সূত্র এখন আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু। মেয়েটির ভ্রান্তি এই পর্যায় পৌঁছায় যে পঞ্চায়েতের বৈঠক ডাকতে হয়। তখন চারটি কাগজের টুকরোয় ছেলেদের নাম লিখে লটারি ব্যবস্থায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। 

পাঁচদিন আগেই চারজন ছেলের হাত ধরে বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়েছিলেন ওই মেয়েটি। দু'দিন ওই ছেলেদের আত্মীয়ের বাড়িতে আত্মগোপন করেছিলেন। কিন্তু তারপরই তাঁরা ধরা পড়ে যান। ছেলেদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নিতে শুরু করেন মেয়েটির পরিবারের লোকেরা। তখনই পঞ্চায়েতের আওতাধীন হয়ে পড়ে বিষয়টি। পঞ্চায়েতের তরফে বিয়ের প্রস্তাব দেওয়া হয়। মেয়েটি কাকে বিয়ে করতে চান, সে বিষয় জানতে চাওয়া হলেই ভ্রান্তি দেখা দেয় তাঁর ব্যবহারে। 

অন্যদিকে চার জনের মধ্যে একটি ছেলেও ওই মেয়েটির সঙ্গে বিয়ে করতে রাজি ছিলেন নাু অবশেষে পঞ্চায়েতের চাপের মুখে পড়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত মানতে বাধ্য হযন তারা। জানা গিয়েছে, তিন দিন পর্যন্ত নিজেদের মধ্যে আলাপ আলোচনার পর বিয়ের বিষয় সিদ্ধান্তের জন্য এই অভিনব পন্থা বের করেন পঞ্চায়েতের সদস্যরা। 

চারটি ছেলের নাম কাগজে লিখে একটি বাটিতে ফেলে দেওয়া হয়। এরপর একটি ছোটো বাচ্চাকে তার মধ্যে থেকে একটি চিট তুলতে বলা হয়। কাগজের টুকরোয় যাঁর নাম লেখা ছিল, তাঁর সঙ্গেই সেই মেয়েটির বিয়ে পাকা হয়েছে।

বন্ধ করুন