বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > শুভেন্দু–রাজীবকে কড়া আক্রমণ ফিরহাদের, নাম না করে দিলেন বার্তাও
 ফিরহাদ হাকিম। কলকাতায়। ছবি সৌজন্য : এএনআই
 ফিরহাদ হাকিম। কলকাতায়। ছবি সৌজন্য : এএনআই

শুভেন্দু–রাজীবকে কড়া আক্রমণ ফিরহাদের, নাম না করে দিলেন বার্তাও

  • যাঁরা মায়ের হতে পারেন না, তাঁরা মানুষের হবেন কী করে?

এবার সভামঞ্চ থেকে দলবদলুদের তীব্র আক্রমণ করলেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। মূলত শুভেন্দু–রাজীবকে এখানে নিশানা করা হলেও আরও যাঁরা বিধানসভা নির্বাচনের আগে দল বদলে বিজেপিতে গিয়েছেন তাঁদেরও বার্তা দিয়েছেন। তাই তাঁর তির্যক প্রশ্ন, যাঁরা মায়ের হতে পারেন না, তাঁরা মানুষের হবেন কী করে? ফরাক্কার কর্মিসভা থেকে নাম না করে শুভেন্দু অধিকারী এবং রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে এই ভাষাতেই আক্রমণ করলেন ফিরহাদ হাকিম।

এদিকে দু’‌মাস হল তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। তিনি তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছেন। সরকারে থেকে তিনি যে কাজ করতে পারছিলেন না সে কথা বার বার শোনা গিয়েছে বিভিন্ন জনসভায়। একই অভিযোগ তুলে ইস্তফা দেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ও। যোগ দেন বিজেপিতে। এই দলবদলের পালা নিয়েই এবার কটাক্ষ করলেন ফিরহাদ।

ঠিক কী বলেছেন পুরমন্ত্রী?‌ তিনি বলেন, ‘‌আজ বিজেপি এঁদের দলে নিচ্ছে। কিন্তু ওরা জানে না ব্যবহার করে এইসব ব্যক্তিদের ছুঁড়ে ফেলে দেওয়া হবে। মালদহ, মুর্শিদাবাদের মানুষ আপনাকে সম্মান দিতেন। মমতা বন্দ্যাপাধ্যায়ের দূত মনে করতেন। সাড়ে পাঁচ বছর পর এখন মনে হল সম্মান পাচ্ছেন না।’‌ বিজেপি এই সব ব্যক্তিদের ভোটের পর ছুঁড়ে ফেলে দেবে বলেও দাবি করেন ফিরহাদ। এমনকী বিজেপির কোনও আদর্শ নেই বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

কর্মিসভা থেকে ফিরহাদ বলেন, ‘‌আমরা লড়াই করেছি সিপিএমের বিরুদ্ধে। মানুষের অধিকার কেড়ে নিয়েছিল ওরা। সিঙ্গুরে চাষিদের উপর লাঠিচার্জ করেছিল। তাই ২০১১ সালে ওদের মৃত্যুঘন্টা বেজে গিয়েছিল। এখনও তাই বলছি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর ভরসা রাখুন। বিজেপির মৃত্যুঘন্টাও বাজিয়ে দিন।’‌

বন্ধ করুন