বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2021 > শ্রীলঙ্কার বলয় থেকে সরাসরি IPL বলয়ে যোগ দিতে পারবেন ক্রিকেটাররা, জানুন নিয়ম
শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন ক্রুনাল পাণ্ডিয়া।
শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন ক্রুনাল পাণ্ডিয়া।

শ্রীলঙ্কার বলয় থেকে সরাসরি IPL বলয়ে যোগ দিতে পারবেন ক্রিকেটাররা, জানুন নিয়ম

  • সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে মোট ১৪টি জৈব সুরক্ষা বলয় তৈরি করা হচ্ছে। তার মধ্যে ৮টি ফ্র্যাঞ্চাইজি দলের জন্য। ৩টি ম্যাচ অফিসিয়াল, ম্যাচের আয়েোজকদের জন্য। বাকি তিনটি ব্রডকাস্টার এবং তাদের কর্মী ও ধারাভাষ্যকরদের জন্য। 

শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়ে করোনা আক্রান্ত হন ক্রুনাল পাণ্ডিয়া। তার পর যুজবেন্দ্র চাহাল এবং কে গৌতমও কোভিড-১৯ পজিটিভ হন। তার জেরে ভারতের মোট ৯ জন ক্রিকেটারকে আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছিল। যে কারণে এই ন'জন শেষ দু'টি টি-টোয়েন্টিতে অংশ নিতে পারেননি। তাঁদের নিয়ে কী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে, সেটা নিয়েই দোটনায় ছিলেন আইপিএল ফ্রাঞ্চাইজিগুলো। কিন্তু তাদের স্বস্তি দিয়ে বিসিসিআই-এর তরফে শুক্রবার ঘোষণা করা হয়েছে, সেই ক্রিকেটাররা শ্রীলঙ্কার জৈব সুরক্ষা বলয় থেকে সরাসরি সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে আইপিএলের জৈব সুরক্ষা বলয়ে যোগ দিতে পারবেন। এবং তাঁদের ৬ দিনের কোয়ারেন্টাইনেও থাকতে হবে না।

শুধু শ্রীলঙ্কার প্লেয়াররাই নন, ইংল্যান্ডের জৈব সুরক্ষা বলয় থেকে আইপিএলে সরাসরি যোগ দিতে পারবেন অন্য ক্রিকেটাররাও। এখন ভারত-ইংল্যান্ড টেস্ট সিরিজ চলছে। আবার ক্যারিবায়ান লিগের বলয় থেকে বা শ্রীলঙ্কা-দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের বলয় থেকেও সরাসরি প্লেয়াররা আইপিএলের বলয়ে ঢুকে যেতে পারবেন। কারও কোনও রকম কোয়ারেন্টাইনে থাকার প্রয়োজন পড়বে না।

আর যাঁরা কোনও জৈব সুরক্ষা বলয় থেকে আসবেন না, তাঁদেরকে ৬ দিন বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। শুক্রবার বিসিসিআই-এর তরফে ৪৬ পাতার যে ‘হেলথ রিপোর্ট’ বের করা হয়েছে, তাতে আরও বলা হয়েছে, ভারত, শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ, পাকিস্তান থেকে যে প্লেয়াররা যাবেন, তাঁদের আরটিপিসিআর টেস্টের রিপোর্ট দেখাতে হবে। এবং সেই রিপোর্ট যাতে স্ক্যান করা যায়, তার জন্য ‘কিউআর’ কোট থাকাও বাধ্যতামূলক। সেটি দুবাইয়ে বিমান থেকে নামার পর ওখানকার স্বাস্থ্য আধিকারিকরা পরীক্ষা করবেন। আর সরকারি ভাবে দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার আগে প্রত্যেকেরই নিয়ম মেনে করোনা পরীক্ষা করা হবে।

সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে মোট ১৪টি জৈব সুরক্ষা বলয় তৈরি করা হচ্ছে। তার মধ্যে ৮টি ফ্র্যাঞ্চাইজি দলের জন্য। ৩টি ম্যাচ অফিসিয়াল, ম্যাচের আয়েোজকদের জন্য। বাকি তিনটি ব্রডকাস্টার এবং তাদের কর্মী ও ধারাভাষ্যকরদের জন্য। যাঁরা জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকবেন, তাঁদের জন্য আলাদা গাড়ির ব্যবস্থা থাকবে। সেই সব গাড়ির চালকদেরও জৈব সুরক্ষা বলয়ে রাখা হবে। এবং তাঁদেরও নিয়ম করে শরীরের তাপমাত্রা মাপা বা করোনা পরীক্ষা করা, সবটাই হবে।

আর প্লেয়ার বা অন্যরা কেউ নিজেরা বা কারও পরিবারের কোনও সদস্য জৈব সুরক্ষা বলয় ভাঙলে, তাঁদের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ আনা হবে এবং বিসিসিআই তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে বলেও জানা গিয়েছে।

বন্ধ করুন