বাংলা নিউজ > ময়দান > The Ashes: করোনাবিধির জেরে অ্যাডিলেডে অনুপস্থিত কামিন্স, তাও লাগাম কষতে অনিচ্ছুক ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া
প্যাট কামিন্স (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)
প্যাট কামিন্স (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)

The Ashes: করোনাবিধির জেরে অ্যাডিলেডে অনুপস্থিত কামিন্স, তাও লাগাম কষতে অনিচ্ছুক ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া

  • কামিন্সের বদলে অ্যাডিলেডে অস্ট্রেলিয়াকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন সদ্য সহ-অধিনায়ক নির্বাচিত হওয়া স্টিভ স্মিথ।

অ্যাডিলেডে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় অ্যাসেজ টেস্টের আগেই অস্ট্রেলিয়া দলকে বড় ধাক্কা দিয়ে অধিনায়ক প্যাট কামিন্স ম্যাচ থেকে ছিটকে গিয়েছেন। ম্যাচের আগের রাতে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার এক রেস্তরায় যেখানে কামিন্স নিজের ডিনার করেছিলেন, সেখানে এক ব্য়ক্তির করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসার পরেই তাঁকে টেস্ট থেকে সরে দাঁড়াতে হয়।

করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির কাছাকাছি থাকার জেরে নিয়ম অনুযায়ী সাত দিনের জন্য কামিন্সকে নিভৃতবাসে থাকতে হবে। তবে অস্ট্রেলিয়া অধিনায়কের এতে কোনো দোষ নেই এবং তিনি নিয়ম নীতি মেনেই কাজ করেছেন বলে জানান ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নিক হকলে। তিনি অ্যাডিলেডে উপস্থিক সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে জানান, ‘প্রতিটি অধিক্ষেত্রের ঝুঁকির কথা মাথায় রেখেই আমরা আমাদের নিয়মবিধি তৈরি করি। আমরা প্রতিদিন এই নিয়মগুলি নিয়ে বিচার করি এবং দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার ক্ষেত্রে যা নিয়মাবলী ধার্য করা হয়েছে, তাতে আমরা সন্তুষ্ট। আমরা খেলোয়াড়দের পুরোপুরি আটকে রাখতে চাই না। খেলোয়াড়দের মানসিক স্বাস্থ্য আমাদের কাছে খুবই জরুরি।’

অ্যাডিলেডে কেবলমাত্র অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটারদের বাইরে বেরোলে অল্প কয়েকজনের গ্রুপে বেরোনের নিষেধাজ্ঞা ছাড়া আর কোনো বাধা নেই। অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররা সম্পূর্ণ ভ্যাক্সিনেটেড আর বৃহস্পতিবারে নতুন ২৫ জন আক্রান্ত মিলিয়ে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ায় বর্তমানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা মাত্র ৯২ জন। প্রসঙ্গত, বাকি দুই অজি তারকা বোলার মিচেল স্টার্ক এবং ন্যাথন লিয়ঁও একই রেস্তারায় ডিনার সারলেও তাঁরা বাইরে আলাদা টেবিলে বসেছিলেন। তাই তাঁদের ওপর তেমন কোনো নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়নি এবং তাঁরা টেস্ট ম্যাচেও খেলতে পারছেন।

বন্ধ করুন