বাংলা নিউজ > ময়দান > Silver Medal For India: ভারোত্তলন থেকে পদকের বৃষ্টি, রুপো জিতলেন বিকাশ ঠাকুর

Silver Medal For India: ভারোত্তলন থেকে পদকের বৃষ্টি, রুপো জিতলেন বিকাশ ঠাকুর

বিকাশ ঠাকুর। ছবি- পিটিআই (PTI)

ইংল্যান্ডের ভারোত্তলক চোট পেতেই স্পষ্ট হয়ে যায় দেওয়াল লিখন।

বার্মিংহ্যাম কমনওয়েলথ গেমসের ভারোত্তলন থেকে আট নম্বর পজক জিতল ভারত। মীরাবাই চানু, অচিন্ত্য শিউলিদের পরে এবার দেশকে গর্বিত করলেন বিকাশ ঠাকুর। ছেলেদের ৯৬ কেজি বিভাগে রুপো জিতলেন বিকাশ

স্ন্যাচের প্রথম প্রচেষ্টায় বিকাশ ১৪৯ কেজি ভার তোলেন। দ্বিতীয় প্রচেষ্টায় তিনি নিজের পারফর্ম্যান্সে আরও চার কেজি ভার যোগ করে নেন। অর্থাৎ দ্বিতীয় প্রচেষ্টায় বিকাশ ১৫৩ কেজি ভার তোলেন। স্ন্যাচের তৃতীয় প্রচেষ্টায় বিকাশ ১৫৫ কেজি ভার তোলেন। সুতরাং তিনটি সফল প্রচেষ্টার পরে স্ন্যাচে ভারতীয় তারকার সেরা পারফর্ম্যান্স ১৫৫ কেজি।

স্ন্যাচে বিকাশ যুগ্মভাবে তৃতীয় স্থানে থাকেন। এক নম্বরে থাকা তারকার থেকে ১৬ কেজি পিছিয়ে থাকেন ঠাকুর। সামোয়ার ডন ওপেলগি স্ন্যাচে ১৭১ কেজি ভার তুলে শীর্ষস্থান দখল করেন। স্ন্যাচে গেমস রেকর্ড গড়েন ওপেলগি। ইংল্যান্ডের সাইরিল চাটচেট ১৫৮ কেজি ভার তুলে দ্বিতীয় স্থানে থাকেন। স্ন্যাচে বিকাশের মতোই ১৫৫ কেজি ভার তোলেন ফিজির তানিয়েলা রেনিবগি।

সুতরাং, পদক জয়ের দৌড়ে ওপেলগি স্ন্যাচেই বিকাশকে অনেক পিছনে ফেলে দেন। তবে ভারতীয় ভারোত্তলকের লড়াই ছিল ইংল্যান্ড ও ফিজির ভারোত্তলকের সঙ্গে।

আরও পড়ুন:- Harjinder Kaur Wins Bronze: ভারোত্তলনে পদকের ছড়াছড়ি, ভারতকে ব্রোঞ্জ এনে দিলেন হরজিন্দর

ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ইংল্যন্ডের ভারোত্তলক চোট পেয়ে যাওয়ায় সুবিধা হয় বিকাশের। চাটচেট যন্ত্রণা নিয়েই চেষ্টা করেন লড়াই চালানোর। তবে তিনটি প্রচেষ্টায় একবারও সফল হননি তিনি। ফলে বিকাশের লড়াই দাঁড়ায় ফিজির তানিয়েলের সঙ্গে। তানিয়েল দ্বিতীয় প্রচেষ্টায় এই ইভেন্টে তাঁর সেরা ১৮৮ কেজি ভার তোলেন এবং তৃতীয় প্রচেষ্টায় ব্যর্থ হন। সুতরাং বিকাশ ১৮৮ কেজির বেশি ভার তুললেই পদক নিশ্চিত হয়ে যেত।

বিকাশ প্রথম প্রচেষ্টায় ১৮৭ কেজি ভার তোলেন। দ্বিতীয় প্রচেষ্টায় ১৯১ কেজি ভার তোলা মাত্রই তাঁর পোডিয়াম ফিনিশ নিশ্চিত হয়ে যায়। তৃতীয় প্রচেষ্টায় ১৯৮ কেজি ভার তোলার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন ভারতীয় তারকা। স্ন্যাচ ও ক্লিন অ্যান্ড জার্ক মিলিয়ে বিকাশ ৩৪৬ কেজি ভার তোলেন।

তবে পদকের রং নির্ধারণের জন্য ওপেলগি কতটা ভার তোলেন, সেদিকে তাকিয়ে থাকতে হয়েছিল বিকাশকে। সামোয়ার ভারোত্তলক প্রথম প্রচেষ্টাতেই ২০০ কেজি ভার তোলার পরে নিশ্চিত হয়ে যায় যে সোনা জিতছেন তিনি। বিকাশকে সন্তুষ্ট থাকতে হয় রুপোর পদকে। শেষমেশ ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ২১০ কেজি ও সার্বিকভাবে ৩৮১ কেজি ভার তুলে গোল্ড মেডেল গলায় ঝোলান ওপেলগি।

আরও পড়ুন:- Gold Medal: লন বলসে এল প্রথম সোনা, কমনওয়েলথ গেমসে ভারত সব থেকে বেশি গোল্ড মেডেল জিতেছে কোন খেলায়?

বিকাশ ঠাকুরের পারফর্ম্যান্স:-

বিভাগপ্রথম প্রচেষ্টাদ্বিতীয় প্রচেষ্টাতৃতীয় প্রচেষ্টা
স্ন্যাচ১৪৯ কেজি ১৫৩ কেজি ১৫৫ কেজি
ক্লিন অ্যান্ড জার্ক ১৮৭ কেজি ১৯১ কেজি১৯৮ কেজি তুলতে ব্যর্থ

বিকাশের এটি টানা তৃতীয় কমনওয়েলথ গেমস পদক। তিনি ২০১৪ সালে গ্লাসগো কমনওয়েলথ গেমসে রুপো জেতেন এবং ২০১৮ গোল্ড কোস্ট কমনওেলথ গেমসে ব্রোঞ্জ জেতেন।

বন্ধ করুন