বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > চাকরির নামে ১৭ লক্ষ টাকা নিয়ে গ্রেফতার শিক্ষক

চাকরির নামে ১৭ লক্ষ টাকা নিয়ে গ্রেফতার শিক্ষক

প্রতীকী ছবি

বাপ্পা মালাকার বলেন, ‘চাকরির জন্য আমি বাড়ি বিক্রি করে টাকা দিয়েছি। তার পর থেকে পরিবারকে নিয়ে ভাড়া বাড়িতে কোনও রকমে বাস করছি। কিন্তু এখন যা বুঝছি তাতে চাকরি তো আর হবে না। টাকা ফেরত চাইলে উনি লাগাতার ঘোরাচ্ছেন।

শিক্ষকের চাকরি দেওয়ার নাম করে ১৭ লক্ষ টাকা হাতিয়ে গ্রেফতার হলেন শিক্ষকই। ঘটনা জলপাইগুড়ি জেলার রাজগঞ্জ ব্লকের আমবাড়ির। অভিযুক্ত শিক্ষক সন্তোষ বর্মন টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করেছেন বলে সূত্রের খবর। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

অভিযোগকারী বাপ্পা মালাকার জানিয়েছেন, বছর তিনেক আগে সন্তোষবাবু তাঁকে টাকার বিনিময়ে আপার প্রাইমারিতে শিক্ষকের চাকরির প্রতিশ্রুতি দেন। দাবি মতো বাড়ি বিক্রি করে ১৭ লক্ষ টাকা সন্তোষবাবুকে দেন তিনি। কিন্তু গত বছর নিয়োগ দুর্নীতির খবর প্রকাশ্যে আসার পর বুঝতে পারেন চাকরি হওয়ার আর সম্ভাবনা নেই। এর পর সন্তোষবাবুর কাছে টাকা চাইতে শুরু করেন তিনি। বার বার তাগাদা দিয়েও টাকা ফেরত না পেয়ে সম্প্রতি তিনি আমবাড়ি ফাঁড়িতে অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে আমবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক সন্তোষবাবুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বাপ্পা মালাকার বলেন, ‘চাকরির জন্য আমি বাড়ি বিক্রি করে টাকা দিয়েছি। তার পর থেকে পরিবারকে নিয়ে ভাড়া বাড়িতে কোনও রকমে বাস করছি। কিন্তু এখন যা বুঝছি তাতে চাকরি তো আর হবে না। টাকা ফেরত চাইলে উনি লাগাতার ঘোরাচ্ছেন। ওনার বাড়িতে পর্যন্ত গিয়েছি কিন্তু কাজ হয়নি। আমার কাছে সব প্রমাণ রয়েছে। আমি তা পুলিশকে জমা দিয়েছি।’ তাঁর দাবি, এলাকার বহু বেকার যুবক – যুবতীর কাছ থেকে চাকরির নামে টাকা তুলেছেন সন্তোষ বর্মন।

এই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। পুলিশ সূত্রে খবর, টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করেছেন অভিযুক্ত শিক্ষক। এদিন তাঁকে জলপাইগুড়ি আদালতে পেশ করা হয়।

 

বন্ধ করুন