বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > হাওড়া জেলা হাসপাতালে দীর্ঘক্ষণ পড়ে ভবঘুরের দেহ, দেখল না কেউ!
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

হাওড়া জেলা হাসপাতালে দীর্ঘক্ষণ পড়ে ভবঘুরের দেহ, দেখল না কেউ!

  • ভবঘুরে ওই ব্যক্তিকে এর আগে বেশ কয়েকবার হাসপাতাল চত্বরে দেখা গিয়েছিল। এদিন দুপুর আড়াইটে থেকে ওয়ার্ডমাস্টারের ঘরের সামনে তাঁকে পড়ে থাকতে দেখা যায়।

হাওড়া জেলা হাসপাতালে ওয়ার্ডমাস্টারের ঘরের সামনে দীর্ঘক্ষণ পড়ে থাকল ভবঘুরে বৃদ্ধের দেহ। পায়ে ক্ষত ছিল তাঁর। ভিড় করে সেটাই ঠুকরে খেতে শুরু করে কাক। সোমবার বহুক্ষণ ধরে এই নৃশংস দৃশ্য দেখতে হল হাওড়া জেলা হাসপাতালে আসা রোগী ও তাঁদের পরিবার–পরিজনদের।

হাসপাতালে আসা এক রোগীর আত্মীয় জানান, ভবঘুরে ওই ব্যক্তিকে এর আগে বেশ কয়েকবার হাসপাতাল চত্বরে দেখা গিয়েছিল। এদিন দুপুর আড়াইটে থেকে ওয়ার্ডমাস্টারের ঘরের সামনে তাঁকে পড়ে থাকতে দেখা যায়। করোনা–ভীতির জেরে সাহায্যে কেউ এগিয়ে আসেনি। ওয়ার্ডমাস্টারকে জানালে তিনি ওই বৃদ্ধকে জরুরি বিভাগে পাঠিয়ে দেন। সেখানে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

যদিও ওয়ার্ডমাস্টারের ঘরের সামনে দেহ পড়ে থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন হাসপাতালের সুপার ডাঃ নারায়ণ চট্টোপাধ্যায়। তিনি জানান, সারাদিন অনেক ভবঘুরে হাওড়া হাসপাতাল চত্বরে ঘুরে বেড়ায়। তাঁদের চিকিৎসার প্রয়োজন হলে সেই ব্যবস্থাও করা হয়। কিন্তু এ ক্ষেত্রে ওই ব্যক্তি কারও নজরে কেন পড়ল না সেটা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বন্ধ করুন