বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > মারাদোনার চুরি যাওয়া ঘড়ি উদ্ধার আসামে, ধৃত এক নিরপত্তাকর্মী

মারাদোনার চুরি যাওয়া ঘড়ি উদ্ধার আসামে, ধৃত এক নিরপত্তাকর্মী

দিয়োগো মারাদোনার চুরি যাওয়া ঘড়ি (বাঁ-দিকে) ও ধৃত ব্যক্তি। 

শনিবারই ঘড়িটি উদ্ধার করার পাশপাশি অভিযুক্তকেও তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে আসাম পুলিশ।

বিশ্বখ্যাত ফুটবলার মারাদোনা যেমন বল পায়ে তাঁর জাদুর জন্য বিখ্যাত, তেমনই তাঁর  দামী শখও কারুর অজানা নয়। প্রয়াত আর্জেন্তাইন কিংবদন্তি নিজের হাতে একটি নয়, একইসঙ্গে দুইটি ঘড়ি পড়তেন এবং অনেক অনুষ্ঠানেও তাঁর এমন ছবি ধরা পড়েছে। সেই মারাদোনার প্রিয় এক চুরি যাওয়া ঘড়ির হদিশ মিলল আসাম থেকে।

শিলচরের শিবসাগরর বাসিন্দা বাজিদ হুসেন নামক এক ব্যক্তিকে দুবাই পুলিশের থেকে খবর পেয়ে আসামের পুলিশ গ্রেফতার করে। ২০১০ সালের বিশ্বকাপে মারাদোনাকে Hublot Big Bang লিমিটেড এডিশনের ঘড়ি পড়তে দেখা যায়। মারাদোনাকে সম্মান জানিয়েই তাদের এই স্পেশাল এডিশন ঘড়িগুলি প্রস্তুত করেন প্রসিদ্ধ সংস্থাটি। অভিযুক্তকারী বাজিদ দুবাইয়ের একটি প্রাইভেট সংস্থায় নিরাপত্তাকর্মীর কাজ করতেন যেখানে মারাদোনোর ঘড়িগুলিসহ আরও কিছু মহামূল্যবান সামগ্রী রাখা হয়েছিল।

অগস্টে বাবার শরীর খারাপের নাম করে বাজিদ দেশে ফিরে আসেন। তবে শনিবারই (১১ ডিসেম্বর) তাকে আসাম পুলিশ তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে এবং ঘড়িটিও বাজেয়াপ্ত করে। পুলিশের ডিরেক্টর জেনারেল ঘটনাটি সম্পর্কে সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি জানান, 'দুবাই পুলিশের সেন্ট্রাল এজেন্সির মারফৎ আমাদের কাছে খবর পৌঁছায় যে বাজিদ হুসেন নামক এক ব্যক্তি মারাদোনার সই করা লিমিডেট অ্যাডিশন ঘড়ি চুরি করে আসামে পালিয়ে এসেছে। আজ ভোর চারটে নাগাদ আমরা ওকে শিবসাগরে ওর বাড়ি থেকে গ্রেফতার করেছি এবং ঘড়িটিও উদ্ধার করা হয়েছে।'

বাজিদের অতীত কোনো চুরি বা অন্য কোনো ক্রিমিনাল রেকর্ড আছে কিনা, সেই বিষয় খতিয়ে দেখছে আসাম পুলিশ। পুলিশের এহেন দ্রুত জরুরি পদক্ষেপ নিয়ে সাফল্য লাভে তাদের তারিফ করেছেন খোদ আসামের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মাও। আসাম পুলিশ অভিযুক্তকে জেরা করে আরও কিছু তথ্য পাওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

বন্ধ করুন