বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ব্যাঙ্কে কর্মী নিয়োগ স্বজনপোষণের অভিযোগ BJP-র, ভিত্তিহীন অভিযোগ, দাবি TMC-র
ব্যাঙ্কের কর্মী নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান তথা তৃণমূল নেতা বিপ্লব খাঁয়ের বিরুদ্ধে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে পিটিআই)
ব্যাঙ্কের কর্মী নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান তথা তৃণমূল নেতা বিপ্লব খাঁয়ের বিরুদ্ধে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে পিটিআই)

ব্যাঙ্কে কর্মী নিয়োগ স্বজনপোষণের অভিযোগ BJP-র, ভিত্তিহীন অভিযোগ, দাবি TMC-র

  • ব্যাঙ্কের কর্মী নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান তথা তৃণমূল নেতা বিপ্লব খাঁয়ের বিরুদ্ধে।

দক্ষিণ দিনাজপুরে ডিস্ট্রিক্ট সেন্ট্রাল কো-অপারেটিভ ব্যাঙ্কে নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ তুলল বিজেপি। কোনওরকম তথ্য প্রকাশ না করেই ব্যাঙ্কে নিয়োগ করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন বালুরঘাট টাউন মণ্ডল সভাপতি সুমন বর্মন। এ নিয়ে তিনি জেলাশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন।ব্যাঙ্কের কর্মী নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান তথা তৃণমূল নেতা বিপ্লব খাঁয়ের বিরুদ্ধে।

বিজেপি নেতার অভিযোগ, গোপনভাবে এই ব্যাঙ্কে কর্মী নিয়োগ করা হয়েছে। স্বজনপোষণের লক্ষ্যেই এই দুর্নীতি করা হয়েছে বলে তার অভিযোগ। বিজেপি সূত্রে জানা যাচ্ছে, বেশ কয়েক বছর আগে এই নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল। পরে বেশ কিছু ভুলভ্রান্তি থাকায় গত বছর ডিসেম্বরে আবার নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে ব্যাঙ্ক। বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয় ১১ জন চতুর্থ শ্রেণির কর্মীকে ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে নিয়োগ করা হবে। সেই সংক্রান্ত তথ্য ওয়েবসাইটে দেওয়া হবে। প্রথমে মৌখিক পরীক্ষা এবং পরে লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হবে। জানুয়ারি মাসে সেই পরীক্ষা নেওয়ার কথা থাকলেও কোনওধরনের আপডেট ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ। সেক্ষেত্রে দুর্নীতি করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন বিজেপি নেতা।

তাঁর অভিযোগ, 'স্বজনপোষণের জন্যই গোপনীয়তা রক্ষা করা হয়েছে। এ বিষয়ে জেলা শাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ জানানোর দাবি বিজেপি নেতা করলেও জেলাশাসক আয়েশা রানি অবশ্য জানিয়েছেন তিনি এখনও কোনও অভিযোগ পাননি। অভিযোগ পাওয়ার পর বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন।

যদিও এই অভিযোগ মানতে রাজি নন বিপ্লব খাঁ। তিনি বলেন, 'কোভিড পরিস্থিতির কারণে এখনও অবধি নিয়োগ প্রক্রিয়া বন্ধ রয়েছে। নিয়োগ প্রক্রিয়া চললে সকলেই জানতে পারবে। নিয়োগে অনিয়মের যে অভিযোগ তোলা হয়েছে তা পুরোপুরি ভিত্তিহীন।'

বন্ধ করুন