বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Sedition Law: ‘সুরক্ষা ও ব্যক্তি স্বাধীনতার মধ্যে সামঞ্জস্য চাই’, রাষ্ট্রদ্রোহ আইনে জেলবন্দিদের কী হবে এবার?
সুপ্রিম কোর্ট(HT Photo) (HT_PRINT)

Sedition Law: ‘সুরক্ষা ও ব্যক্তি স্বাধীনতার মধ্যে সামঞ্জস্য চাই’, রাষ্ট্রদ্রোহ আইনে জেলবন্দিদের কী হবে এবার?

  • Sedition Law: দেশের সুরক্ষা এবং ব্যক্তি স্বাধীনতার মধ্যে সামঞ্জস্য বজায় রাখার বার্তা দিয়ে শীর্ষ আদালত বলে, ‘কঠিন হলেও দুই দিকেই নজর দিতে হবে। মামলাকারীরে আবেদন হল এই আইন ১৮৯৮ সালের। সংবিধানের বহু আগের আইন এটা। এবং এটির অপব্যবহার চলছে।’

রাষ্ট্রদ্রোহ আইন আপাতত স্থগিত করেছে সুপ্রিম কোর্ট। এই আবহে রাষ্ট্রদ্রোহ আইনে বন্দি সবাই কী মুক্তি পাবেন জেল থেকে? যাঁরা কোনও মামলায় বিচারাধীন, তাঁদেরই বা কী হবে? সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিয়েছে যে যেসকল ব্যক্তি ভারতী দণ্ডবিধির ১২৪এ ধারা অথবা রাষ্ট্রদ্রোহ আইনে জেলে বন্দি আছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে ১২৪এ ধারা বাদে বাকি যেসব ধারায় অভিযোগ রয়েছে, সেই ধারা অনুযায়ী মামলা চলবে বা সাজা কার্যকর হবে। পাশাপাশি শীর্ষ আদালত জানায়, রাষ্ট্রদ্রোহ আইনের পর্যালোচনার প্রক্রিয়া শেষ না হওয়া পর্যন্ত ভারতীয় দণ্ডবিধির ১২৪এ ধারায় কোনও মামলা রুজু করা যাবে না। আদালত জানিয়েছে, এই মামলার পরবর্তী শুনানি জুলাইয়ের তৃতীয় সপ্তাহে হবে।

দেশের সুরক্ষা এবং ব্যক্তি স্বাধীনতার মধ্যে সামঞ্জস্য বজায় রাখার বার্তা দিয়ে শীর্ষ আদালত বলে, ‘কঠিন হলেও দুই দিকেই নজর দিতে হবে। মামলাকারীরে আবেদন হল এই আইন ১৮৯৮ সালের। সংবিধানের বহু আগের আইন এটা। এবং এটির অপব্যবহার চলছে। অ্যাটর্নি জেনারেল নিজে এই আইনের অপব্যবহার তুলে ধরেছিলেন এর এক আগের শুনানির সময়। ‘হনুমান চালিসা’ সংক্রান্ত কিছু একটা নিয়ে বলেছিলেন তিনি।’

সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এন ভি রামানা বলেছেন, ‘যতদিন ভারতীয় দণ্ডবিধির ১২৪এ ধারার বৈধতা মিয়ে পুনর্বিবেচনা প্রক্রিয়া চলছে, ততদিন আশা করছি রাজ্য সরকারগুলি এবং কেন্দ্রীয় সরকার এই ধারায় কোনও মামলা রুজু করবে না।’ সেইসঙ্গে সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দেয়, যাঁরা রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় জেলবন্দি আছেন বা মামলা চলছে, তাঁরা নিজেদের বক্তব্য নিয়ে ট্রায়াল কোর্টের দ্বারস্থ হতে পারেন। যা দ্রুত সেই বিষয়টি খতিয়ে দেখবে। তবে সেক্ষেত্রে সেই ব্যক্তির বিরুদ্ধে অন্য কোনও ধারায় মামলা রুজু থাকলে, তার প্রেক্ষিতে বিচার ব্যবস্থা পদক্ষেপ করবে এবং সাজা শোনাবে। শীর্ষ আদালত জানিয়েছে, যাঁরা ইতিমধ্যে রাষ্ট্রদ্রোহ আইনে জেলবন্দি আছেন, তাঁরা শুধু সেই ধারা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্যেই আদালতে আবেদন জানাতে পারবেন।

বন্ধ করুন