বাংলা নিউজ > ময়দান > PAK vs NZ: তাঁকে ছিটকে দিয়ে দলে ঢোকা সরফরাজের কামব্যাক ইনিংসের পরে কী বললেন রিজওয়ান?

PAK vs NZ: তাঁকে ছিটকে দিয়ে দলে ঢোকা সরফরাজের কামব্যাক ইনিংসের পরে কী বললেন রিজওয়ান?

শতরানের পর সরফরাজ আহমেদ। ছবি- এএফপি

দীর্ঘদিন পর জাতীয় দলে ফিরেছেন। আর কামব্যাক করতেই সিরিজের সেরা হয়েছেন সরফরাজ আহমেদ। দ্বিতীয় টেস্টের শেষ ইনিংসে দুর্দান্ত শতরান করে দলের হার বাঁচিয়েছেন তিনি। তাঁর এই পারফরম্যান্সের প্রশংসা করলেন রিজওয়ান।

নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের হার বাঁচিয়েছেন সরফরাজ আহমেদ। দ্বিতীয় ইনিংসে ১১৮ রানের একটি দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন পাকিস্তান দলের এই সিনিয়র ব্যাটার। তাঁর ব্যাটে ভর করেই ম্যাচ ড্র করে পাকিস্তান। ম্যাচের সেরাও হয়েছেন তিনি। শুধু তাই নয়, সিরিজের সেরাও হয়েছেন সরফরাজ। তাঁর এই ইনিংসটি সাজানো ছিল ৯টি বাউন্ডারি এবং একটি ওভার বাউন্ডারি দিয়ে।

এই ম্যাচ পাকিস্তান জিততে না পারলেও সরফরাজের এই ইনিংসটি মনে রাখবেন পাকিস্তান সমর্থকরা। পাক দলের সিনিয়র ক্রিকেটারের এমন পারফরম্যান্স দেখে স্বাভাবিক ভাবেই অনেকে প্রশংসা করেছেন। তবে দলের হার বাঁচিয়ে এখন পাকিস্তানের নায়ক সরফরাজ। ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে শূন্য রানে আউট হওয়ার পর তাঁকে বাদ দেওয়া হয়। এতদিন পাক দলে জায়গা হয়নি তাঁর। এরপর তিনি নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্ট ম্যাচ অর্থাৎ ২৬ ডিসেম্বর ২০২২-এ দলে ফিরে আসেন। শুধু তাই নয়, একের পর এক বড় ইনিংস খেলে তিনি।

এমন কামব্যাকে খুশি সরফরাজও। সিরিজের সেরা হওয়ার পর তিনি বলেন, 'চার বছর পর জাতীয় দলের হয়ে খেলতে নেমেছিলাম। এই সিরিজ আমার কাছে খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। নিজেকে প্রমাণ করার তাগিদ ছিল। তাই জন্যই এই রান এসেছে। আমি কঠোর পরিশ্রম করেছিলাম।'

সরফরাজের এই পারফরম্যান্সের পর টুইট করে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মহম্মদ রিজওয়ান। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে দলে জায়গা হয়নি রিজওয়ানের। যা নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। রিজওয়ানের পরিবর্তে জায়গা করে নিয়েছেন সরফরাজ। কামব্যাক ইনিংসের পর রিজওয়ান লিখেছেন, 'আবার দুর্দান্ত ব্যাটিং সইফি ভাইয়ের। পরিশ্রম এবং আল্লাহর প্রতি বিশ্বাস তা তোমাকে দেখলে বোঝা যায়। তুমি সিরিজের সেরা হয়েছ দেখে আমি সত্যি খুব খুশি হয়েছি। এই কামব্যাকটা খুব প্রয়োজন ছিল। ভালো থেকো সরফরাজ ভাই।'

প্রসঙ্গত,পাকিস্তান বনাম নিউজিল্যান্ডের টেস্ট সিরিজের শেষ ইনিংসে জয়ের জন্য পাকিস্তানকে ৩১৯ রানের টার্গেট দিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। ম্যাচ জিততে হলে কাউকে বড় রান করতেই হত। কিন্তু অধিনায়ক বাবর আজম এবং শান মাসুদ-সহ টপ অর্ডারের সব ব্যাটাররা ব্যর্থ হন। এরপর সরফরাজ ম্যাচের হাল ধরেন। ছয় নম্বরে ব্যাট করতে নেমে সেঞ্চুরি করেন তিনি। তাঁর ১৭৬ বলে ১১৮ রানের ইনিংস পাকিস্তানের লজ্জা বাঁচাল। সরফরাজ এই ইনিংসে শতরান না করলে ঘরের মাঠে হারের মুখ দেখতে হতে পারত পাকিস্তানকে। তবে সেটা হয়নি। ম্যাচ ড্রয়ের পাশাপাশি সিরিজও ড্র করল দুই দল।

বন্ধ করুন