বাংলা নিউজ > ময়দান > সপ্তাহখানেক আলোচনার পর জট কাটল, PCB কর্তাদের আশ্বাসে কেন্দ্রীয় চুক্তিতে সই বাবরদের

সপ্তাহখানেক আলোচনার পর জট কাটল, PCB কর্তাদের আশ্বাসে কেন্দ্রীয় চুক্তিতে সই বাবরদের

বাবর আজম।

সপ্তাহখানেক আগে চুক্তিপত্র হাতে পেয়েছিলেন বাবররা। চুক্তির কিছু বিষয় নিয়ে তাদের আপত্তি ছিল। পরিবর্তনের দাবি জানিয়েছিলেন সিনিয়র ক্রিকেটাররা। যে কারণে পিসিবি কর্তাদের সঙ্গে তাঁরা বিভিন্ন প্রসঙ্গে আলোচনা করেন। সপ্তাহ খানেক টালবাহানার পর বাবররা শেষ পর্যন্ত অশ্বাস পেয়ে কেন্দ্রীয় চুক্তিপত্রে সই করেন।

শেষ পর্যন্ত পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে সই করলেন বাবর আজমরা। বেশ কিছু দিন ধরেই অচলাবস্থা চলছিল। শেষ পর্যন্ত সেটা কেটে গেল। আসলে অধিনায়ক বাবর আজম, শাহিন শাহ আফ্রিদি, মহম্মদ রিজওয়ানরা চুক্তির বেশ কিছু অংশ পরিবর্তনের দাবি জানিয়েছিলেন। শেষ পর্যন্ত বোর্ড কর্তাদের থেকে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস পাওয়ার পরেই, তাঁরা চুক্তিপত্রে সই করলেন।

সপ্তাহখানেক আগে চুক্তিপত্র হাতে পেয়েছিলেন বাবর আজমরা। চুক্তির কিছু বিষয় নিয়ে তাদের আপত্তি ছিল। পরিবর্তনের দাবি জানিয়েছিলেন সিনিয়র ক্রিকেটাররা। যে কারণে পিসিবি কর্তাদের সঙ্গে তারা বিভিন্ন প্রসঙ্গে আলোচনা করেন। সপ্তাহ খানেক টালবাহানার পর বাবররা শেষ পর্যন্ত পিসিবি কর্তাদের অশ্বাস পেয়ে কেন্দ্রীয় চুক্তিপত্রে সই করেন। সূত্রের খবর, মূলত বিদেশে টি-টোয়েন্টি লিগ খেলার ছাড়পত্র এবং আইসিসির প্রতিযোগিতায় খেলা সংক্রান্ত কিছু বিষয়ে আপত্তি ছিল বাবরদের।

আরও পড়ুন: আফ্রিদিকে ভয় পাওয়ার দরকার নেই, এশিয়া কাপে রোহিতদের জন্য পাক প্রাক্তনীর বার্তা

বোর্ড কর্তারা তাঁদের দাবি মেনে নেওয়ায় নেদারল্যান্ডস সফরে যাওয়ার আগে পিসিবির চুক্তিতে শর্তসাপেক্ষে সই করেছেন পাকিস্তানের সিনিয়র ক্রিকেটাররা। ঠিক হয়েছে, এশিয়া কাপের পর জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা দেশে ফিরলে সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে বোর্ড কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক হবে। তখন ক্রিকেটারদের আপত্তির বিষয়গুলি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে এবং সমাধানের পথ খোঁজা হবে।

আরও পড়ুন: যন্ত্রণা রয়েছে, প্লিজ প্রার্থনা করুন- হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে কাতর মিনতি শোয়েবের

এ দিকে ২০২২-২৩ মরসুমের জন্য মোট ৩৩ জন ক্রিকেটারকে কেন্দ্রীয় চুক্তির আওতায় আনা হয়েছে বলে জানিয়েছে পিসিবি। সাদা বলের ক্রিকেট এবং লাল বলের ক্রিকেটের জন্য আলাদা চুক্তি করা হচ্ছে বাবরদের সঙ্গে। লাহোরে যখন প্রস্তুতি শিবির চলছিল, সেই সময়েই ক্রিকেটারদের হাতে চুক্তির কাগজ তুলে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তখন কেউই সেই চুক্তিপত্রে সই করেননি। ক্রিকেটাররা জানিয়েছিলেন, আইনজীবীর সঙ্গে কথা বলার পরেই তাঁরা চুক্তিতে সই করবেন।

অতীতে কেন্দ্রীয় চুক্তি নিয়ে পিসিবি কর্তাদের কখনও এমন সমস্যায় পড়তে হয়নি। ক্রিকেটাররা সাধারণত চুক্তিপত্র হাতে পেলে তা সই করে দিতেন। এ বারও ১২-১৩ জন জুনিয়র ক্রিকেটার সঙ্গে সঙ্গে সই করে দেন। কিন্তু বেঁকে বসেন দলের সিনিয়র ক্রিকেটাররা। তাঁদের আপত্তিকে গুরুত্ব দিয়ে সমস্যা সমাধানে রাজি হন পাক ক্রিকেট কর্তারা।

বন্ধ করুন