বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ভালো মুখে চিনকে কড়া জবাব! তেরঙা হাতে গালওয়ানে নববর্ষ উদযাপন ভারতীয় সেনার
গালওয়ান উপত্যকায় নববর্ষ হাতে ভারতীয় জওয়ানরা। (ছবি সৌজন্য এএনআই)

ভালো মুখে চিনকে কড়া জবাব! তেরঙা হাতে গালওয়ানে নববর্ষ উদযাপন ভারতীয় সেনার

  • 'নয়া বছরে গালওয়ান উপত্যকায় ভারতীয় সেনার বীর জওয়ানরা।'

সরকারিভাবে নয়, তবে চিনের উস্কানিমূলক ভিডিয়োর পালটা দিল ভারত। মঙ্গলবার গালওয়ান উপত্যকায় ভারতীয় সেনার জওয়ানদের নববর্ষের উদযাপনের ছবি প্রকাশ করা হল। নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠানের সূত্রের তরফে সেই ছবি প্রকাশ করা হয়েছে। তাতে ভারতীয় জওয়ানদের হাতে জাতীয় পতাকা দেখা গিয়েছে। 

ভারতের নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠানের সূত্রের তরফে প্রকাশিত একটি ছবিতে দেখা গিয়েছে, চারিদিক বরফের চাদরে আবৃত। তারইমধ্যে প্রায় ৩০ জন জওয়ান আছেন। প্রত্যেকের হাতেই অস্ত্র আছে। চার জওয়ান জাতীয় পতাকা ধরে আছেন। কয়েকজন জওয়ানকে হাঁটু মুড়ে বসে থাকতেও দেখা গিয়েছে। অপর একটি ছবিতে দেখা গিয়েছে, একটি ছাউনির সামনে জওয়ানরা দাঁড়িয়ে আছেন। তিনজন জওয়ান ধরে আছেন তেরঙা। জওয়ানরা ডোগরা রেজিমেন্টের বলে জানিয়েছে সংবাদসংস্থা এএনআই। সেই ছবি টুইটারে পোস্ট করে কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী কিরেন রিজিজু লিখেছেন, 'নয়া বছরে গালওয়ান উপত্যকায় ভারতীয় সেনার বীর জওয়ানরা।'

গালওয়ানে ভারতীয় সেনা। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
গালওয়ানে ভারতীয় সেনা। (ছবি সৌজন্য এএনআই)

সেই ছবিগুলি প্রকাশের তিনদিন আগেই চিনের সরকারি সংবাদমাধ্যমের তরফে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করে দাবি করা হয়, গালওয়ান উপত্যকার নিকটবর্তী এলাকা থেকে চিনের মানুষদের ইংরেজি নববর্ষের শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন পিপলস লিবারেশন আর্মির (পিএলএ) ফৌজিরা। লাদাখ সেক্টরে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর উত্তেজনার মধ্যে চিনের সরকারি সংবাদমাধ্যমের তরফে সেই ভিডিয়ো নিয়ে রীতিমতো আগ্রাসী মনোভাব নেওয়া হয়। যদিও সংশ্লিষ্ট মহলের বক্তব্য, সেই ভিডিয়ো যে এলাকায় তৈরি হয়েছে, তা আগে থেকেই চিনের হাতে ছিল। গালওয়ানে যে দু'কিলোমিটার ‘বাফার জোন’ তৈরি হয়েছে, সেখানকার নয়। শুধু তাই নয়, ভিডিয়োটি পুরনো বলে মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল। কারণ ভিডিয়োয় বরফ দেখা যায়নি। বছরের এই সময় গালওয়ানের বিস্তীর্ণ অংশ তুষারের চাদরে মোড়া থাকে। যে বরফ দেখা গিয়েছে ভারতের নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠানের সূত্রের তরফে প্রকাশিত ছবিতেও। 

বন্ধ করুন