বাংলা নিউজ > ময়দান > ভিডিয়ো: কেএল রাহুলের ফ্লিক শট দেখে জোশ হ্যাজেলউডের চোখ ছানাবড়া হয়ে গেল
কেএল রাহুলের ফ্লিক শট দেখে জোশ হ্যাজেলউডের চোখ ছানা বড়া হয়ে গেল

ভিডিয়ো: কেএল রাহুলের ফ্লিক শট দেখে জোশ হ্যাজেলউডের চোখ ছানাবড়া হয়ে গেল

  • ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে প্রথম T20 ম্যাচে টিম ইন্ডিয়ার সহ-অধিনায়ক কেএল রাহুল দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই একটি শক্তিশালী ছক্কা মেরেছিলেন। হ্যাজেলউডের বলে তিনি ফ্লিক শট খেলেন, যা সরাসরি দর্শক আসনে গিয়ের পড়ে যায়। দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই এই ঘটনা ঘটেছে।

ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচ মোহালিতে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে,ভারতের সহ-অধিনায়ক কেএল রাহুল দ্বিতীয় ওভারে জোশ হ্যাজেলউডের বলে একটি ছক্কা মেরেছিলেন,যা দেখে অস্ট্রেলিয়া দলের বোলার অবাক হয়ে গিয়েছিলেন। সেই ভিডিয়ো বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়াতে বেশ ভাইরাল হচ্ছে।

ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে প্রথম T20 ম্যাচে টিম ইন্ডিয়ার সহ-অধিনায়ক কেএল রাহুল দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই একটি শক্তিশালী ছক্কা মেরেছিলেন। হ্যাজেলউডের বলে তিনি ফ্লিক শট খেলেন, যা সরাসরি দর্শক আসনে গিয়ের পড়ে যায়। দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই এই ঘটনা ঘটেছে। সেই ভিডিয়ো বেশ ভাইরাল হচ্ছে। একই সঙ্গে টিম ইন্ডিয়ার সহ-অধিনায়ক কেএল রাহুলকে ছক্কা মারার পর অজি বোলার জোশ হ্যাজলউডের প্রতিক্রিয়াও বেশ ভাইরাল হচ্ছে।

আরও পড়ুন… তানিয়া-সিমরনকে স্ট্যান্ডবাই রেখে এশিয়া কাপের জন্য দল ঘোষণা, স্কোয়াডে রিচা

ম্যাচের কথা বললে এদিন টসে জিতে ফিল্ডিং নিয়েছিল অ্যারন ফিঞ্চের নেতৃত্বাধীন অস্ট্রেলিয়া দল। ব্যাট করতে নেমে ভারতের শুরুটাও ভালো হয়নি। অল্প রানের মধ্যেই তাদের দুই তারকা ব্যাটার কোহলি এবং রোহিত প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। ৩৫ রানে ২ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে গিয়েছিল টিম ইন্ডিয়া। সেখান থেকেই সূর্যকুমারকে সঙ্গী করে কেএল রাহুল ভারতের ইনিংসকে শক্ত হাতে ধরেন। রাহুল ৫৫ এবং সূর্য ৪৬ রান করেন। এরপর ব্যাট করতে নেমে ব্যাট হাতে দুরন্ত খেলেন হার্দিক পান্ডিয়া। ৩০ বলে ৭১ রানের একটি অনবদ্য অপরাজিত ইনিংস খেলেন। ২৩৬ স্ট্রাইক রেটে একটি অনবদ্য ইনিংস খেলেন তিনি। মূলত এই তিন ব্যাটারের ইনিংসে ভর করেই ভারতীয় দল ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ২০৮ রান তোলে। নাথান এলিস সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট নেন।

আরও পড়ুন… বুমরাহ ছিল না বলে হেরেছি, হার্দিকের অসহায় স্বীকারোক্তি

রান তাড়া করতে নেমে ক্যামেরন গ্রিন এবং অ্যারন ফিঞ্চ আক্রমণাত্মক শুরু করেন। ফিঞ্চ ২২ রান আউট হয়ে গেলেও ৩০ বলে ৬১ রানের একটি দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন ক্যামেরন গ্রিন। তাঁকে যোগ্য সঙ্গত দিয়ে স্টিভ স্মিথ ২৪ বলে করেন ৩৫ রান। অজিদের হয়ে শেষ দিকে মারকাটারি একটি ইনিংস খেলে অনবদ্য জয় নিশ্চিত করেন ম্যাথু ওয়েড। ২১ বলে ৪৫ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি। ভারতের হয়ে এ দিন বল হাতে অনবদ্য বোলিং করেন অক্ষর প্যাটেল। ৪ ওভারে ১৭ রান দিয়ে নেন ৩ উইকেট। প্রত্যাবর্তনে ঘটানো উমেশ যাদব ২৭ রান দিয়ে নেন দুটি উইকেট। তবে এদিন ভুবনেশ্বর কুমার একেবারেই ছন্দে ছিলেন না। ভারতের প্রিমিয়র বোলার ৪ ওভারে ৫২ রান দেওয়ার পাশাপাশি কোন উইকেট পাননি। সমালোচকরা বলছেন ভারতের বোলারদের ব্যর্থতার কারণেই নাকি বড় রান করেও টিম ইন্ডিয়াকে হারতে হয়েছে।

 

বন্ধ করুন