ভারত-বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের মধ্যে ঝামেলা (ছবি সৌজন্য স্ক্রিনগ্র্যাব)
ভারত-বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের মধ্যে ঝামেলা (ছবি সৌজন্য স্ক্রিনগ্র্যাব)

'লজ্জাজনক শেষ', ফাইনালের পর ধাক্কাধাক্কি ভারত-বাংলাদেশ খেলোয়াড়দের, ভিডিয়ো

ম্যাচে উত্তেজনার পারদ তুঙ্গে ছিল। কেউই একে অপরকে ছেড়ে কথা বলেনি। বরং দুই পক্ষই 'মধুর কথা' শুনিয়েছে।

টানটান উত্তেজনার ফাইনাল। দুর্দান্ত লড়াই। কিন্তু সবকিছু ছাপিয়ে উঠে এল এক লজ্জাজনক ছবি। ম্যাচের পর দুই দলের খেলোয়াড়রা প্রায় হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন। ধাক্কাধাক্কিও হয়।

রবিবার ফাইনালে মাঠের পরিবেশ প্রথম থেকেই উত্তপ্ত ছিল। কেউই একে অপরকে ছেড়ে কথা বলেনি। ম্যাচের শুরু থেকেই ভারতীয়দের স্লেজ করেন বাংলাদেশিরা। পালটা ব্যাটিংয়ের বাংলাদেশ সময় খেলোয়াড়রাও স্লেজিংয়ের মুখে পড়েন। একের পর এক বাউন্সারে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের ব্যতিব্যস্ত করে দেন ভারতীয় বোলাররা।

আরও পড়ুন : 'বাংলাদেশের আচরণ জঘন্য ছিল', ম্যাচ-পরবর্তী ধাক্কাধাক্কি নিয়ে বললেন প্রিয়ম

সেইসব সামলেই জেতে বাংলাদেশ। যে কোনও পর্যায়ে প্রথম ক্রিকেট বিশ্বকাপ জেতার পর বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। স্বাভাবিকভাবে মাঠে ঢুকে পড়েন তাঁরা। সেই সময় কয়েকজন বাংলাদেশি খেলোয়াড় উত্তেজিত আচরণ করতে থাকেন। বিরূপ মন্তব্যও করেন। এমনই এক বাংলাদেশি খেলোয়াড়কে ঠেলে দেন একজন ভারতীয় খেলোয়াড়। অভিযোগ, বাংলাদেশের ওই খেলোয়াড় অশ্রাব্য ভাষায় কথা বলছিলেন। তারপর অন্য খেলোয়াড়রাও ধাক্কাধাক্কি শুরু করেন। প্রায় হাতাহাতির পরিস্থিতি তৈরি হয়।

আরও পড়ুন : 'মাঠে প্রতিদ্বন্দ্বী, বাইরে বন্ধু', পন্টিং-লারাদের জার্সিতে সই সচিনের

আম্পায়ার ও সাপোর্ট স্টাফরা পরিস্থিতি সামলানোর চেষ্টা করলেও কোনও লাভ হয়নি। প্রায় ৪০-৫০ সেকেন্ড এরকম ধাক্কাধাক্কি চলে। শেষপর্যন্ত ভারতীয় কোচ পরস মামরের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি আয়ত্তে আসে।

আরও পড়ুন : 'মাছ কখনও সাঁতার কাটতে ভুলে যায় না', সচিনের চারে উদ্বেলিত সোশ্যাল মিডিয়া

বন্ধ করুন