প্রতিবাদের ভাষায় যুবভারতীতে মিশে গেল লাল-হলুদ ও সবুজ-মেরুন

ঘটি-বাঙালের চিরকালীন দ্বন্দ্ব দূরে সরিয়ে রেখে জাতীয় নাগরিক পঞ্জির (এনআরসি) প্রতিবাদে সামিল হলেন মোহনবাগান ও ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা। রবিবাসরীয় যুবভারতী এক অদ্ভূত মেলবন্ধনের সাক্ষী থাকল। ব্যানার, টিফোর মধ্য দিয়ে প্রতিবাদের ভাষা ছড়িয়ে দেওয়া হয়। দেখুন সেই প্রতিবাদের ছবি -

ইস্টবেঙ্গল গ্যালারিতে এনআরসি নিয়ে এরকম একটি টিফো ছিল। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
1/6ইস্টবেঙ্গল গ্যালারিতে এনআরসি নিয়ে এরকম একটি টিফো ছিল। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
প্রথম টিফোর জবাব হিসেবেই দ্বিতীয়টি তৈরি করা হয়। এনআরসি বিরোধী বার্তাটা পরিষ্কার ছিল। (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)
2/6প্রথম টিফোর জবাব হিসেবেই দ্বিতীয়টি তৈরি করা হয়। এনআরসি বিরোধী বার্তাটা পরিষ্কার ছিল। (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)
লাল-হলুদ পতাকার মাঝে আরও একটি ব্যানার ছিল। তাতে লেখা - 'রক্ত দিয়ে কেনা মাটি,কাগজ দিয়ে নয়'। (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)
3/6লাল-হলুদ পতাকার মাঝে আরও একটি ব্যানার ছিল। তাতে লেখা - 'রক্ত দিয়ে কেনা মাটি,কাগজ দিয়ে নয়'। (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)
এরইমধ্যে ইস্টবেঙ্গল ব্যানারের নিচে তিন যুবকের একটি এডিট ছবিও নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। মধ্যিখানে যিনি দাঁড়িয়ে রয়েছেন, তাঁর হাতে তেরঙা। দু'পাশে মোহনবাগান ও ইস্টবেঙ্গলের পতাকা। (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)
4/6এরইমধ্যে ইস্টবেঙ্গল ব্যানারের নিচে তিন যুবকের একটি এডিট ছবিও নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। মধ্যিখানে যিনি দাঁড়িয়ে রয়েছেন, তাঁর হাতে তেরঙা। দু'পাশে মোহনবাগান ও ইস্টবেঙ্গলের পতাকা। (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)
মোহনবাগান গ্যালারিতেও এরকম টিফো দেখা যায়।(ছবি সৌজন্য ফেসবুক)
5/6মোহনবাগান গ্যালারিতেও এরকম টিফো দেখা যায়।(ছবি সৌজন্য ফেসবুক)
প্রতিবাদের মঞ্চ হিসেবে ডার্বির ইতিহাসে ঠাঁই পেল রবিবারের যুবভারতী।
6/6প্রতিবাদের মঞ্চ হিসেবে ডার্বির ইতিহাসে ঠাঁই পেল রবিবারের যুবভারতী।
অন্য গ্যালারিগুলি