বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > পশুখাদ্য মামলায় লালুপ্রসাদ যাদবের জামিন মঞ্জুর করল ঝাড়খণ্ড হাইকোর্ট
লালুপ্রসাদ যাদব। (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)
লালুপ্রসাদ যাদব। (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)

পশুখাদ্য মামলায় লালুপ্রসাদ যাদবের জামিন মঞ্জুর করল ঝাড়খণ্ড হাইকোর্ট

মোট চারটি পশুখাদ্য মামালা চলছিল তাঁর বিরুদ্ধে। সবকটি মামলাতেই দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন তিনি। পুরনো ৩টি মামলায় আগেই জামিন পেয়ে গিয়েছিলেন লালু। এবার চতুর্থ মামলাটিতেও জামিন পেলেন তিনি

সাড়ে তিন বছর কারাগারে কাটানোর পর অবশেষে মুক্তি পেতে চলেছেন লালুপ্রসাদ যাদব। পশুখাদ্য দুর্নীতি মামলায় বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লালুপ্রসাদ যাদবের জামিন মঞ্জুর করল ঝাড়খণ্ড হাইকোর্ট। শনিবার তাঁর জামিন মঞ্জুর করেছে হাইকোর্ট। সব মিলিয়ে মোট চারটি পশুখাদ্য মামালা চলছিল তাঁর বিরুদ্ধে। সবকটি মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন তিনি। পুরনো তিনটি মামলায় আগেই জামিন পেয়ে গিয়েছিলেন লালু। এবার চতুর্থ মামলায় জামিন পেলেন তিনি। ফলে, এবারে তাঁর কারাগার থেকে ছাড়া পেতে আর কোনও বাধা রইল না। শীঘ্রই তিনি জেল থেকে মুক্তি পাবেন বলেই সূত্রের খবর।


প্রসঙ্গত, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি লালুপ্রসাদ যাদবের জামিনের আবেদন খারিজ করে দিয়েছিল আদালত। দুমকা কোষাগার থেকে বেআইনি ভাবে ৩ কোটি ১৩ লাখ টাকা সরানোর অভিযোগ উঠেছিল লালুর বিরুদ্ধে। সেই মামলায় তাঁকে দোষী সাব্যস্ত করেছিল আদালত। মোট দু’টি ধারায় তাঁকে সাত বছরের কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছিল আদালত।পশুখাদ্য দুর্নীতিতে মোট চারটি মামলায় তাঁকে দোষী সাব্যস্ত করেছিল আদালত। ২০১৭ সালের ডিসেম্বর থেকে কারাগারে বন্দি ছিলেন লালুপ্রসাদ যাদব। যদিও কারাদণ্ডের মেয়াদের অধিকাংশ সময় ঝাড়খণ্ডের রাজেন্দ্র ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সেস (রিমস) হাসপাতালে কাটিয়েছেন লালু। এই বছর জানুয়ারি মাসে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায়, তাঁকে দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সেসে (এইমস) স্থানান্তর করা হয়। এই মুহূর্তে এই হাসপাতালেই রয়েছেন তিনি।

বন্ধ করুন