বাংলা নিউজ > ময়দান > সানিয়া-শোয়েবের জীবনে তৃতীয় ব্যক্তি? দুই তারকার সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন ইমরান

সানিয়া-শোয়েবের জীবনে তৃতীয় ব্যক্তি? দুই তারকার সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন ইমরান

সানিয়া মির্জা ও শোয়েব মালিক জীবনে তৃতীয় ব্যক্তি

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমে এমন খবর সামনে এনেছিল। তারা জানিয়েছিল, ২০১০ সালে ভারতের সানিয়ার সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল পাকিস্তানের শোয়েবের। সেই সম্পর্কই ভেঙে যেতে পারে বলে জল্পনা শুরু হয়ে ছিল।

কয়েকদিন ধরেই সানিয়া এবং শোয়েবের বিবাহবিচ্ছেদের গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। গত শনিবার প্রথম এই খবর প্রকাশ্যে এসেছিন। পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ‘ডেইলি জাং’ এমন খবর সামনে এনেছিল। তারা জানিয়েছিল, ২০১০ সালে ভারতের সানিয়ার সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল পাকিস্তানের শোয়েবের। সেই সম্পর্কই ভেঙে যেতে পারে বলে জল্পনা শুরু হয়ে ছিল।

সূত্রের খবর, বর্তমানে নাকি সানিয়া এবং শোয়েব একসঙ্গে থাকছেন না। তাঁদের একমাত্র সন্তান ইজহান মির্জা মালিককে যদিও তাঁরা একসঙ্গেই দেখাশোনা করছেন বলে জানা গিয়েছে। শোয়েবের অন্য কোনও মহিলার সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে বলে শোনা যাচ্ছে। সে কারণেই ১২ বছরের সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। এই গুঞ্জন আরও বেড়েছে সানিয়ার কিছু পোস্টের পর।

আরও পড়ুন… Virat Kohli hit by a Harshal delivery: সেমিফাইনালের আগেরদিন হার্ষালের বলে কোহলির কুঁচকিতে চোট, বসে পড়লেন যন্ত্রণায়

ইনস্টাগ্রামে একটি স্টোরিতে সানিয়া লেখেন, ‘ভাঙা হৃদয় কোথায় যায়? ঈশ্বর খুঁজতে।’ ভারতের অন্যতম সেরা টেনিস তারকা ছেলেদের সঙ্গে একটি ছবিও পোস্ট করেন। তাতে দেখা যাচ্ছে, ইজহান তাঁকে চুমু খাচ্ছে। সেই সঙ্গে সানিয়া লেখেন, ‘যে মুহূর্তগুলো কঠিন সময় পার করে দেয়।’

সানিয়া মির্জ়া এবং শোয়েব মালিকের সম্পর্ক নিয়ে চর্চার মধ্যেই সানিয়ার বাবা ইমরান মির্জাকে এ বার মুখ খুলতে দেখা গেল। সমাজমাধ্যমে একটি লম্বা পোস্টের মাধ্যমে সানিয়া এবং শোয়েবের সম্পর্কের ব্যাপারে উত্তর দিয়েছেন তিনি। ফেসবুকে একটি পোস্টে সানিয়ার বাবা লিখেছেন, ‘গত কয়েক দিন ধরে আমাদের জীবনের একটি নির্দিষ্ট বিষয়কে নিয়ে প্রকাশ্যে অনেক আলোচনা হচ্ছে, যাতে আমি এবং আমার পরিবার বিধ্বস্ত। অর্ধেক সত্যের দ্বারা তৈরি হওয়া আমাদের জীবনের একটি বিষয়কে নিয়ে অনেকেই আমাকে ব্যক্তিগত ভাবে বিরক্ত করছেন এবং একের পর এক প্রশ্নের দ্বারা উত্ত্যক্ত করছেন। শোয়েব মালিক এবং সানিয়া মির্জা গত ১২ বছর ধরে বিবাহিত জীবন কাটাচ্ছে। বাকিদের মতোই ওদের জীবনেও ওঠানামা রয়েছে। টম, ডিক, হ্যারির মতো কিছু কিছু ব্যক্তি সেটাকে নিয়ে উত্তেজক কাহিনি তৈরির করার চেষ্টা করছে, যা আমরা কোনও মতেই সমর্থন করি না।’

আরও পড়ুন… IND vs ENG: স্পিনারদের বিরুদ্ধে পালটা দিতে বাঁ-হাতি চাই! পন্ত নাকি কার্তিক, কী ইঙ্গিত দিলেন রোহিত?

ইমরান আরও লিখেছেন, ‘জীবনের সব উত্তর হ্যাঁ বা না-তে হয় না। ক্রীড়াজগতে ওরা দু’জনেই আদর্শ। পরিবারের কথা মাথায় না রেখে নিজেদের গোটা জীবন উৎসর্গ করে দিয়েছে দেশকে গর্বিত করতে। ওরা অন্তত আরও বেশি সমীহ প্রত্যাশা করে। এখন অস্ট্রেলিয়ায় বিশ্বকাপ চলছে! দয়া করে নিজেদের দেশকে সমর্থন করার দিকে মনোযোগ দিন! ’

এর মাঝেই শোনা গিয়েছে, সানিয়া শোয়েবের জীবনে এসেছেন তৃতীয় ব্যক্তি। প্রশ্ন ওঠে, কে সেই তৃতীয় ব্যক্তি, যিনি ভারত-পাক জুটির মাঝে মধ্যমণি হয়ে দাঁড়িয়েছেন? আপাতত শোয়েবের সঙ্গে বিতর্কে নাম জড়িয়েছে দু’জনের। প্রথম জন হলেন পাকিস্তানি অভিনেত্রী আয়েশা ওমর। ২০২১ সালে একটি ম্যাগাজিনের জন্য ফটোশুটে এক সঙ্গে দেখা গিয়েছিল শোয়েব এবং আয়েশাকে। তার পর থেকেই অভিনেত্রীর সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে পাক ক্রিকেটারের নাম।

আর এক পাক অভিনেত্রীর সঙ্গেও শোয়েবের সম্পর্ক নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছিল। চলতি বছরের শুরুর দিকে পাকিস্তানের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মাহিরা খানের সঙ্গে শোয়েবের নাম জড়িয়েছিল। 

বন্ধ করুন