বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > কেন্দ্রীয় রেশন ব্যবস্থায় লোধা, শবররা! কেন্দ্রের বিজ্ঞপ্তি ঘিরে রাজনৈতিক তরজা
কেন্দ্রীয় রেশন ব্যবস্থায় লোধা, শবরদের সুযোগ দেওয়া নিয়ে বিজ্ঞপ্তি। (ছবিটি প্রতীকী)

কেন্দ্রীয় রেশন ব্যবস্থায় লোধা, শবররা! কেন্দ্রের বিজ্ঞপ্তি ঘিরে রাজনৈতিক তরজা

  • নির্দেশিকায় শুধু জঙ্গলমহলের আদিবাসীদের জন্য নয়, অন্যান্য পিছিয়ে পড়া উপজাতি এবং বিশেষভাবে সক্ষম মানুষের ক্ষেত্রেও এই সুবিধা দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

আগামী বছর পঞ্চায়েত নির্বাচন তার আগে রেশন ব্যবস্থা নিয়ে নয়া নির্দেশিকা জারি করল কেন্দ্র সরকার। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, লোধা, শবরদের মতো পিছিয়ে পড়া কোনও পরিবার রাজ্যের খাদ্য সুরক্ষা যোজনা প্রকল্প আওতায় থাকলে তারা চাইলেই কেন্দ্রীয় রেশন প্রকল্পের সুবিধা নিতে পারবেন। আর এই বিজ্ঞপ্তি জারি হতেই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। তৃণমূলের দাবি, পঞ্চায়েত ভোটের লক্ষ্যে জঙ্গলমহলের আদিবাসীদের মন টানার জন্যই এই নির্দেশিকা জারি করেছে কেন্দ্র। তাদের অভিযোগ কেন্দ্র সরকার লোধা এবং শবরদের মতো আদিবাসীদের সমর্থন পেতে চাইছে। সেই কারণেই তারা এই বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে।

সাধারণত, রাজ্য খাদ্য সুরক্ষা যোজনায় দুটি প্রকল্প আছে। যার মধ্যে একটি প্রকল্পে মাথাপিছু দু’কেজি চাল ও তিন কেজি গম দেওয়া হয় এবং অন্য প্রকল্পে ১ কেজি করে চাল ও গম দেওয়া হয়। কেন্দ্রীয় প্রকল্পের অধীনে প্রতি পরিবারকে ১৫ কেজি চাল ও ২০ কেজি আটা দেওয়া হয়। এখন কেন্দ্রীয় প্রকল্পের আওতায় ওই সমস্ত আদিবাসীদের করা হলে সে ক্ষেত্রে তারা দুটি সুবিধা পেয়ে যাবেন। রাজ্যের খাদ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, রাজ্যের মোট সাড়ে ছয় কোটি গ্রাহক কেন্দ্রীয় প্রকল্পের আওতায় রয়েছে এবং বাকি সাড়ে চার কোটি গ্রাহকের দায়িত্ব রয়েছে রাজ্য সরকারের উপর। কেন্দ্র সরকার নতুন করে যে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে তার ফলে সাধারণ মানুষ ধন্দে পড়বে বলে আশঙ্কা তৃণমূলের। অভিযোগ, এই প্রকল্পকে সামনে রেখে বিজেপি পিছিয়ে পড়া মানুষদের সমর্থন পেতে চাইছে।

প্রসঙ্গত, নির্দেশিকায় শুধু জঙ্গলমহলের আদিবাসীদের জন্য নয়, অন্যান্য পিছিয়ে পড়া উপজাতি এবং বিশেষভাবে সক্ষম মানুষের ক্ষেত্রেও এই সুবিধা দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। এনিয়ে আধিকারিকদের আগামী ২৪ এপ্রিলের মধ্যে তালিকা তৈরি করতে নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।

বন্ধ করুন