বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মর্মান্তিক পথদুর্ঘটনায় একসঙ্গে শিশু–সহ মৃত্যু হল তিনজনের, তদন্তে নেমেছে পুলিশ
জখমদের অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে যাওয়া হয়। ছবি সৌজন্য–এএনআই।
জখমদের অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে যাওয়া হয়। ছবি সৌজন্য–এএনআই।

মর্মান্তিক পথদুর্ঘটনায় একসঙ্গে শিশু–সহ মৃত্যু হল তিনজনের, তদন্তে নেমেছে পুলিশ

  • এই দুর্ঘটনার পরই জখমদের অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু হাসপাতালে নিয়ে গেলে তিনজনকেই মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

ফের পথদুর্ঘটনা। আর তার জেরে একসঙ্গে তিনজনের মৃত্যু হল। সম্প্রীতি উড়ালপুলে এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। বাসের সঙ্গে মুখোমুখি দুটি মোটরবাইকের ধাক্কা লাগাতেই মৃত্যু হল তিনজনের। উড়ালপুলের উপরেই এই ঘটনা ঘটেছে। মৃতদের মধ্যে একজন শিশু রয়েছে। এই ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। উড়ালপুলের দুর্ঘটনা নিয়ে পুলিশকে আগেই সতর্ক করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এই দুর্ঘটনার পরই জখমদের অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু হাসপাতালে নিয়ে গেলে তিনজনকেই মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। মৃত তিনজনের মধ্যে রয়েছে একটি শিশু এবং একজন মহিলা। দুটি মোটরবাইকে করে চারজন যাচ্ছিলেন। তখনই উল্টোদিক থেকে এসে একটি বাস ধাক্কা মারে। বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেছিল বলে জানা গিয়েছে।

আজ দুপুরে সম্প্রীতি উড়ালপুলের উপর দিয়ে দুটি মোটরবাইকে করে জাচ্ছিলেন চারজন। একটি মোটরবাইকে ছিলেন তিনজন, আর একটিতে একজন ছিলেন। তখনই উল্টোদিক থেকে আসা একটি বাস ধাক্কা মারে তাঁদের। ঘটনাস্থলেই তিনজন মারা যান। একজনের শুধু পা ভেঙেছে। আহত মোটরবাইক আরোহীকে বিদ্যাসাগর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

এখন প্রশ্ন উঠছে, বাস উড়ালপুলে উঠেছিল কেন?‌ কারণ বাসের উড়ালপুলে ওঠার অনুমতি নেই। এই ঘটনা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর, দুর্ঘটনার সময়ে উড়ালপুলের নীচে যেখানে মহেশতলা থানার পুলিশের থাকার কথা ছিল সেখানে পুলিশ ছিল না। সেই সুযোগ নিয়েই বাসটি উড়ালপুলের উপরে উঠে যায়।

বন্ধ করুন