বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2022 > জেনে নিন কে এই রিঙ্কু সিং? কেন তাকে তিন মাস BAN করেছিল BCCI?
কলকাতা নাইট রাইডার্সের রিঙ্কু সিং

জেনে নিন কে এই রিঙ্কু সিং? কেন তাকে তিন মাস BAN করেছিল BCCI?

  • রিঙ্কু সিং-কে তিন মাসের জন্য ব্যান করেছিল বিসিসিআই। ২০১৯ সালে তার উপর এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। আসলে, সেই সময় তিনি বিসিসিআই-এর অনুমতি ছাড়াই আবুধাবি ক্রিকেটের রমজান টি-টোয়েন্টি কাপে অংশ নিয়েছিলেন। রিঙ্কুর এই সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ হয়ে বিসিসিআই তার উপর তিন মাসের নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল।

বুধবার রাতে লখনউ সুপার জায়ান্টস বনাম কলকাতা নাইট রাইডার্সের ম্যাচটির রোমাঞ্চকর ফলাফল হয়। কেএল রাহুলের দল এই ম্যাচে জিতেছে কিন্তু শিরোনামে এসেছেন কেকেআর-এর রিঙ্কু সিং। প্রথমে ব্যাট করে কুইন্টন ডি’ককের সেঞ্চুরি এবং অধিনায়ক কেএল রাহুলের অর্ধশতরানের সাহায্যে কলকাতার সামনে ২১১ রানের লক্ষ্য রেখেছিল লখনউ। এই স্কোর তাড়া করতে নেমে কলকাতা ২০ ওভারে ২০৮ রান করে। শেষ কয়েক ওভারে দুইবারের চ্যাম্পিয়ন দল কলকাতা লখনউকে চাপে রেখেছিল। বলা যেতে পারে বাঁহাতি ব্যাটসম্যান রিঙ্কু সিং লখনউ সুপার জায়ান্টস শিবিরে ত্রাস হয়ে উঠেছিলেন। এদিন রিঙ্কু ১৫ বলে দুটি চার ও চারটি ছক্কার সাহায্যে চল্লিশ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে আউট হন। শেষ ওভারে রিঙ্কুর ক্যাচ যদি এভিন লুইস না ধরতেন তাহলে ফল অন্য হতেই পারত। রিঙ্কু আউট না হলে ম্যাচের ফল অবশ্যই কলকাতার পক্ষেই যেত।

উত্তরপ্রদেশের আলিগড় থেকে আসা রিঙ্কু সিংয়ের গল্পে অনেক সংগ্রাম রয়েছে। বাবা ঘরে ঘরে সিলিন্ডার পৌঁছে দেওয়ার কাজ করতেন। এক ভাই অটো রিকশা চালান এবং অন্যজন কোচিং সেন্টারে কাজ করেন। তার মোট ৫ ভাই-বোন রয়েছে। রিঙ্কুর পড়াশোনায় তেমন আগ্রহ ছিল না। যে কারণে ক্রিকেটকে নিজের জীবন বানিয়ে ফেলেছিলেন রিঙ্কু। নবম শ্রেণিতে ফেল করেছিলেন রিঙ্কু। কেকেআর-এর তরুণ তারকা একটি সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন যে ২০১২ এর আগে যখন তিনি ক্রিকেট খেলতেন তখন তার বাবা তাকে মারতেন। কিন্তু সে বছর তিনি একটি টুর্নামেন্টে একটি বাইক জিতেছিলেন যার পরে তার বাবা রিঙ্কুকে মারা বন্ধ করেছিলেন। ওই বাইকটি করে রিঙ্কুর বাবা সিলিন্ডার সরবরাহ করতেন। রিঙ্কু আরও জানান যে একবার তিনি তার ভাইয়ের কাছে চাকরি চেয়েছিলেন। তার ভাই তাকে একটি জায়গায় নিয়ে গিয়েছিলেন যেখানে তাকে ঝাড়ুদারের কাজ করতে হয়েছিল। রিঙ্কু সেখান থেকে ফিরে আসেন এবং তারপরে সে ক্রিকেট খেলায় তার জীবন উৎসর্গ করেছিলেন।

২০১৭ সালের আইপিএল নিলামে রিঙ্কু সিংকে প্রথম পঞ্জাব কিংস কিনেছিল। কিন্তু সে বছর তিনি একটি ম্যাচেও খেলার সুযোগ পাননি। সেই সময় রিঙ্কুকে ১০ লক্ষ টাকায় নিয়েছিল পঞ্জাব। এর পরে ২০১৮ সালে কেকেআর এই খেলোয়াড়ের জন্য ৮০ লক্ষ টাকা খরচ করেছিল। ২০১৮ সাল থেকে রিঙ্কু সিং কেকেআর-এর সঙ্গেই যুক্ত। কেকেআর আইপিএল ২০২২ মেগা নিলামে তার জন্য ৫৫ লক্ষ টাকা বিড করেছিল। আইপিএলের প্রাথমিক মরশুমে রিঙ্কু অনেক ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি। তবে এই বছর তিনি সাতটি ম্যাচ খেলেছেন যাতে তিনি ৩৪.৮০ গড়ে ১৭৪ রান করেছেন। রিঙ্কু সিং এখনও পর্যন্ত নিজের আইপিএল কেরিয়ারের গত ৬ বছরে মাত্র ১৭টি ম্যাচ খেলেছেন, যার মধ্যে তিনি ২৫১ রান করেছেন। ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি রিঙ্কু তার দুর্দান্ত ফিল্ডিংয়ের জন্যেও পরিচিত। তবে রিঙ্কু সিং-কে তিন মাসের জন্য ব্যান করেছিল বিসিসিআই। ২০১৯ সালে তার উপর এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। আসলে, সেই সময় তিনি বিসিসিআই-এর অনুমতি ছাড়াই আবুধাবি ক্রিকেটের রমজান টি-টোয়েন্টি কাপে অংশ নিয়েছিলেন। রিঙ্কুর এই সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ হয়ে বিসিসিআই তার উপর তিন মাসের নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল।

বন্ধ করুন